demo
Times24.net
কুড়িগ্রামে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে ১০ জন আহত
Monday, 10 Jun 2019 00:49 am
Times24.net

Times24.net


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে রোববার সন্ধ্যায় শ্রমিক ও পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় পুলিশ লাঠিচার্জ ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করলে ১০ জনেরও বেশি আহত হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও আহত শ্রমিকরা জানান, রোববার সন্ধ্যায় ভূরুঙ্গামারী থানার পুলিশ জয়মনির হাট হতে পিকাপ ভ্যানে আসামি নিয়ে থানায় আসার পথে বাসস্ট্যান্ডের ঝর্ণা মার্কেটের সামনে জ্যামে পড়ে। এ সময় পুলিশ সাইড চাইলে জ্যামে আটকা পড়ারা অপরাগতা প্রকাশ করে। এ সময় পুলিশের এএসআই আমিনুল ইসলাম উত্তেজিত হয়ে ভ্যানের সামনে মোটরসাইকেল নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা সদর ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আরিফ আহম্মেদকে মারপিট শুরু করে। পরে উপস্থিত জনতা বাধা দেয় এবং পুলিশের ওপর চড়াও হয়। এ সময় শ্রমিক নেতা মিজানুর রহমান এগিয়ে এসে ছাড়ানোর চেষ্টা করলে তাকেও কিল ঘুষি দেয় পুলিশ। পরে পুলিশ জনতা, শ্রমিকের সংঘর্ষ বাধে। 
এদিকে পুলিশ সদস্যের আক্রান্ত হওয়ার খবর থানায় পৌঁছালে ১৫/১৬ জনের পুলিশ টিম এসে এলোপাতাড়ি লাঠিচার্জ ও রাবার বুলেট ছোড়ে। এতে শত শত পথচারী, বাসের যাত্রীসহ শ্রমিক লাঠিচার্জের শিকার হয়। 
এদিকে পুলিশের ছোড়া রাবার বুলেটের আঘাতে ১০ জনের অধিক আহত হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় ভূরুঙ্গামারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ৯ জন রয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা এ এস এম সায়েম। 
ঘটনার পরপরই শ্রমিকরা ঢাকাসহ স্থানীয় রুটের সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। পরে রাত ১০টার দিকে বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চোধুরী শোভনের মধ্যস্থায় অবরোধ তুলে নেয় শ্রমিকরা।
সহকারী পুলিশ সুপার (ভূরুঙ্গামারী-কচাকাটা সার্কেল) শওকত আলী জানান, ভুল বোঝাবুঝির কারণে উদ্বুদ্ধ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল। উভয় পক্ষের মধ্যে আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। পুলিশ ও শ্রমিকের মাঝে কেউ যদি দোষী হয়ে থাকে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।