শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯
Saturday, 02 Feb, 2019 07:06:03 pm
No icon No icon No icon
ব্রিটিশ মায়েদের ধারণা

মেয়েকে গরম ছ্যাঁকা

//

 মেয়েকে গরম ছ্যাঁকা

কাওসার সাদিক, স্টাফ রিপোর্টার, টাইমস ২৪ ডটনেট  ডেস্ক: পুরুষদের নজর এড়াতে নিজের মেয়েকে গরম ছ্যাঁকা দেন মায়েরা। এমন ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটে দক্ষিণ লন্ডনে। ১৫ থেকে ২০ জন কিশোরীকে এভাবে ছ্যাঁকা দেয়া হয় বলে জানান এক সমাজকর্মী। মার্গারেট নামে ওই সমাজকর্মী জানান, এই পদ্ধতি প্রবল কষ্টদায়ক। ফ্ল্যাট চেস্ট বানাতে গিয়ে এবং মেয়েদের যৌন নির্যাতন থেকে রুখতে গিয়ে সন্তানের ক্ষতিই করছেন মায়েরা।

এ রকম ছ্যাকার ফলে স্তন্যপান করানোর ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে মেয়েরা, সংক্রমণ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, এমনকি ক্যানসারও হতে পারে।

ব্রিটিশ সরকার সম্পূর্ণভাবে এই প্রথা নিষিদ্ধ করে দিলেও সমাজকর্মীদের দাবি, এখনও গোপনে প্রথার চল রয়েছে সেখানে।

কোনো চাপে নয় বরং স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে ওই অঞ্চলের মায়েরা কিশোরী মেয়েদের ছাতি, স্তনের উপর গরম ছ্যাঁকা দিয়ে থাকেন। এর পোশাকি নাম চেস্ট আইরনিং।

মায়েদের ধারণা, মূলত পুরুষদের যৌন লালসা থেকে বাঁচাতেই এ কাজ করে থাকেন তারা। এর ফলে তার কন্যা সন্তানরা পুরুষদের যৌন নির্যাতন থেকে নিজেদের বাঁচাতে পারবে। ধর্ষিত হতে হবে না তাদের। কিন্তু মেয়েদের ধর্ষণ থেকে বাঁচাতে আরেক যন্ত্রণা এবং ঝুঁকির দিকে ঠেলে দিচ্ছেন তারা।

কিন্তু জানার বিষয় কীভাবে এই চেস্ট আইরনিং করা হয়।

জানা গেছে, প্রথমে পাথরের টুকরো খুব গরম করে নেন (পাথরের বদলে অনেকটা তাপমাত্রা সহ্য করতে পারে এমন যে কোনও ধাতব জিনিস দিয়েও এটা করা হয়ে থাকে)। তারপর সেই পাথরের টুকরোটা কিশোরীর ছাতির উপর রাখা হয়। ছাতির উপর সেই পাথরের টুকরো দিয়ে মাসাজ করা হয়। পাথরের টুকরো ঠাণ্ডা হয়ে এলে ফের সেটা গরম করে একই পদ্ধতিতে ছাতি মাসাজ করা হয়।

এভাবে বারবার গরম ছ্যাঁকা দিলে স্তনের কোষগুলো ভেঙে যায়। কোষের বৃদ্ধি হ্রাস পায়। একজন কিশোরী উপর সপ্তাহে এক বার বা দু’বার বা প্রয়োজন বুঝে তিন বারও এই পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়।

পুরুষদের নজর এড়াতে নিজের মেয়েকে গরম ছ্যাঁকা দেন মায়েরা। এই  ঘটনাটি ক্যামেরুন থেকে ক্রমশ আফ্রিকার অন্যান্য দেশেও ছড়িয়ে পড়ে। আর এখন লন্ডনেও!

ব্রিটিশ নারী ও শিশু উন্নয়নবিষয়ক সংস্থা কেম উইমেন অ্যান্ড গার্লস ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের প্রধান মার্গারেট এনইয়ুদজিরার দেয়া তথ্য বলছে, ব্রিটেনে কমপক্ষে এক হাজার নারী ও শিশু গরম পাথরের এ আয়রনের শিকার হয়েছেন।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK