রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯
Monday, 06 May, 2019 08:41:45 pm
No icon No icon No icon

ইসলামের মৌলিক শিক্ষা আর বর্তমান মুসলিম সমাজ

//

ইসলামের মৌলিক শিক্ষা আর বর্তমান মুসলিম সমাজ


আশিফুল ইসলাম জিন্নাহ: দ্বীন ইসলাম ও তার অনুসারী মুসলমানদের নবী ও রাসূল হযরত মুহাম্মাদ(সাঃ) বলেছেন, ইসলামের পাঁচটি ফরজ(আবশ্যক পালনীয় বিধান)-তাওহীদ/কালেমা, সালাত/নামাজ, সাওম/রোজা, যাকাত, হজ্জ্ব সকল শারীরিক, মানসিক ও আর্থিকভাবে প্রাপ্ত বয়স্ক, সুস্থ্য ও সামর্থ্যবান প্রত্যেক মুসলিম পুরুষ ও নারীকে পালন করতে হবে। আল্লাহর সাথে কাওকে শিরক/অংশীদার না করতে। নামাজ বেহেশতের চাবি। স্বচ্ছল, ধনীদের প্রতি আল্লাহ সন্তুষ্টির জন্য তার নামে পশু কোরবানী দেয়ার, হজ্জ্ব করার এবং যাকাত দিতে। মা-বাবার পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত। তাদের কথা মেনে চলার, তাদের সাথে সদা ভাল, নমনীয় ব্যবহার, সেবা, যত্ন করতে। তাদের সাথে উচ্চস্বরে, কঠোরভাবে কথা না বলতে, তাদের মনে দুঃখ-কষ্ট না দিতে। সৎ পথে এবং পরিশ্রম করে কাজ, ব্যবসা, চাকুরী করে আয় করতে এবং জীবন, পরিবারকে চালাতে। অসহায়, এতিম, অন্যের ধন-সম্পদ আত্নসাৎ/লুন্ঠন, কারো কাছে অন্যের নামে গীবত/পরচর্চা, নিন্দা-সমালোচনা, মদ পান/মাদক সেবন, ভিক্ষাবৃত্তি, ধর্ষন, জেনা/নর-নারীর অবৈধ যৌণ সম্পর্ক, সমকামীতা, মানুষ হত্যাকে হারাম/নিষিদ্ধ ঘোষনা করেছেন। ধর্ম নিয়ে অযথা বাড়াবাড়ি এবং ফেতনা-ফ্যাসাদ সৃষ্টি করতে নিষেধ ও সতর্ক করেছেন। ইসলাম এবং মুসলমানদের প্রকাশ্য শত্রু কাফের(অমুসলিম রাজনৈতিক ও সামরিক শক্তি) এবং গোপন শত্রু মুনাফেক(মুসলিম নামধারী ভন্ড মুসলমানদের ফেতনা-ফ্যাসাদ, বিরোধ, সংঘাত সৃষ্টির ব্যাপার, কাফের/ভিন্নধর্মীদের সাথে আতাত/ষড়যন্ত্রকারী) থেকে সদা সাবধান থাকতে বলেছেন। মুসলমান ব্যক্তি, সম্প্রদায়, সমাজ, রাষ্ট্র, বিশ্বের যেকোন সমস্যাকে কুরআন, সুন্নাহ/হাদিস, ইজমা এবং কিয়াসের ভিত্তিতে ফয়সালা(সমাধান করা বা সমাধানের পথ বের)করতে হবে।

এখন অধিকাংশ মুসলমানই ঠিক মত ইসলামের মূল পঞ্চ স্তম্ভ তথা পাঁচটি ফরজ এবং গুরুত্বপূর্ণ সুন্নাহগুলো ঠিকমত আদায় এবং জীবনে অনুসরণ করছে না। করছে সব উল্টা ইসলামী মূল্যবোধ বিরোধী কাজ কারবার। অনেকেই এখন নিজের বৃদ্ধ মা-বাবাকে নিয়ে এক ঘরে বসবাস করতে চায় না। তাদের যথাযথ সম্মান, শ্রদ্ধা, সেবা, যত্ন, শুশ্রুষা করছে না। স্বামী-স্ত্রী পরস্পরকে সম্মান দিচ্ছে না এবং বিশ্বাস করছে না। অভিভাবকরা সন্তানদের সুশিক্ষায় সুশিক্ষিত করার ও সুনাগরিক বানাবার দীক্ষা দিচ্ছে না এবং সমাজে ধার্মিক, সুশিক্ষিত সুনাগরিক সমাজ গড়ে উঠছে না। স্বধর্মী ও ভিন্নধর্মী অসহায়, দুর্বল এতিম, নারী, শিশু, বৃদ্ধ-বৃদ্ধা, বিপদগ্রস্ত মানুষকে সহানুভূতি দেখানো, সহায়তা করার, আশ্রয়ের ব্যবস্থা করে দেয়ার পরিবর্তে তাদের নানাভাবে অপমান, বঞ্চিত, অত্যাচার, শোষন করছে এবং তাদের সহায়-ধন-সম্পদ লুন্ঠন করছে/করার অপচেষ্টা করছে। অনেকেই অবাধে নানাভাবে অবৈধ পথে ঘুষ খাচ্ছে, দুর্নীতি, অপরাধ, সন্ত্রাস করছে। খাবার-পন্য-মালে পরিমানে কম দিচ্ছে, ভেজাল মিলাচ্ছে। এসবের মাধ্যমে টাকা কামাচ্ছে, বিত্ত-সম্পদ করছে। এরা অন্যায়ভাবে, অবৈধ পথে উপার্জিত টাকা, বিত্ত, সম্পদ, ক্ষমতা, আভিজাত্য দিয়ে লোক দেখানো বিলাসিতা, হজ্জ্ব করছে, দামী ও বড় পশু কিনে কোরবানী দিচ্ছে, মানুষকে লাইন ধরিয়ে যাকাত দিচ্ছে, মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানা, স্কুল নির্মাণ করছে, সেগুলো চালাচ্ছে বা অনুদান দিচ্ছে। সমাজ ও রাষ্ট্রকে নিয়ন্ত্রণ, শোষন, লুন্ঠন করছে।

অনেকে এখন সমাজে লোককে দেখানো ও বুঝানোর জন্য নামাজ পড়ছে, রোজা রাখছে, যাকাত দিচ্ছে, কোরবানী দিচ্ছে, দান/অনুদান করছে। ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠান থেকে ধার করে সেই টাকা দিয়ে পশু কিনে কোরবানী দিচ্ছে। হজ্জ্ব করছে। একশ্রেণির বক ধার্মিক আলেম, ওলামা, পীর, বক্তা এবং ব্যক্তি বাহ্যিকভাবে দেখানো ও বোঝানোর জন্য সাধারণ মানুষের সামনে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাল মানুষ, ধার্মিক, সাধু সাজার ভান ও ভন্ডামীর প্রতিযোগীতা করছে। ধর্ম, নিজের পদ, ক্ষমতা, বিত্ত, প্রতিপত্তিকে হাতিয়ার করে ও পণ্য বানিয়ে ক্ষমতার রাজনীতি ও ধর্ম ব্যবসা করছে। সাধারণ আলেম সমাজ ও মুসলমানদের মধ্যে অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে নানাবিধ ফেতনা-ফ্যাসাদ, বিরোধ, বিদ্বেষ, মারামারি, সংঘাত সৃষ্টি করছে। ধর্মান্ধতা, কুসংস্কার, ধর্মীয় উত্তেজনা, সাম্প্রদায়িকতা, জঙ্গীবাদ সৃষ্টি করছে। সন্ত্রাস করছে, নরহত্যা করছে এবং রক্তপাত ঘটাচ্ছে। অথচ এসবই ইসলামের চরম পরিপন্থী চিন্তা, কাজ। যার নূন্যতম মূল্য আল্লাহর কাছে নেই। তাই ভাল, সৎ, পরোপকারী আখলাক এবং পরহেজগারী মুত্তাকী অর্জন করে মুমিন হবার এবং আল্লাহ-রাসূল(সাঃ)-এর সন্তুষ্টি অর্জন করার চেষ্টা আমাদের করতে হবে। মুমিন হয়েই কবরে যাবার প্রস্তুতি গ্রহন করার, মারা যাবার পর কবরের আজাব থেকে রেহাই পাবার এবং বেহেশতবাসী হবার যোগ্যতা অর্জনের উপর আমাদের সর্বাধিক গুরুত্ব দিতে হবে। এই পবিত্র রমজান মাসে নামাজ কায়েম করার, রোজা রাখার এবং যাকাত দেয়ার তওফিক মহান আল্লাহ আমাদের সবাইকে দিন। আমিন। ভাল লাগলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ার করুন। [email protected]

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK