রবিবার, ১২ আগস্ট ২০১৮
Saturday, 09 Jun, 2018 11:07:21 am
No icon No icon No icon

মোদিকে খুনের ষড়যন্ত্র


মোদিকে খুনের ষড়যন্ত্র


 টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: ১৯৯১ সালের ২১ মে ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যে বোমা বিস্ফোরণে নিহত হন ভারতের সপ্তম প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী। ঠিক রাজীব গান্ধীর মতো করেই এবার ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে খুনের ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল বলে দাবি পুনে পুলিশের। সেখানকার আদালতে দাখিল করা এক প্রতিবেদনে পুনে পুলিশ জানিয়েছে, মাওবাদী সন্দেহে আটককৃত এক ব্যক্তির কাছ থেকে পাওয়া চিঠিতে এমন ষড়যন্ত্রের আভাস পাওয়া গেছে।ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা যায়, গত বছরের ডিসেম্বর ভিমা কোরেগাঁওয়ের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সুরেন্দ্র গাড়লিং, সুধীর ধাওয়াল, মহেশ রাউত, সোমা সেন এবং রোনা উইনসন নামে পাঁচ মাওবাদীকে আটক করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার ওই পাঁচজনকে পুনে আদালতে তোলা হয়।
দায়রা আদালতের কাছে পুলিশ জানিয়েছে, পাঁচজনই জানুয়ারিতে ভিমা-কোরেগাঁও দলিত বিক্ষোভে যুক্ত ছিলেন। রোনা উইলসন রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি সংক্রান্ত একটি কমিটির সদস্য। মোদিকে হত্যার ষড়যন্ত্রের চিঠিটি পাওয়া গিয়েছে তারই দিল্লির বাড়ি থেকে।
সরকারি আইনজীবী উজ্জ্বলা পাওয়ার আদালতে জানান, চিঠিটিতে লেখা রয়েছে, এম-৪ রাইফেল ও চার লাখ গুলি জোগাড় করতে ৮ কোটি টাকার প্রয়োজন। রাজীব  হত্যাকাণ্ডের মতো আর একটি হত্যা করতে হবে, সে কথার উল্লেখ রয়েছে চিঠিতে। 
চিঠির একটি অংশে লেখা হয়েছে, ‘বিহার ও পশ্চিমবঙ্গে হার হলেও ১৫টিরও বেশি রাজ্য বিজেপির দখলে। এই গতিতে যদি চলতে থাকে, দলের সব শাখাকেই প্রবল সমস্যায় পড়তে হবে। মোদি যুগ শেষ করতে কয়েক জন প্রবীণ নেতা এই প্রস্তাব এনেছেন।’
অবশ্য অভিযুক্তদের আইনজীবীর দাবি, ওই চিঠিটি ভুয়া। আটককৃত ওই পাঁচ ব্যক্তিকে ফাঁসানো হচ্ছে। একই সুর গুজরাটের বিধায়ক জিগ্নেশ মেবানীর কণ্ঠেও। ভিমা-কোরেগাঁও সংঘর্ষে মূল অভিযুক্ত দুই হিন্দুত্ববাদী নেতা মিলিন্দ একবোটে ও সম্বাজি ভিড়ে এখনো ধরা পড়েননি বলে খোঁচাও দিয়েছেন তিনি।
বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর মুখ খুলেছেন ভারতের মূলধারার রাজনৈতিক দলের নেতারা। এ নিয়ে দলিত নেতা ও মোদির মন্ত্রী রামদাস আটওয়ালের ভাষ্য, ‘অম্বেডকরের অনুগামীরা মাওবাদী হতে পারেন না। ভিমা-কোরেগাঁও দলিত বিক্ষোভে কোনো মাওবাদী যুক্ত ছিল না। তবে দেশ বিরোধীরাই মোদীকে হত্যার চক্রান্ত করতে পারে।’
কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা বলেন, ‘মোদীর মন্ত্রী নাকি তদন্তকারীরা ঠিক কথা বলছেন, তা বোঝা যাচ্ছে না।’ কংগ্রেসের আরেক নেতা সঞ্জয় নিরুপমের দাবি, ‘যখনই মোদীর জনপ্রিয়তা কমে যায়, তখনই হত্যার ছকের কথা বলা হয়। চিঠিকে মিথ্যে বলছি না। তবে এই বিষয়টাও দেখা দরকার।’
হত্যার ষড়যন্ত্রের এই চিঠির কথা প্রকাশ পেতেই অরুণ জেটলি ব্লগে লিখেছেন, ‘মাওবাদী কার্যকলাপ বাড়ছে। সব দলেরই উচিত বিষয়টাকে গুরুত্ব দিয়ে দেখা।’ নামেন রামদেব, শ্রী শ্রী রবিশঙ্করও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে উচ্চ স্তরের তদন্তের দাবি জানান।
শুধু মোদিকেই হত্যার ষড়যন্ত্র নয়। মহারাষ্টের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী ফডণবাসীকেও দুটি হুমকি ভরা চিঠি পাঠিয়েছে মাওবাদীরা। মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র দফতর থেকে জানানো হয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফডণবীসকে হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠিয়েছে মাওবাদীরা।
গত সপ্তাহে চিঠি দু’টি পৌঁছায় মুখ্যমন্ত্রীর অফিসে। এক পুলিশ কর্মকর্তার ভাষ্য, ‘সম্প্রতি গড়ছিরৌলিতে অভিযান চালানোয় ৩৯ জন মাওবাদী নিহত হয়। তার পরেই ওই চিঠি।’ ফডণবীস জানান, ওই চিঠি থেকে আরও বেশ কিছু তথ্য মিলেছে।

সূত্র: প্রিয় সংবাদ।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK