demo
Times24.net
কটিয়াদীতে টান টান উত্তেজনা: ফের জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারনা
Monday, 10 Jun 2019 19:42 pm
Times24.net

Times24.net


সফিকুল ইসলাম, বিশেষ প্রতিনিধি, টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: আগামী ১৮ জুন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কটিয়াদী উপজেলা নির্বাচন। এরইমধ্যে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কটিয়াদী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তানিয়া সুলতানা হ্যাপী (নৌকা), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক উপজেলা  চেয়ারম্যান লায়ন আলী আকবর (দোয়াত-কলম), ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান (ঘোড়া), আলতাফ উদ্দীন (মোটর সাইকেল) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার আনার (আনারস), জাকের পার্টির প্রার্থী শহীদুজ্জামান স্বপন (গোলাপ ফুল) শেষমুহূর্তে বিরামহীন প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। এসব প্রার্থীরা দিন-রাত ভোটারদের মনজয় করতে ভোট চাওয়াসহ বিভিন্ন কৌশলে প্রচারণা-গণসংযোগ চালাচ্ছেন। এর আগে নানা অনিয়মের অভিযোগে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলা পরিষদের নির্বাচন স্থগিত করা হয়। তবে সরকারদলীয় নেতাকর্মীদের মতে, কটিয়াদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাধ-সুষ্ঠু হলে নৌকার প্রার্থী থেকে অনেক বেশি ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগের দুই (২) বিদ্রোহীপ্রার্থী সাবেক উপজেলা  চেয়ারম্যান লায়ন আলী আকবর (দোয়াত-কলম) ও ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান (ঘোড়া) হাড্ডা-হাড্ডি লড়ায়ের সম্ভাবনা রয়েছে। সাবেক উপজেলা  চেয়ারম্যান লায়ন আলী আকবর বলেন, জন্ম থেকে আওয়ামী লীগ করে আসছি। তাই প্রতিটি ভোটারের কাছে গণসংযোগে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। এরআগেও আমি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। এলাকার প্রতিটি পাড়া-মহল্লা ও গ্রামের আমাকে সৎ ও ত্যাগী কর্মী হিসেবে চিনেন। তিনি বলেন, আমি আজন্ম আওয়ামী লীগ, আওয়ামী লীগ কর্মী এবং বঙ্গবন্ধুর অনুসারী। আমার রাজনৈতিক আদর্শ ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’। তিনি বলেন, ১৯৭৫ পরবর্তী কঠিন সময়ে দিনরাত খেয়ে না খেয়ে, ঘুমিয়ে না ঘুমিয়ে শুধু বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদ করেছি। তিনি বলেন, দলের প্রত্যেকটি নেতাকর্মী আমার সাথে আছে। তারা আমার জন্য খেয়ে না খেয়ে অবিরাম পরিশ্রম করে যাচ্ছে। সুতবাং আমার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না বলেও জানা তিনি। অপরদিকে আরেক প্রার্থী ও আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা হিসেবে পরিচিত ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান। গণসংযোগে থাকায় তার বক্তব্য  নেয়া সম্ভব হয়নি। তিনি শুধু জানিয়েছেন কর্মীদের নিয়ে ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছি-গণসংযোগ করছি। আশা করছি সফল হবো। তবে নৌকার প্রার্থী তানিয়া সুলতানা হ্যাপী জানিয়েছেন, সকাল-বিকাল ও রমজানে মধ্যরাতে কটিয়াদী উপজেলার নৌকার সমর্থক প্রতিটি নেতাকর্মীর বাড়িতে বাড়িতে গণসংযোগ করেছি। তারা সবাই আমাকেই (নৌকা) ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবে। নৌকার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না বলেও জানান তিনি। তানিয়া সুলতানা হ্যাপী আওয়ামী যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় সহ তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক। নৌকার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে বলেও দাবি করেন এই প্রার্থী।
প্রসঙ্গত, পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে কটিয়াদী উপজেলা পরিষদের নির্বাচন গত ২৪ মার্চ সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। এরপর বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে আগেই ভোট দেওয়ার খবর আসতে থাকার পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলার ৮৯টি কেন্দ্রের সবকটিতে ভোটগ্রহণ স্থগিত ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার ও  জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম। এছাড়া দায়িত্ব পালনে অবহেলার অভিযোগে কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) শফিকুল ইসলাম এবং কটিয়াদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সামসুদ্দীনকে প্রত্যাহার করা হয়। এর পর গত ২২ মে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের নির্বাচন পরিচালনা-২ এর উপসচিব আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত চিঠিতে জানানো হয় ১৮ জুন কটিয়াদী উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন কমিশন থেকে এ সংক্রান্ত চিঠি সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম এর কাছে পাঠানো হয়। কটিয়াদী উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ৩০ হাজার ৪২২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১৩ হাজার ৬১৮ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ১৬ হাজার ৮২২ জন। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৬ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।