বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯
Wednesday, 20 Mar, 2019 08:55:38 am
No icon No icon No icon

জম্মু-কাশ্মিরে পুলিশ হেফাজতে স্কুল শিক্ষকের মৃত্যু: দোষীদের শাস্তি দাবি, বনধের ডাক

//

জম্মু-কাশ্মিরে পুলিশ হেফাজতে স্কুল শিক্ষকের মৃত্যু: দোষীদের শাস্তি দাবি, বনধের ডাক


টাইমস ২৪ ডটনেট, জম্মু-কাশ্মির থেকে: জম্মু-কাশ্মিরে পুলিশ হেফাজতে রিজওয়ান পণ্ডিত (২৮) নামে এক স্কুল শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। পুলওয়ামা জেলার অবন্তিপোরার বাসিন্দা রিজওয়ান পণ্ডিত স্থানীয় একটি বেসরকারি স্কুলে পড়াতেন। সন্ত্রাসী ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে নিরাপত্তা এজেন্সি গত তিন দিন আগে তাঁকে গ্রেফতার করেছিল।পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, গত সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে তাঁর মৃত্যু হয়। যৌথ প্রতিরোধ নেতৃত্বের পক্ষ থেকে ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে আগামীকাল (বুধবার) কাশ্মির উপত্যকায় বনধের ডাক দেয়া হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ওই ঘটনার ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আজ ডাউনটাউন শ্রীনগর, মৈসুমাসহ বিভিন্ন এলাকায় বনধ পালিত হয়। আজ জামিয়া মসজিদ থেকে মাইকে বনধের আহ্বান জানানোর পরে নৌহাট্টা, গোজওয়ারা, রাজৌরি কদল, হাওয়াল ও খানইয়ার এলাকার ব্যবসায়ীরা তাঁদের দোকানপাট বন্ধ করে দেন। দক্ষিণ কাশ্মিরের অবন্তিপোরা এলাকায় সমস্ত দোকানপাট, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ও সড়কে যান চলাচল বন্ধ ছিল। কর্তৃপক্ষ সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ইন্টারনেট পরিসেবা স্থগিত করে দেয়।
এ সম্পর্কে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ‘বন্দি মুক্তি কমিটি’র সম্পাদক  মণ্ডলীর সদস্য ভানু সরকার আজ (মঙ্গলবার) রেডিও তেহরানকে বলেন, ‘হেফাজতে মৃত্যু হলে সেজন্য দায়ী হল প্রশাসন। এধরণের মৃত্যুর ঘটনায় আমরা বিচারবিভাগীয় তদন্ত এবং এরসঙ্গে যারা যুক্ত তাদের খুঁজে বের করে দোষীদের শাস্তি দিতে হবে। এটা বন্দি মুক্তি কমিটির ‘স্ট্যান্ডার্ড প্রসিডিওর’। কারাগারে বা পুলিশ হেফাজতে কেউ মারা গেলে আমাদের প্রথম দাবি হল,  বিচারবিভাগীয় তদন্তের মধ্য দিয়ে দ্রুত সত্য বের করা এবং  এরমধ্যে যারা যারা যুক্ত থাকবে তাঁদের বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা করা।’জম্মু-কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আব্দুল্লাহ ওই ঘটনাকে অগ্রহণযোগ্য বলে অভিহিত করে এর যথাযথ তদন্তসহ হত্যাকারীদের কঠোর শাস্তি দাবি করেছেন।রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও পিডিপি নেত্রী মেহেবুবা মুফতি ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।পিডিপি নেতা নইম আখতার গভর্নর সত্যপাল মালিকের প্রশাসনের কাছে ওই ঘটনার সাফাই দাবি করেছেন।পিপলস কনফারেন্স নেতা সাজ্জাদ লোন ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।
সিপিএম নেতা মুহাম্মদ ইউসুফ তারিগামি ওই ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবিসহ কোনও মানুষের কাছে হেফাজতে হত্যা গ্রহণযোগ্য নয় বলে মন্তব্য করেছেন। শিক্ষক হত্যার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ারও দাবি জানিয়েছেন তিনি।

সূত্র: পার্সটুডে।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK