demo
Times24.net
নাগরিক সেবা নিশ্চত হলেই পুলিশের ঈদ
Wednesday, 05 Jun 2019 13:39 pm
Times24.net

Times24.net

সফিকুল ইসলাম, বিশেষ প্রতিনিধি, টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: আরে ভাই, পুলিশের আবার ঈদ কিসের। পুলিশের কোনো ঈদ নাই। তবে সড়ক-মহাসড়কে কিংবা সকল নাগরিক সুখ আর শান্তিতে ঈদ পালন করতে পারলেই আমাদের ঈদ হয়ে যায়। আজ বুধবার কর্মরত পুলিশদের সাথে আলাপকালে এসব কথা জানা গেছে। এ সময় কথা হয় ঢাকার রামপুরা-ডেমরা ট্রাফিক জোনের টিআই বিপ্লব ভৌমিক, সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামানসহ বেশ কয়েজজন পুলিশ অফিসারের সাথে। তারা জানান, সারাদেশ যখন ঈদের আনন্দে ভাসছে, পরিবারের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে ঢাকাবাসী যখন ছুটছে নাড়ীর টানে, ঠিক এমন সময় রাজধানী ও এর আশপাশের জেলার দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা সড়ক মহাসড়ক ও বিভিন্ন থানা এলাকায় জননিরাপত্তায় কাজ করছেন। এসব সদস্যরা মনে করেন, দেশের সকল মানুষের শান্তি নিশ্চিত করতে পারলেই তারা আনন্দ পায়। ঈদের আনন্দকেই নির্বিঘ্ন করতে পরিবার-পরিজনের আনন্দকে দূরে ঠেলে কর্তব্য পালনে সচেষ্ট পুলিশ সদস্যরা। বুধবার ভোর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দোয়েল চত্বরে শাহবাগ থানা পুলিশ টহল দেয়। কথা হয় রামপুরা-ডেমরা ট্রফিক জোনের টিআই বিপ্লব ভৌমিক এর সাথে। তিনি বলেন, আজকে য়ারা রাস্তায় দাড়িয়ে দায়িত্ব পালম করছে, আসলে আমরা যে নিজেদের ঈদের আনন্দ ভুলে এই জনগণের ঈদ নির্বিঘ্নে করতে কাজ করছি তারা তা মনে না করে, উল্টো ভুল বোঝে।’

পুলিশ সদস্যদের মিষ্টিমূখ করানো হবে ঈদের দিন
পুলিশের মিরপুর ইউনিটের এক নায়েক জানালেন, গত চার বছর ধরে ঈদে বাড়ী যান না তিনি। দায়িত্ব পালনের মধ্যেই ঈদ আসে আবার চলেও যায়। ঈদ কখন চলে যায় বুঝতেই পারি না। পুলিশের কোনো ঈদ নাই ভাই। এস আই মামুন আলীর অভিজ্ঞতা একটু ভিন্নরকম। ঈদের দিন কি করবেন এমন প্রশ্নে তাদের অভিমানটা রূপ নেয় ক্ষোভে। একজন বললেন, সেদিনতো আরও বেশি ব্যস্ততা। রুটিন দায়িত্বের পাশাপাশি ভিআইপিরা যেখানে নামাজ পরবেন সেখানে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করতে হয়।
উল্লেখ্য, ঈদ উপলক্ষে শুধু ঢাকা শহরের নিরাপত্তায় অতিরিক্ত ১০ হাজার পুলিশ মাঠে থাকবে। শুধু পুলিশই নয়, সেবা ও জরুরি কাজে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরিবার পরিজনের সাথে ঈদ আনন্দ করার সুযোগ নেই। পরিবর্তে খুশির এই দিনে পালন করতে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব।
রাজধানীর ফুলবাড়িয়ার ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদর দপ্তরের এক ফায়ার ফাইটার বলেন  পরিবার-পরিজনের সঙ্গে ঈদ করতে না পারায় খারাপতো লাগবেই, কিন্তু চাকরিতো রক্ষা করতে হবে।
মতিঝিল থানার ওসি ফারুক আহমেদ বলেন, একটু খারপাতো লাগেই তবে এসময় ঢাকা ফাঁকা হয়ে যাওয়ায় দুর্ঘটনার সম্ভাবনা বেশি থাকে, তাই দায়িত্ব পালন করতেই হয়।
সিটাগাংরোড-কাচপুরে দায়িত্বপালনরত সোনারগাও থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, ঈদ উপলক্ষে গত কয়েকদিন ধরে যানজট নিরসনে দিন রাত কাজ করছি। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। মানুষের জানমালের নিরাপত্তায় আজকে বৃষ্টিত টহল দিচ্ছি। রাস্তা একেবারেই ফাকা। সব মিলিয়ে ভালোই লাগছে।