বুধবার, ১০ জুলাই ২০১৯
Sunday, 16 Jun, 2019 08:01:03 pm
No icon No icon No icon

নগরজুড়ে আত্মপ্রচারে আ’লীগ

//

নগরজুড়ে আত্মপ্রচারে আ’লীগ


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা : এক কোনায় প্রতিষ্ঠানের মনোগ্রামের মতো ছোট একটি বৃত্তের মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি আর বাকি প্রায় পুরো অংশে আওয়ামী লীগ বা এর সহযোগী সংগঠনের নেতার ছবি-এমন অসংখ্য ব্যানার, ফেস্টুন ও তোরণে ছেয়ে গেছে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা। গতকাল ডেমরা-যাত্রাবাড়ি, কদমতলী, শ্যামপুর, গেণ্ডরীয়া, সুত্রাপুর-ওয়ারী, প্রেসক্লাব, পল্টন, গুলিস্তান, কাকরাইল, শাহবাগ, বাংলামোটর, ফার্মগেট, আগারগাঁও,  মিরপুর, মালিবাগ, রামপুরা, বাড্ডা, বনানী, মহাখালী, নতুনবাজারসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, ঈদ ও বিভিন্ন দিবস ভিত্তিক আত্মপ্রচারের প্রতিযোগিতায় নেমেছেন আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের অসংখ্য নেতা। এসব প্রচারনায় বেশি গুরুত্ব পেয়েছে যাঁদের সৌজন্যে এসব টানানো হয়েছে সেই নেতাদের ছবি। 
জানা গেছে, সরকারি দল আওয়ামী লীগের টানা তৃতীয়বার সরকার পরিচালনায় নগরজুড়েই এখন দলটির নেতাকর্মীদের পোস্টার-ফেস্টুনে চলছে আত্মপ্রচারের প্রতিযোগিতা। এ উপলক্ষ আরো বেশি বেড়ে যায় সরকারি দলটির বিভিন্ন দিবসকে সামনে রেখে। তারমধ্যে-১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস, ২৪ জানুয়ারি গণঅভ্যুত্থান দিবস, ১৭ মার্চ শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম দিন ও জাতীয় শিশু দিবস, ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস, ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ বা বাংলা নববর্ষ, ১৭ এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস, ২৩জুন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, ১৫ আগস্ট  জাতীয় শোক দিবস। এই সব দিবসকে সামনে রেখেই আত্মপ্রচারণায় নামে নেতারা।  
সরকারি দলটির বেশ কয়েকজন নেতার সাথে আলাপকালে জানা গেছে, আওয়ামী লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠি দিয়ে আত্মপ্রচারনা বন্ধের নির্দেশনা দেয়া হয় সকল জেলা-উপজেলার নেতাদের। ওই নির্দেশনায় বলা হয়েছে, আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছি যে, সারাদেশের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নামে বিভিন্ন ধরনের রাজনৈতিক বিলবোর্ড, ব্যানার ও ফেস্টুন শোভা পাচ্ছে। তাতে সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের ছবি থাকছে। অথচ সেখানে বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার ছবি খুব ছোট আকারে পরিলক্ষিত হচ্ছে, যা সাধারণ মানুষের কাছে দৃষ্টিকটু। এতে বলা হয়, সুতরাং বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনা ব্যতীত অন্য কারো ছবি থাকলে সেসব বিলবোর্ড, পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন সরিয়ে ফেলার জন্য দেশের সব জায়গায় আপনার নেতাকর্মীদের নির্দেশ প্রদানের আহ্বান জানানো হলো। এরপরই নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কী ধরনের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া যায় তা চূড়ান্ত করা হবে। এরপর দলের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের একাধিকবার আওয়ামী লীগের তৃণমূল ও  জেলা-উপজেলা, ওয়ার্ড-ইউনিয়ন নেতাদের এ বিষয়ে বিশেষ নির্দেশনা দেন। তাতেও বন্ধ হয়নি আত্মপ্রচার। কদমতলী থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আকাশ কুমার ভৌমিক বলেন, যারা জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান এবং দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার ছবি দিয়ে পোস্টার করে আত্মপ্রচার চালাচ্ছে তাদের উদ্দেশ্য মহৎ নয়। মূলত দলীয় প্রধান এবং এমপি-মন্ত্রীদের ছবির সাথে নিজেদের ছবি দিয়ে পোস্টার করে নিজ নিজ এলাকায় নিজের গুরুত্ব জানান দিতেই এসব করছে। তিনি বলেন, এছাড়াও এসবের নেপথ্যে রয়েছে চাঁদাবাজি। আওয়ামী লীগের নেতাদের ছবির পাশে নিজের ছবি বড় করে পোস্টার করে এলাকায় চাদাবাজি করাই মূল উদ্দেশ্য। ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হেদায়েতুল ইসলাম স্বপন বলেন, যারা এসব কাজ করেছে, তারা ঠিক করেনি। এটি কাণ্ডজ্ঞানহীন একটি কাজ। এসব ব্যানার-ফেস্টুনের ফলে বঙ্গবন্ধুকে অমর্যাদা করা হয়। এগুলো শোক দিবসের ভাবগাম্ভীর্যও নষ্ট করে। এ বিষয়ে আগামীতে নগর কমিটির পক্ষ থেকে নেতা-কর্মীদের কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হবে।

 

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK