demo
Times24.net
নিষিদ্ধ ৫২টি পণ্য : রবিবার থেকে বিএসটিআই এর অভিযান
Thursday, 16 May 2019 11:31 am
Times24.net

Times24.net


এস.এম.নাহিদ, টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা : হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী আগামী বৃহস্পতিবার তীর, রুপচাঁদা, পুষ্টি, এসিআই ও প্রান সহ অন্যান্য কয়েকটি কোম্পানীর নিম্নমানের ৫২টি পণ্য বাজার থেকে তুলে নেওয়া দিন শেষ হচ্ছে। যদি কোম্পানীগুলো এসব পণ্য তুলে না নেয় তাহলে আগামী রোববার থেকে এসব পণ্য অপসারণে মাঠে নামবে বিএসটিআইয়ের বিশেষ টিম। বিএসটিআইয়ের ডেপুটি ডিরেক্টর মো. রিয়াজুল হক বলেন, মঙ্গলবার থেকেই নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ এবং জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক টিম এসব পণ্য অপসারণে কাজ করছে। তবে আমরা আগামী রোববার থেকে এসব পণ্য অপসারণে অভিযান পরিচালনা করবো। এর আগে যদি মালিকপক্ষ নিজ থেকেই তাদের পণ্য বাজার থেকে উঠিয়ে নেয় তাহলে তো কিছু বলার নেই। তবে তা না হলে বিশেষ অভিযান অব্যাহত থাকবে।
হাইকোর্টের আদেশের একদিন পরই কোনো কোনো প্রতিষ্ঠান বাজার থেকে তাদের পণ্য উঠিয়ে নেওয়া শুরু করেছে। বিএসটিআইয়ের মানে উত্তীর্ণ না হওয়া এবং হাইকোর্টের নির্দেশনা আসার পর দুএকটি প্রতিষ্ঠান বাজার থেকে তাদের পণ্য উঠিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।
প্রসঙ্গত গত ১২ মে নিম্নমানের ৫২টি পণ্য বাজার থেকে তুলে এনে ধ্বংসের নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। সেইসঙ্গে এসব পণ্যের উৎপাদন বন্ধেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরকে এই আদেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্স অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) পরীক্ষায় নিম্নমান প্রমাণিত হওয়ায় ওই ৫২টি পণ্য সম্পর্কে এ নির্দেশনা দেয় হাইকোর্ট। পণ্যগুলো হলো সিটি অয়েলের সরিষার তেল, গ্রিন বি-চিংয়ের সরিষার তেল, শবনমের সরিষার তেল, প্রাণের হলুদগুঁড়া, কাশেম ফুুডের চিপস, আরা ফুডের ড্রিংকিং ওয়াটার, আল সাফির ড্রিংকিং ওয়াটার, মিজান ড্রিংকিং ওয়াটার, মর্নিং ডিউয়ের ড্রিংকিং ওয়াটার, ডানকান ন্যাচারাল মিনারেল ওয়াটার, আরার ডিউ ড্রিংকিং ওয়াটার, দিঘী ড্রিংকিং ওয়াটার, প্রাণের লাচ্ছা সেমাই, ডুডলি নুডলস্, শান্ত ফুডের সফট ড্রিংক পাউডার, জাহাঙ্গীর ফুড সফট ড্রিংক পাউডার, ফ্রেশের হলুদগুঁড়া, এসিআইএর ধনিয়াগুঁড়া, প্রাণের কারি পাউডার, ড্যানিশের কারি পাউডার, বনলতার ঘি, পিওর হাটহাজারী মরিচগুঁড়া, মিষ্টিমেলা লাচ্ছা সেমাই, মধুবনের লাচ্ছা সেমাই, মিঠাইর লাচ্ছা সেমাই, অয়েল ফুডের লাচ্ছা সেমাই, এসিআইর আয়োডিনযুক্ত লবন, মোল্লা সল্টের আয়োডিনযুক্ত লবন, কিংয়ের ময়দা, রূপসার দই, মক্কার চানাচুর, মেহেদীর বিস্কুট, মঞ্জিলের হলুদগুঁড়া, মধুমতির আয়োডিনযুক্ত লবণ, সান ফুডের হলুদগুঁড়া, গ্রীন লেনের মধু, কিরণের লাচ্ছা সেমাই, ডলফিনের মরিচগুঁড়া, ডলফিনের হলুদগুঁড়া, সূর্যের মরিচগুঁড়া, জেদ্দার লাচ্ছা সেমাই, অমৃতের লাচ্ছা সেমাই, দাদা সুপারের আয়োডিনযুক্ত লবণ, মদীনার আয়োডিনযুক্ত লবণ, নূরের আয়োডিনযুক্ত লবণ, ড্যানিশের হলুদগুঁড়া, বাঘাবাড়ীর স্পেশাল ঘি, বাংলাদেশ এডিবর অয়েলের সরিষার তেল ও নিশিতা ফুডসের সুজি।