শনিবার, ১৮ মে ২০১৯
Friday, 10 May, 2019 04:06:14 pm
No icon No icon No icon

বিজেপি প্রার্থী ভারতীর গাড়িতে নিয়মবহির্ভূত টাকা, রাতভর উত্তেজনা

//

বিজেপি প্রার্থী ভারতীর গাড়িতে নিয়মবহির্ভূত টাকা, রাতভর উত্তেজনা


টাইমস ২৪ ডটনেট, ভারত: বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের ঘাটালের প্রার্থী এবং প্রাক্তন আইপিএস ভারতী ঘোষের গাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে এক লাখ ১৩ হাজার টাকা। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ঘাটাল কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষের গাড়ি থেকে নিয়মবহির্ভূত টাকা উদ্ধারের অভিযোগ উঠল। যা নিয়ে রাতভর রীতিমতো উত্তেজনা ছড়াল গোটা এলাকায়। যদিও ভারতীর নির্বাচনী এজেন্টের দাবি, যে টাকা গাড়িতে ছিল তার তার বৈধ কাগজপত্র রয়েছে। এদিকে, অবিলম্বে ভারতী ঘোষকে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্ব। যদিও শেষপর্যন্ত টাকা বাজেয়াপ্ত করে ভারতী ঘোষকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। জানা গেছে, এদিন রাতে যখন প্রচার শেষে বাড়ি ফিরছিলেন ভারতী ঘোষ, ঘটনাচক্রে তখনই পিংলা থানার মুন্ডুমারিতে নাকি তল্লাশি চালাচ্ছিল পুলিশ। 
ভারতী ঘোষের গাড়িও তল্লাশি করতে যান কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তারা। গাড়িতে ভারতীসহ ছিলেন চারজন। প্রার্থীর পেছনে আরো তিনটি গাড়িতে ছিলেন বিজেপি কর্মীরা। প্রথম গাড়িতেই ছিলেন ভারতী। তার গাড়িতে তল্লাশি করতে চাইলে ভারতী বাধা দেন বলে অভিযোগ উঠেছে। 
পুলিশের একটি অংশ জানায়, মুন্ডুমারিতে কর্তব্যরত কর্মকর্তাদের ধমকে সেখান থেকে পালিয়ে যান বিজেপি প্রার্থী। মুহূর্তেই সেই খবর পুলিশের বড় কর্তাদের কাছেও পৌঁছায়। এরপর মণ্ডলবারের কাছে ফের ভারতীর গাড়ি আটকায় পুলিশ। সেখান পৌঁছে যায় জেলা পুলিশের বিশেষ দল। এরপরই গাড়ি তল্লাশি করতে যান তারা। তবে গাড়ি তল্লাশি করার ক্ষেত্রে ভারতী ঘোষ সহযোগিতা করেননি বলে অভিযোগ উঠেছে। জানা গেছে, লক্ষাধিক টাকারও বেশি ছিল গাড়িতে। 
নির্বাচন কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী, ৫০ হাজারের বেশি টাকা নিয়ে কোনো প্রার্থী বা ব্যক্তি যাতায়াত করতে পারবেন না। ভারতী ঘোষের নির্বাচনী এজেন্ট জানিয়েছেন, গাড়িতে চারজন ছিলেন। পঞ্চাশ হাজার টাকা করে মোট ২ লাখ টাকা সঙ্গে নিয়ে যাওয়া যায়। সেক্ষেত্রে গাড়িতে ছিল এক লাখ ১৩ হাজার টাকা। এদিকে, ঘটনার পরে টাকা বাজেয়াপ্ত করে ভারতী ঘোষকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে সিজার লিস্টে সই না করেই চলে যান ভারতী। তিনি দাবি করেন, ওই তালিকায় তিনজন সই করবে। কিন্তু পুলিশ কেবল ভারতীকেই সই করার কথা বলেছিল। 
যদিও বিজেপি সূত্রের দাবি, খুবই সামান্য পরিমাণে টাকা ছিল নেত্রীর গাড়িতে। তা কোনো অপরাধের আওতায় পড়ে না। তৃণমূল ষড়যন্ত্র করে পুলিশকে দিয়ে এই কাজ করিয়েছে বলে অভিযোগ তোলে তারা। পাল্টা তৃণমূলের অভিযোগ, পুলিশ এখন নির্বাচন কমিশনের অধীন। এখানে তৃণমূলের কোনো হাত নেই।
ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রে ভোট হবে আগামী রবিবার। তার দুদিন আগে এই ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই উত্তপ্ত হয়েছে পরিস্থিতি। ভোট পর্বের শুরু থেকেই বিতর্কের কেন্দ্রে রয়েছেন ভারতী। সোনা প্রতারণাসহ বিভিন্ন মামলায় নাম জড়িয়েছে তার। আবার কয়েক দিন আগেই কেশপুরে গিয়ে উত্তরপ্রদেশ থেকে ছেলে এনে তৃণমূলকর্মীদের কুকুরের মতো মারার হুমকি দিয়েছেন ভারতী। এবার টাকা পাচারের ঘটনায় নাম জড়িয়ে যাওয়ায় অস্বস্তি বাড়ল বিজেপি প্রার্থীর। অন্যদিকে, ভারতী ঘোষের গাড়ি আটকে তল্লাশির ঘটনায় জেলা প্রশাসকের কাছে রিপোর্ট চেয়েছে মুখ্য নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তা দপ্তর।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK