বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Saturday, 10 Mar, 2018 11:39:48 am
No icon No icon No icon

বিয়ে জানিয়ে ই করবো সময়মত


বিয়ে জানিয়ে ই করবো সময়মত


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: আরিফ রহমান শিবলি যিনি একাধারে দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম ক্ষুদে গণমাধ্যম সস্থার প্রধান ,সফল নতুন উদ্যোক্তা ,রক ভোকাল ,সেচ্ছাসেবক ছাড়াও তিনি অনুষ্ঠান প্রযোজক হিসেবে লিংকিন পার্ক ব্যান্ড দলের বায়োগ্রাফি নির্মাণ করে নিজেকে পরিচিত করেছেন দেশে এবং দেশের বাইরে । এই প্রতিবেদকের সাথে একান্ত কথোপকথনে আরিফ জানালেন যা !

টাইমস২৪ ডট নেট : কেমন আছেন ?
আরিফ : আলহামদুলিল্লাহ !ভালো আছি । 

 টাইমস২৪ ডট নেট : শুনলাম মিডিয়া ছেড়ে দিচ্ছেন কথাটা কতটুকু সত্য ?
আরিফ : আমি তেমন কিছু ই কিন্তু কোথাও বলিনি কিংবা লিখিনি যে আমি মিডিয়া ছেড়ে দিচ্ছি । তবে ! একুশে টেলিভিশনের মুক্ত খবর থেকে দীর্ঘ তেরো বছর আছি তাই ভেবেছিলাম হয়তো ব্রেক নেওয়ার দরকার । এই জন্য পরিবার , প্রিয় মানুষ বেশকিছু কাছের বন্ধুদের কাছে মতামত জানতে চেয়েছি এর চেয়ে বেশীকিছুনা । 

টাইমস২৪ ডট নেট : মিডিয়া যদি কখনো ছাড়েন তাহলে কি করবেন ?

আরিফ : উম ! সামনে থেকে বেশকিছু সরকারী চাকুরীর পরীক্ষা আছে সেগুলো দেওয়ার জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিচ্ছি ।আল্লাহ চাইলে সরকারী প্রতিষ্ঠানে কাজ করে দেশ সেবা করতে চাই । আর অন্যথায় ব্যাংক কিংবা কর্পোরেট অফিসে কাজ করতে পারি । 

টাইমস২৪ ডট নেট : জানলাম সামনে ইউরোপ যাচ্ছেন সেখানে কি স্থায়ী হওয়ার চিন্তা আছে ? 

আরিফ : হা হা ! তেমন কিছু হলে তো গতবছর ই জার্মানি চলে যেতাম । সুইডেনে শিশুদের নিয়ে কাজ করা একটি প্রতিষ্ঠান থেকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে আমাকে, একটি সেমিনারে যোগ দিয়ে বক্তব্য রাখার জন্য ।সেমিনার টি হওয়ার কথা জুলাই মাসে যেখানে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের 
অন্তর্ভুক্ত সকল দেশ থেকে অংশ নিবে শিশুদের নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন সস্থার উচ্চপদস্থ গন ।আর স্ত্রী নিয়ে বিভিন্ন দেশে ভ্রমণের চিন্তা আছে মাথায় ,তবে স্থায়ী ভাবে নিজদেশ ছেড়ে থাকবো তেমনকিছু ভাবিনি । 


টাইমস২৪ ডট নেট : ঘরের আরিফ বাইরের আরিফ কিংবা ফেসবুকে ভক্ত শুভাকাঙ্ক্ষীদের আরিফের ভিতর পার্থক্য কি ?

