demo
Times24.net
ধানমণ্ডিতে জোড়া খুন: গৃহকর্মী সুরভীসহ ৫ আসামি রিমান্ডে
Wednesday, 06 Nov 2019 09:46 am
Times24.net

Times24.net


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: রাজধানীর ধানমণ্ডিতে জোড়া খুনের মামলায় গৃহকর্মী সুরভী আক্তার নাহিদাসহ (২২) ৫ আসামিকে ৫ দিন করে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর মুখ্য হাকিম মঙ্গলবার শুনানি শেষে তাদের রিমান্ডে পাঠান।অপর চার আসামি হলেন- ভবনের ম্যানেজার গাউসুল আজম (৪২), নিরাপত্তারক্ষী নুরুজ্জামান (৪২), ইলেকট্রিশিয়ান বেলায়েত হোসেন (৩২) এবং নিহত গৃহকর্ত্রী আফরোজা বেগমের মেয়ে সুলতানা রুবার স্বামীর বডিগার্ড বাচ্চু (৩৪)। আসামিদের ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক মো. রবিউল আলম। আবেদনে বলা হয়েছে, সুরভী আক্তার অপর আসামিদের যোগসাজশে জোড়া খুন ও লুণ্ঠনের ঘটনাটি ঘটিয়েছেন। এটি একটি চাঞ্চল্যকর ও স্পর্শকাতর মামলা।
এই খুনের সঙ্গে আসামিদের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে। তবে কার নির্দেশে এই জোড়া খুন ও লুণ্ঠন? মামলার রহস্য উদ্ঘাটনে আসামিদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা জরুরি। রাষ্ট্রপক্ষে থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এসআই আশরাফ ও আইনজীবী হেমায়েত উদ্দিন খান আসামিদের রিমান্ড চেয়ে শুনানি করেন। শুনানিতে তারা বলেন, কাজের মেয়ের একার পক্ষে জোড়া খুন করা সম্ভব নয়। এর নেপথ্যে আরও অনেকেই জড়িত আছেন।
মামলার মূল রহস্য উদ্ঘাটনে আসামিদের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন। অপরদিকে আসামি গাউসুল আজম ও নুরুজ্জামানের পক্ষে আইনজীবী রিয়াজ মাহমুদ ও মো. রেজাউল করিম রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন প্রার্থনা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আসামিদের জামিন নাকচ করে রিমান্ডের আদেশ দেন। গত ৩ নভেম্বর নিহত আফরোজা বেগমের মেয়ে দিলরুবা সুলতানা রুবা (৪২) বাদী হয়ে ধানমণ্ডি থানায় মামলা করেন।

ধানমণ্ডি ২৮ নম্বর রোডের ২১ নম্বর বাসার ই-৫ নম্বর ফ্ল্যাটে স্বামী-সন্তান নিয়ে রুবা বাস করেন। একই ভবনের ডি-৪ নম্বর ফ্ল্যাটে রুবার বৃদ্ধ মা আফরোজা বেগম (৬০) বসবাস করছিলেন কাজের মেয়ে দিতিকে (১৮) নিয়ে। গত ১ নভেম্বর সন্ধ্যায় তারা খুন হন।