শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৮
Friday, 05 Jan, 2018 08:33:58 pm
No icon No icon No icon
বিএনপিকে কাদের

নির্বাচন ঠেকানোর সাধ্য থাকলে দেখান


নির্বাচন ঠেকানোর সাধ্য থাকলে দেখান


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির একাদশ জাতীয় নির্বাচন ঠেকানোর সাধ্য থাকলে দেখাতে পারে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জনগণ বিএনপিকে প্রতিহত করবে।শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর বনানী মাঠে ৫ জানুয়ারি ‘গণতন্ত্র রক্ষা দিবস’ উপলক্ষে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় ওবায়দুল কাদের এ মন্তব্য করেন।সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া বলেছেন, বিএনপিকে ছাড়া নির্বাচন করতে দেওয়া হবে না। অপেক্ষা করেন, সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে। নির্বাচনে আসুন। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন বিএনপি বা কারও জন্য বসে থাকবে না। সংবিধান অনুযায়ী যথা সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আপনাদের (বিএনপি) ঠেকানোর সাধ্য থাকলে দেখান। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জনগণ আপনাদের প্রতিহত করবে।’ নির্বাচন ঠেকাতে চাইলে বাংলার জনগণ প্রতিহত করবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।ওবায়দুল কাদের বলেন, ৫ জানুয়ারি বিএনপির রাজনৈতিক আত্মহত্যা দিবস। একদিকে জনগণের গণতন্ত্রের বিজয় দিবস, অন্যদিকে ‘সাম্প্রদায়িক শক্তির’ আত্মহত্যা দিবস। আগামী নির্বাচনে অংশ না নিলে আরেকবার আত্মহত্যা দিবস পালন করতে হবে বিএনপিকে।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বহুরূপী ব্যারিস্টার সাহেব, আপনাদের সকলে চেনে। দেশে একটু ঝড়ঝঞ্ঝা দেখলে বিদেশে গিয়ে পালিয়ে থাকেন। ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে বাড়ি দখল করতে গিয়ে আদালতে ধরা খেয়ে রাস্তায় কান্না করেন। এই লোক যদি দেশের আইনমন্ত্রী হন, দেশের বারোটা বেজে যাবে।’ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে, স্বাধীনতার চেতনাকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে হলে আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করতে হবে। দেশে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হলে শেখ হাসিনাকে আরেকবার ক্ষমতায় আনতে হবে।আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ফারুক খান বলেন, আগামী নির্বাচনে ভরাডুবি হবে বুঝতে পেরে বিএনপি ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। ভবিষ্যতে কেউ যেন নির্বাচন বানচাল করতে না পারে, সেদিকে নেতা-কর্মীদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি।
এদিকে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ অভিযোগ করেন, বিএনপি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ পালনের নামে সারা দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, আগামীকাল বিএনপির তথাকথিত বিক্ষোভ কর্মসূচি ঢাকাবাসী পালন করতে দেবে না।
ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম রহমতুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাবেক মন্ত্রী সাহারা খাতুন, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য হাবিবুর রহমান সিরাজ, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান প্রমুখ।
সূত্র: প্রথম আলো।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK