রবিবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৮
Friday, 11 May, 2018 01:27:18 am
No icon No icon No icon

মেস সংঘ ও ১৩ দফা


মেস সংঘ ও ১৩ দফা


আয়াতুল্লাহ আকতার: মেস ইংরেজি শব্দ। যার আভিধানিক অর্থ বিশৃঙ্খলা বা অনেক মানুষের এক সাথে বসবাস বা খাওয়া- দাওয়া। স্থান-কাল ও পাত্র ভেধে মেস বিভিন্ন নামে পরিচিতি। যেমন: মহিলা হোস্টেল, ছাত্রী নিবাস, ছাত্রাবাস, ডরমেটরি, অফিসার মেস ইত্যাদি। শহরে ব্যাচেলর বা স্বল্প আয়ের মানুষগুলোর বৃহত্তর জনগোষ্ঠী মেস হিসেবে বাসা বা ফ্লাট ভাড়া প্রাপ্তির ক্ষেত্রে বৈষম্যের শিকার হন। যা মানসিক নির্যাতনের এক চরম বহি:প্রকাশ। এ কারণে অনেকেই মেসে বসবাস করা সত্তে¡ও তা স্বীকার করতে লজ্জা পান বা কুণ্ঠা বোধ করেন। মেসের শিক্ষার্থী বিসিএস, এমবিবিএস ও অন্যান্য উত্তীর্ণ পাত্রের সন্ধানে ভাড়া দিতে অনিহাপূর্ণ পরিবারের মা- মেয়েকে প্রায় বস্ত্রহীন বদনে বেসামাল ব্যস্তও দেখা যায়। রাষ্ট্রের অর্থনৈতিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাবেক মেস সদস্যরা উল্লেখ্যযোগ্য নেতৃত্বে রয়েছে। তাই মেসের সদস্যদের সমাজের সবচেয়ে নীচুস্তরের ‘অ¯পৃশ্য’ অপবিত্র বিবেচনার বৈষম্য বিলোপ একান্ত অপরিহার্য।
মেস বিষয়ে অনুসন্ধান ও পর্যালোচনায় দেখা যায়, গ্রাম-গঞ্জের তৃণমূল পর্যায় থেকে উঠে আসা ও সৃষ্টি হওয়া জ্ঞানী-গুনি, ব্যবসায়ী, চাকরিজীবী, পেশাজীবীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের জীবনে মেসে বসবাস অত্যাবশ্যকীয়। পাশাপাশি লজিং- টিউশনির সাথে খণ্ডকালিন চাকরিও অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত।  
বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ১৯৯২ সালের দিকেও রাজধানী ঢাকায় বসবাসরত মেস সদস্যদের মান ও অবস্থান ছিল সর্বনিম্ন পর্যায়ের অবজ্ঞা ও তাচ্ছিল্যের। যাকে বলা যায়, বাজারের হাঁস মুরগির মতো মেস মেম্বারদের এক শ্রেণির মানুষ মূল্যায়িত করে অনিহাপূর্ণ অভিব্যক্তি ব্যক্ত করতো। এ অবস্থার অবসানে ১৯৯৪ সালে সামাজিক সংগঠন বাংলাদেশ মেস সংঘ (বিএমও) প্রতিষ্ঠিত। তার পরবর্তী বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ড ও রাজপথের আন্দোলনে মাধ্যমে সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের নানা ধরনের বিরূপ মন্তব্যের মুখোমুখি হতে হয়েছে। জাতির ভবিষ্যৎ কর্ণধার ঢাকার শিক্ষার্থী ও স্বল্প আয়ের মানুষের সাথে বাড়ি মালিক বা প্রতিষ্ঠানকে মেস ভাড়া দিতে উৎসাহিত করতে বিএমও’র কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। এই দীর্ঘ ২৫ বছরের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডে অভিজ্ঞতার আলোকে এখন শহরে বসবাসরত যে কোনো পুরুষ মানুষের সাথে আমরা দু’চার মিনিট কথোপকথোনের উপলব্ধিতে নেয়া যায়- কে মেসে আছে বা ছিলেন। অথবা কার বাবা বা দাদা মেসে থেকে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন। এক কথায় বলতে গেলে “কম্বলের লোম বাছাই করলে- কম্বলে আর কম্বল থাকে না”। যে কোনো মানুষের মেসে থাকা বা তাদের পূর্ব পূরুষের বসবাসের শিকড় পাওয়া যাবে। যাকে বলে পুরোন স্মৃতি ধারণ করার নিদর্শন মেস। 
বাংলাদেশ মেস সংঘ (বিএমও) মূল লক্ষ্য স্বল্পমূল্যে মেস বা বাসা ভাড়া দিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে উদ্বুদ্ধকরণ ও নিরাপদে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস নিশ্চিত করণ। পাশাপাশি বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর স্বার্থে কথোপকথন। বর্তমান অবস্থার প্রেক্ষাপটে বিএমও ১৩ দফা দাবি নিয়ে সামাজিক আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। 
দাবিরগুলোর মধ্যে রয়েছে:
১. প্রতি বাড়ি /ফ্ল্যাট বাড়িতে মেসের জন্য স্থান বরাদ্দ, ২. প্রতিটি মেসে পুলিশের পরিদর্শন ও সদস্যদের পরিচয় নিশ্চিত করে শান্তিপূর্ণ বসবাস নিশ্চিতকরণ, ৩. মেস ভাড়া স্বাভাবিক করণে বাড়ির মালিকদের উদ্বুদ্ধ করণ, ৪. সিটি করপোরেশন কর্তৃক মেস সেবা প্রদান, ৫. সরকারি চাকরিতে মেস সদস্যদের কষ্টের মূল্যায়নের নিরীক্ষে কোটা বরাদ্দ অন্যথায় কোটা পদ্ধতি সংস্কার করা ৬. প্রাথমিক পর্যায়ে (বিএ বা সমমানের উত্তীর্ণদের) বেকার ভাতা প্রদান, ৭. মেস ভাড়ার নীতিমালাকরণ / ঘটি-বাটি ও বদনা নিয়ে তর্কসৃষ্টিকারী সদস্যদের চি্িহৃত করা, ৮. পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিতকরণে প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট চালু, ৯. মেস কেন্দ্রীক ছিচকে চুরি থেকে শুরু করে সব ধরনের অপরাধ রোধ করা, ১০. মেস মেম্বারদের অনৈতিক কর্মকাণ্ড থাকলে বন্ধের পাশাপাশি সৌজন্যমূলক আচরণ করে নির্দয় বাক্য ব্যক্ত রোধ করা, ১১. বাড়ির মালিকদের মেস সদস্যের অভিভাবকের ভূমিকা পালনে উদ্বুদ্ধকরণ, ১২. রাজধানীর তথা প্রতি বিভাগীয় শহরের উপকণ্ঠে পরিকল্পিত মেস নগরী করা, ১৩. সেবামূলক প্রতিষ্ঠান সিটি করপোরেশনের অর্থায়নে পূর্ণবয়স্ক মেস সদস্যের বিয়ের ব্যবস্থা করা। 
প্রসঙ্গত : অতীত ও বর্তমানে মেস বসবাসরত মানুষের মূল্যায়ন নির্ধারণের ন্যূনতম উদাহরণ হিসেবে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা মো. আকতারুজ্জামান ওরফে আয়াতুল্লাহ ২০১৫ সালে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করেন। তারই প্রেক্ষাপটে সবার ভালবাসায় আমরা অভিসিক্ত। 

লেখক:আয়াতুল্লাহ আকতার, সিনিয়র রিপোর্টার, দৈনিক ভোরের ডাক।
সৌজন্যে: প্রচার বিভাগ বিএমও। 

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK