বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৮
Wednesday, 03 Jan, 2018 12:46:50 pm
No icon No icon No icon

ঢাকা মহানগর উত্তর আ.লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন বাতিল


ঢাকা মহানগর উত্তর আ.লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন বাতিল


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের অর্ন্তগত সকল থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন আবারো বাতিল করে দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার দুপুরে গণভবনে মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তিনি এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। গণভবনে উপস্থিত একাধিক নেতা আমাদের সময়কে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। গত ২৭ ডিসেম্বর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের অর্ন্তগত ২৬ টি থানা, ৪৬ টি ওয়ার্ড ও ৯ টি ইউনিয়নের পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দেন সংগঠনের সভাপতি এ কে এম রহমতউল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান। এর আগে গত বছরের ৫ জুলাই একই কমিটির অনুমোদন দেন তারা। ওইসময় কমিটিগুলোর বিভিন্ন পদের নেতাদের নামে বিস্তর অভিযোগ ওঠায় কমিটি অনুমোদনের পরদিনই সবগুলো কমিটি স্থগিত করে দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। এরপর তিনি ওই কমিটির অভিযোগগুলো তদন্তের নির্দেশ দেন কেন্দ্রীয় নেতাদের। অভিযোগের তদন্ত চলাকালীন সময়ই আবারো তড়িঘড়ি করে গত ২৭ ডিসেম্বর কমিটিগুলোর অনুমোদন দেন মহানগরের ওই দুই শীর্ষ নেতা।
গণভবন সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত কমিটি অনুমোদনের পর থেকেই মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। সর্বশেষ আজ মঙ্গলবার দুপুরে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন বঞ্চিত নেতাকর্মীরা। নগর আওয়ামী লীগের নেতাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আবারো কমিটিগুলো স্থগিত করে দেন শেখ হাসিনা। তিনি উপস্থিত মহানগর নেতাদের বলেন, কমিটির অনুমোদন কে দিয়েছে? জবাবে নগর নেতারা উত্তরের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম বলেন। প্রধানমন্ত্রী জানতে চান, ওখানে কি ফারুক খানের সিগনেচার আছে? নগর নেতারা বলেন, না। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ফারুক খানের স্বাক্ষর ছাড়া কোনো কমিটি অনুমোদন হবে না। আমি তাকে দায়িত্ব দিয়েছি, সকল অভিযোগ তদন্ত করে কমিটি চ‚ড়ান্ত করতে। আপাতত সব কমিটি স্থগিত।

উল্লেখ্য, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের প্রধান সমন্বয়ক হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খান। গত জুলাই মাসে উত্তর আওয়ামী লীগের কমিটির বিষযে অভিযোগ ওঠায় প্রধানমন্ত্রী ফারুক খানকে প্রধান করে আওয়ামী লীগের ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মণি ও সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলকে অভিযোগ তদন্ত করে কমিটি গঠন চ‚ড়ান্তের দায়িত্ব দেন। এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার আগ পর্যন্ত মহানগহরের সকল পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন স্থগিত করেন তিনি। কিন্তু তদন্তের প্রায় শেষ সময়ে আবারো তড়িঘড়ি করে ওই কমিটি অনুমোদন দেন রহমতউল্লাহও সাদেক খান।
গণভবন সূত্রে আরও জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গণভবনে সাক্ষাৎ করেছেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তরের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের খান, বনানী থানার সভাপতি এ কে আমে জসিমউদ্দীন, মিরপুর থানার সভাপতি এস এম হানিফ, দারুস সালাম থানার সভাপতি মাজহারুল আনাম, শাহ আলী থানার সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম মোল্লাম ৩২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেন, ২৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ওমর ফারুক প্রমুখ। এসময় ঢাকার মীরপুরের সংসদ সদস্য ইলিয়াস মোল্লাও উপস্থিত ছিলেন।
এসব বিষয়ে জানতে চাইলে গণভবনে উপস্থিত বনানী থানার সভাপতি এ কে এম জসিমউদ্দীন বলেন, আমরা নেত্রীকে কমিটি অনুমোদনের বিষয়টি জানিয়েছি। তিনি জানতে চেয়েছেন ওখানে ফারুক খানের স্বাক্ষর আছে কী না। এসময় তিনি আমাদের আশ্বাস দিয়ে বলেন, অভিযোগের তদন্ত চলাকালীন সময়ে কিভাবে কমিটি অনুমেদন হলো! তিনি বিষয়টি দেখবেন।
একই বিষয়ে জানতে চাইলে ৩২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেন বলেন, আপা সবগুলো কমিটি আবারো স্থগিত করে দিয়েছেন। ফারুক খানের স্বাক্ষর ছাড়া কোনো কমিটি অনুমোদন হবে না বলেও আমাদেরকে জানিয়েছেন তিনি।
এসব বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খান বলেন, প্রধানমন্ত্রী জুলাই মাসেই উত্তরের নেতাদেরকে বলেছিলেন, আমাকে দেখিয়ে কমিটিগুলোর অনুমোদন চ‚ড়ান্ত করতে। কিন্তু মহানগর উত্তরের নেতারা কখন, কোথায়, কাদের সাথে আলাপ করে আবারো ৫ মাস পর একই কমিটির অনুমোদন দিয়েছে তা আমার জানা নেই।
আওয়ামী লীগের ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মহানগরের উত্তরের যেসব নেতারা সাক্ষাৎ করেছেন তারা আমাকে জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী সব কমিটি স্থগিত করে দিয়েছেন। ফারুক খানের স্বাক্ষর ছাড়া কোনো কমিটি অনুমোদন হবে না বলেও জানিয়েছেন তিনি। আমি এখন ঢাকার বাইরে। ঢাকায় ফিরে ফারুক খানের সাথে আলোচনা করে বিষয়টি নিয়ে আবারো বসবো।
ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান বলেন, নেতাকর্মীরা গণভবনে গিয়েছিল বলে শুনেছি। তবে আমি কোনো বার্তা এখনো পাই নি। কমিটি স্থগিতের কোনো খবরও শুনি নি আমি।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK