মঙ্গলবার, ১০ জুলাই ২০১৮
Friday, 05 Jan, 2018 08:53:16 pm
No icon No icon No icon

উপলব্দজাত


উপলব্দজাত


সংহিতা দেব: আজি প্রভাতকালে অনুভূতির এক নতুন দিক উন্মোচিত হইল।রাত্রির গভীরতা ক্ষীণ হইয়া আসিতেছে, ইত্যাবসরে নিদ্রাজড় অবস্থা হইতে আপনাকে মুক্ত করিয়াছি। সূর্যপথ আলোকিত হইয়াছে,যদ্যপি সূর্যদেবের আগমন ঘটে নাই।এত প্রত্যুষে শয্যা ত্যাগ করিয়াছি গতদিনের বৃষ্টিসিক্ত শরীরের যন্ত্রণা মাত্রা ছাড়াইতেছে বলিয়া। প্রভাতকালে পক্ষীকুলের কাকলি মনকে সংগীতময় করিয়া তুলিল। শয্যা ত্যাগ করিবামাত্র ছাদ অভিমুখে গমন করিলাম। দূর হইতে আজানের ধ্বনির রেশ ভাসিয়ে আসিতেছে।মোহময় এই ভোরের রূপে মুগ্ধ এ' নগন্য প্রাণ আজ আর হাতরাইয়া ফিরে নাই কোন প্রেমিকপ্রবরকে। প্রতিদিন কর্মক্লান্তমন, হাজারো সম্পর্ক তাড়িত বিধ্বস্ত প্রাণ আত্মাছোঁয়া প্রেমিক খুঁজিয়া মরিয়াছে দিনশেষে, এতকাল। আজ অনুভূতি এই কথাই শিখাইল যে প্রেমময় পৃথিবীতে প্রেমাসক্ত ইন্দ্রিয়, প্রেমাতুর মন কেবলমাত্র সামান্য পুরুষস্পর্শে আত্মিক চাহিদাপূরণ করিতে পারে না কখনই। বৃথাই আমরা প্রেমতাড়িত হইয়া নিজ আত্মতুষ্টিহেতু পরিচিত মানুষ্যটিকে প্রেমাষ্পদ ভাবিয়া ফেলি,আর ক্রমাগতই তাকে বাঁধতে থাকি আত্মতৃপ্তি পূরণের বেড়াজালে।

প্রেমিকপুরুষ শ্বাসরোধ করিতে থাকে,আশ্রয় খুঁজিতে থাকে অপরনারীতে,ভিন্ন আসক্তিতে।
আমরা প্রত্যেকেই আশ্রিত সেই অনন্তের ছায়াতলে যাকে কেহ দেবতা বলে, কেহ পুরুষ, কেহ বা প্রকৃতি। প্রেম খুঁজিয়া ফিরিতে গেলে কেবলই হতাশা মিলে,কারণ প্রেম আপন অন্তরে বহমান এক ফল্গুধারা কেবল, অন্য অন্তর উদ্ভাসিত শক্তি নহে। তার অতিমাত্র ক্ষরণে অত্যধিক আনন্দ বা অতি হতাসার উৎস। আমরা আবেগতাড়িত হইয়া অপরের মনের খোঁজটুকু লইতে প্রয়োজনবোধ করিনা,বরং তাহাকে মননে দেবতা জ্ঞানে পুজা করি।আবার সেই পুরুষ একই রূপে পূজন করেন অপর কোন দেবীর।এই রূপে প্রেমের ভ্রান্ততা আর প্রেমাষ্পদের অন্বেষণ মধুর প্রেমকে বিষাদময় করিয়া তোলে,আর প্রেমিকপুরুষ হয়ে ওঠে বিশ্বাসঘাতী। অবশেষে প্রেমপিপাসু মানুষ্যজাতি প্রেমবিদ্বেষী, প্রেমহন্তা হইয়া ওঠেন।

তবে আমি এইটুকুই বুঝিয়াছি, ইহজাগতিক প্রেম অন্তর মধ্যে দানা বাঁধে নিজ কল্পনায় নয়,অপরের প্রযত্নে। প্রেমিক খুঁজিলে প্রেমিক মেলে না, "প্রেম" আসলে সমুদ্রস্রোতে ভাসিয়া আসা সেই ঝিনুকের ন্যায়। বারংবার হাজারো ঝিনুকটুকরা ভাসিয়া আসে, সমুদ্রতটে ছড়াইয়া পরে। কিন্তু বিরল সেই ঝিনুক যাহার ভিতর প্রাণ সঞ্চারিত থাকে। প্রেমিক পুরুষটি তেমনই। কেহ বলিতে পারেনা, জীবনে কখন কোন ঢেউতে সে বহিয়া আসিবে আর মুক্তা হইয়া অন্তরে ধারণ করিবে।মুক্ত (মুক্তা) সে-ই যাহা চির আবদ্ধ, যা কেবল আপন অন্তরে সংগোপনে আদৃত। প্রেমিকও সেই জনই যাকে যতনে গাঁথিয়া রাখা হয় অন্তরের গহীনতলে অপ্রকাশে, যাহাকে আঁকড়াইয়া, কাড়িয়া লইতে হয় না, সে অবলীলায় বিরাজ করে।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK