শুক্রবার, ১১ অক্টোবর ২০১৯
Monday, 16 Sep, 2019 08:19:38 am
No icon No icon No icon
দৈনিক জনতা'র বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

//

বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের জের ধরে দৈনিক জনতা পত্রিকার সম্পাদক আহ্সান উল্লাহ্, প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার ও সিনিয়র রিপোর্টার হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা বিভাগ সাংবাদিক ফোরাম, নোয়াখালী জার্নালিস্ট ফোরাম-ঢাকা ও পটুয়াখালী জার্নালিস্টস ফোরাম (পিজেএফ), ঢাকা। রোববার পৃথক পৃথক বিবৃতিতে সাংবাদিক সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও অবিলম্বে মিথ্যা মামলাটি প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।
ঢাকা বিভাগ সাংবাদিক ফোরাম: ফোরামের সভাপতি মো. আলম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাসান কাজল এক বিবৃতিতে ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, মিথ্যা মামলা দায়ের করে সম্পাদক, প্রকাশক ও সিনিয়র সাংবাদিককে হয়রানি স্বাধীন গণমাধ্যমের পরিপন্থী। এতে বাক-স্বাধীনতা রুদ্ধ হয়। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের এমন অপব্যবহারে আমরা উদ্বিগ্ন।
বিবৃতিতে ফোরাম নেতৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিকতার নীতিমালা মেনেই গত ১৫ মার্চ দৈনিক জনতা পত্রিকায় 'শাহজালালে সোনা ও মুদ্রা চোরাচালান চক্রের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ' শিরোনামে একটি প্রতিবেদন লিখেছেন সিনিয়র রিপোর্টার হাবিবুর রহমান। প্রতিবেদনে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের বক্তব্যও উল্লেখ করেছেন তিনি। তারপরও তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।
তারা আরোও বলেন, সত্য ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ পরিবেশনের কারণে একটি চক্র পত্রিকার কণ্ঠরোধ করার ঘৃণ্যপথ বেছে নিয়েছে। এজন্য একের পর এক সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার ও হয়রানির অপচেষ্টা করছে। এই মামলার মধ্যদিয়ে ঐ চক্রের কুৎসিত রূপ উন্মোচিত হলো।
ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে মামলাটি দ্রুত প্রত্যাহার ও দৈনিক জনতা পত্রিকার সম্পাদক আহ্সান উল্লাহ্, প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার ও সিনিয়র রিপোর্টার হাবিবুর রহমানকে পুলিশি হয়রানি না করার দাবি জানিয়েছেন ঢাকা বিভাগ সাংবাদিক ফোরামের নেতৃবৃন্দ।
নোয়াখালী জার্নালিস্ট ফোরাম-ঢাকা: ফিরোজ আলম মিলন স্বাক্ষরিত এক প্রতিবাদ বিবৃতিতে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এটি স্বাধীন গণমাধ্যমের জন্য হুমকি। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, অনতিবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহার না করলে পরিণতি ভালো হবে না। এতে আরও বড় ধরনের পদক্ষেপ বা কর্মসূচী দিতে বাধ্য হবে। এতে করে গণমাধ্যম এবং সরকারের মাঝে দূরত্ব সৃষ্টি হবে তাতে কারো মঙ্গলের কিছু নেই বরং গণতন্ত্র বিপন্ন হতে পারে পাশাপাশি জাতি বিভ্রান্ত হয়ে সরকারের উপর আস্থার সংকট সৃষ্টি হবে। তাই টালবাহানা না করে নিঃশর্তভাবে মামলা প্রত্যাহার করে পত্রিকা কর্তৃপক্ষের নিকট ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানায় এই ফোরাম।
পটুয়াখালী জার্নালিস্টস ফোরাম (পিজেএফ), ঢাকা: পিজেএফ-এর কার্যকরী সভাপতি আসম জাকির হোসেন, সহ-সভাপতি মো. শহীদুল ইসলাম রানা ও সাধারণ সম্পাদক হরলাল রায় সাগর এক বিবৃতিতে ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেন, তথ্য প্রবাহের এই সময়ে পেশাদার সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মিথ্যা ও হয়রানীমূলক মামলা দায়ের স্বাধীন গণমাধ্যমের পরিপন্থী। এতে বাক স্বাধীনতা রুদ্ধ হয়। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের এমন অপব্যবহারে আমরা উদ্বিগ্ন।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিকতার নীতিমালা মেনেই প্রতিবেদন লিখেছেন হাবিবুর রহমান। প্রতিবেদনে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের বক্তব্যও উল্লেখ করেছেন তিনি। তারপরও প্রতিবেদকসহ দৈনিক জনতা'র বিরুদ্ধে মামলা হয়রানীর সামিল। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে মামলাটি দ্রুত প্রত্যাহার ও সম্পাদক, প্রকাশকসহ সংশ্লিষ্টদের পুলিশি হয়রানি না করার দাবি জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।
প্রসঙ্গত, গত ১৫ মার্চ দৈনিক জনতা পত্রিকায় হাবিবুর রহমানের লেখা 'শাহজালালে সোনা ও মুদ্রা চোরাচালান চক্রের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ' শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK