demo
Times24.net
জঙ্গিদের পক্ষে আইনজীবীদের লড়াই না করার অনুরোধ র‍্যাবের ডিজি'র
Sunday, 02 Jun 2019 17:28 pm
Times24.net

Times24.net


শামীম চৌধুরী, টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা : র‍্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেছেন, হলি আর্টিজান হামলার ঘটনার পর আটক ৫১২ জন জঙ্গির মধ্যে আদালত থেকে জামিনে ৩০০ জঙ্গি বের হয়েছেন। জঙ্গিদের পক্ষে আইনজীবীদের লড়াই না করার অনুরোধ করছি। বৈশ্বিক, আঞ্চলিক ও জাতীয় পর্যায়ে জঙ্গি হামলার ঝুঁকি রয়েছে বলে জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের নিজস্ব ইন্টেলিজেন্স ও অন্যান্য ইন্টেলিজেন্স এজেন্সির সঙ্গে সমন্বয় করে আমরা নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। যেকোনও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি। আজ রোববার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর কাওরান বাজারে র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে ঈদ নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব তথ্য জানান। র‍্যাবের ডিজি বলেন, হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার পর থেকে এ পর্যন্ত ৫১২ জন জঙ্গিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে আদালত থেকে এখন পর্যন্ত ৩০০ জঙ্গি জামিনে বের হয়েছে এবং তাদের অধিকাংশই এখন পলাতক।
তবে দেশবাসীকে আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘জামিনে পলাতক থাকা জঙ্গিরা আবারও সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা করছে। তবে তারা বেশিদিন এ তৎপরতা চালাতে পারবে না।’ জঙ্গিদের পক্ষে আইনজীবীদের লড়াই না করার অনুরোধ জানিয়ে বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘চুরি-ডাকাতি, ছিনতাই, খুন, ধর্ষণসহ ৮-১০টির অপরাধের সঙ্গে জঙ্গি আসামিকে এক করলে হবে না।
যারা জঙ্গিদের জামিনের জন্য লড়ছেন, তারাও হামলার শিকার হতে পারেন বলে জানিয়ে র‍্যাবের ডিজি বলেন, টাকা পেয়েই জঙ্গি আসামির পক্ষে জামিনের জন্য লড়া ঠিক নয়। আইনজীবীদের ওপরও জঙ্গিরা হামলা চালিয়েছিল।
অন্যান্য অপরাধের মতো জঙ্গিবাদকে বিবেচনা করে আইনি সহায়তা দিলে বিষয়টি হবে আত্মঘাতী বলে মন্তব্য করে র‍্যাব ডিজি আরও বলেন, ‘আপনারা যাদের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করে জামিনের ব্যবস্থা করেছেন তাদের আবার কোর্টে হাজির করেন, সমস্যা নেই।’
ঈদকে কেন্দ্র করে সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থার বিষয়ে র‍্যাব ডিজি বলেন, ‘রমজানের শুরু থেকেই দেশের গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চলগুলোতে আমরা নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করেছি। ঈদ উপলক্ষে শান্তিপূর্ণভাবে যাতে সবাই বাড়ি যেতে এবং পরবর্তীতে ফিরতে পারেন সেজন্য র‍্যাবের নিরাপত্তা জোরদার রয়েছে। তিনি বলেন, রাজধানীর বাস-ট্রেন ও লঞ্চ টার্মিনালে র‍্যাবের ১৫টি অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। দুর্ঘটনাপ্রবণ এলাকা হিসেবে দেশজুড়ে ৪২টি স্থান চিহ্নিত করা হয়েছে সেসব স্থানে র‍্যাবের নজরদারি রয়েছে।
তবে এবার সড়ক এবং নৌপথে ঈদযাত্রা স্বাভাবিক রয়েছে, রেলপথে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে বলে জানিয়ে র‍্যাব প্রধান বলেন, ২৪ ঘণ্টা সড়ক, নৌ ও রেলপথে র‍্যাবের নজরদারি রয়েছে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, ঈদে বাড়িতে যাত্রা এখনও স্বস্তিদায়ক রয়েছে, আশা করছি ফেরার যাত্রাও স্বস্তিদায়ক হবে।
ঈদে ফাঁকা শহরগুলোতে যে কোনও অপরাধ ঠেকাতে র‍্যাবের আলাদা পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়ে র‍্যাবের ডিজি বলেন, নিরাপত্তা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে ঈদ উদযাপন নিরাপদ করতে পূর্ণ প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। জাতীয় ঈদগাহসহ রাজধানীতে পাঁচ শতাধিক ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়ে এগুলোতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে বলে আশ্বস্ত করেছেন র‍্যাবের মহাপরিচালক। এছাড়াও ঢাকার বাইরে শোলাকিয়া, দিনাজপুরসহ বিভিন্ন স্থানে বড় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় বলে জানিয়ে তিনি বলেন, সে সব ঈদ জামাতেও পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হবে।