আরিফ : উম ! ঘরে আমি খুব ই চুপচাপ দরকার ছাড়া কথা বলিনা যাও বলি আম্মুর সাথে তাও সবসময় ই না । বাইরের আরিফ নিজ কাজ নিয়ে ভাবে সবচেয়ে বেশী কিভাবে কাজ দ্রুত শেষ করা যায় তাই কাজ করে সারাক্ষন মাথার ভিতরে । আর ফেসবুকে অসংখ্য ,পরিচিত, অপরিচিত বন্ধু ভক্তদের  সাথে কথা হয়না খুব একটা এমন অভিযোগ সবসময় ই থাকে আমার উপর !তবে ইনবক্সে মাঝে মাঝে কিছু সহায়তা দেওয়ার চেষ্টা করি পরামর্শ দিয়ে
সাহস যুগিয়ে চলি । সবচেয়ে বড় কথা মানুষজন মিডিয়া কে যেভাবে দেখেন 
তার সম্পূর্ণ বিপরীতভাবে নিজেকে তৈরি করেছি অর্থাৎ যা ভালো গ্রহন করেছি যা খারাপ তা বর্জন করেছি । 

টাইমস২৪ ডট নেট : বিয়ে নিয়ে কি ভাবছেন ?

আরিফ : উম !এখন মাত্র নিজেদের কে নিজেরা সময় দিচ্ছি জানছি বুঝছি 
কিন্তু সেইরকম সিদ্ধান্তে যাওয়া হয়নি । যেহেতু বিয়ের বিষয়টা দুই পরিবার ই অবহিত তাই সময় অনুসারে আশা করছি করে ফেলবো । 


 টাইমস২৪ ডট নেট : প্রিয় মানুষ সম্পর্কে যদি বলতেন কিছু ?

আরিফ : উম ! তার নাম আমার কাছে দুইটি এক, বাচ্চামনি দুই ,এংরি বার্ড এর বেশীকিছু ই বলবো না । 

টাইমস২৪ ডট নেট : যদি ১ বছরের জন্য আপনাকে প্রধানমন্ত্রী করা হয় আপনি দেশের উন্নয়নে কি কি পদক্ষেপ নিবেন ?

আরিফ : প্রথমে এখনকার সকল শিক্ষা পদ্ধতি পরিবর্তন আনতাম ,কারন এই শিক্ষা পদ্ধতি দিয়ে সোনার বাংলা গড়তে সময় বেশী লাগবে । দ্বিতীয়ত , দেশের শিক্ষিত বেকারদের কে সনদ জমা দিয়ে ব্যাংক থেকে
বিনা সুদে লোণ দিতাম যার ফলে নতুন তরুন উদ্যোক্তা বৃদ্ধি পেতো । তৃতীয় , ধর্ষণের আসামী এবং থানায় জমে থাকা দশ মামলার অধিক সাজাপ্রাপ্তদের  ক্রসফায়ার করার বিধান চালু করতাম এতে দেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকতো । চতুর্থ , কোটা নিয়ম বাতিল করতাম ভর্তি কিংবা সরকারী চাকুরীর ক্ষেত্রে । পঞ্চম , কৃষি প্রধান বাংলাদেশে কৃষকরা অবহেলিত থাকে সবসময় ই তাই তাদের জন্য বিনামূল্য তে সার বিতরন করা , পানি সেচ বিনামূল্য তে করে দিতাম যার ফলে উৎপাদন খরচ কৃষকের কম পড়তো দেশের দ্রব্যমূল্য স্বাভাবিক থাকতো। 
ষষ্ট , সকল স্কুলে বাস ছাড়া শিক্ষার্থীদের কে আনা নেওয়ার সকল যানবাহন বন্ধ করে দিতাম ,লোকাল বাসগুলো তুলে দিয়ে সকল বাস দোতলা করে দিতাম।সরকারী ১ম শ্রেণী সহ যারা ট্যাক্স দেয় না নিয়মিত এমন স্কল গাড়ি বাজেয়াপ্ত করতাম যার ফলে যানজট কমে যেতো । 

 
টাইমস২৪ ডট নেট : অনেক ধন্যবাদ মূল্যবান সময় দেওয়ার জন্য ।

আরিফ : আপ্নাকেও ধন্যবাদ এবং সকল পাঠকদের কাছে দোয়া চাই
যেনও জীবনে ভালমানুষ ,ভালোস্বামী ,ভালো বাবা ,ভালো সন্তান হতে পারি ।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK