demo
Times24.net
হত্যাচেষ্টা মামলার আসামীদের হত্যার হুমকিতে সাংবাদিক রানা
Saturday, 24 Aug 2019 17:15 pm
Times24.net

Times24.net


খন্দকার হানিফ রাজা, বিশেষ প্রতিনিধি, টাইমস ২৪ ডটনেট: রাতের অন্ধকারে ঘরে ঢুকে এলোপাথারি কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা মামলার আাসামীরা দায়ের করা মামলা তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছে। তানা হলে তাকেসহ তার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হবে বলে হুমকি দিচ্ছে আসামীরা। এমতাবস্থায় আতঙ্কে আছে পরিবারের সদস্যরা। এমন অভিযোগ করেছেন ঘটনার শিকার সাংবাদিক মো. নজরুল ইসলাম রানা সন্যামত।
তিনি জানান, ২০১৮ সালের ২৯ আগস্ট রাতে বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার ৬ নং ফরিদপুর ইউনিয়নের ভাতশালা গ্রামের বাড়ীতে তিনিসহ তার পরিবারের সদস্যরা ঘুমিয়ে ছিলেন। বাড়ীর সবাই ঘুমিয়ে পড়লে রাত দেড়টার দিকে পূর্ব শত্রæতার জেরে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তিনজন দুর্বৃত্ত তার বাসার ভেতরে ঢুকে। তাদের টর্চের আলো দেখে ঘুম ভেঙ্গে গেলে তিনি কে? কে? বলে চিৎকার করে ওঠেন। ওই সময় দুর্বৃত্তদের সাথে থাকা চাপাতি দিয়ে তাকে এলোপাথারি কোপায়। তার চিৎকার শুনে তার স্ত্রী, মা ও ছোট ভাইয়ের ঘুম ভেঙ্গে গেলে তারা তাকে বাঁচাতে এগিয়ে যায়। ওই সময় দুর্বৃত্তরা তার মাকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দিলে তিনিও আহত হন। তাদের আর্তচিৎকারে বাড়ী ও আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে দুর্বৃত্তরা বাসার ভেতরে চাপাতি ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে তাকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় তার মা খাদিজা বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাত তিন ব্যক্তিকে আসামী করে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন (মামলা নং- ০২. তাং- ০২/০৯/২০১৮ ইং)। 
তিনি আরো জানান, তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তিন দুর্বৃত্ত বাসার ভেতরে ঢুকে এবং বাইরে আরো ৮/৯ জন দুর্বৃত্ত উপস্থিত ছিলো বলে আমরা জানতে পারি। পরবর্তীতে মামলাটি জেলা গোয়েন্দা শাখায় হস্তান্তর করা হয়। পরে ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত থাকায় (১) আব্বাস ফকির, (২) নাঈম হাওলাদার ও (৩) মো. ফারুক ফকিরকে গ্রেফতার করে রিমান্ডে আনে। কিছু দিন পর তারা জামিয়ে বের হয়ে মামলা তুলে নিতে হুমকি দেয়া অব্যাহত রাখে। মামলা চলমান থাকায় বর্তমানে আসামীরা স্বপরিবারে তাকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে বলে জানান তিনি।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বরিশাল জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) এসআই এজাজ জানান,  উল্লেখিত তিনজনকে গ্রেফতার করার পর রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে অন্যান্যদের তথ্য পাওয়া গেছে। তাদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।