demo
Times24.net
ইরানি তেলের শূন্যতা কারো পক্ষে পূরণ করা সম্ভব নয়: তেলমন্ত্রী
Sunday, 09 Jun 2019 10:46 am
Times24.net

Times24.net


টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরানের তেলমন্ত্রী বিজান জাঙ্গানে বলেছেন, তেল রপ্তানিকারক দেশগুলোর সংস্থা ওপেক থেকে বেরিয়ে যাওয়ার কোনো ইচ্ছা তার দেশের নেই। তবে এ সংস্থার দুই প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ইরান ও ভেনিজুয়েলার বিরুদ্ধে ওপেককে ব্যবহার করার লক্ষ্যে সংস্থার কিছু সদস্য দেশ যে ষড়যন্ত্র করছে তার তীব্র সমালোচনা করেছেন তিনি। ইরানের ‘ইকানা’ বার্তা সংস্থাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জাঙ্গানে বলেন, “ওপেক ত্যাগ করার ইচ্ছা তেহরানের নেই। তবে কিছু সদস্য দেশ ইরান ও ভেনিজুয়েলাকে প্রতিহত করার জন্য ওপেককে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহারের যে চেষ্টা করছে সেজন্য দুঃখ প্রকাশ করছি।”
ইরানের তেলমন্ত্রী বলেন, “ওপেকের সদস্য মধ্যপ্রাচ্যের দু’টি দেশ আমাদের বিরুদ্ধে শত্রুতা করছে। আমরা তাদেরকে শত্রু  মনে না করলেও তারা আমাদের সঙ্গে বিদ্বেষী আচরণ করছে। তারা বিশ্ব বাজারে তেলকে আমাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে।”
জাঙ্গানে ওই দু’টি দেশের নাম না বললেও দৃশ্যত তিনি সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের কথা বুঝিয়েছেন। মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরানের তেল বিক্রি কমে যাওয়ার পর ওই দুই দেশ আমেরিকাকে এই বলে আশ্বস্ত করেছে যে, তারা বিশ্ববাজারে ইরানের তেলের ঘাটতি পুষিয়ে দেবে।


ইরানের তেলমন্ত্রী বলেন, “আমি মনে করি এই দেশগুলো ওপেককে পতনের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু আমরা চাই ওপেক বেঁচে থাকুক। ওই দু’টি দেশ ওপেকের মধ্যে গৃহযুদ্ধ বাধিয়ে দিয়ে এ সংস্থার ভাবমর্যাদা ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করছে।”
সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত বিশ্ব বাজারে ইরানের তেলের ঘাটতি পূরণ করতে পারবে কিনা- এমন প্রশ্নের উত্তরে জাঙ্গানে বলেন, “কারো পক্ষে এই শূন্যতা পূরণ করা সম্ভব নয়।” তিনি আরো বলেন, “তেলের বাজার ভঙ্গুর ও অস্থিতিশীল। এই দুই দেশ তাদের সর্বোচ্চ ক্ষমতা ব্যবহার করে তেল উত্তোলন করে যাচ্ছে যাতে আমেরিকা ও ইহুদিবাদী ইসরাইলের স্বার্থ রক্ষা করা যায়।”

সূত্র: পার্সটুডে।