শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০১৯
Wednesday, 27 Feb, 2019 11:23:10 am
No icon No icon No icon

বৃহস্পতিবার ডিএনসিসি'র ভোট গ্রহণ


বৃহস্পতিবার ডিএনসিসি'র ভোট গ্রহণ


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: ঢাকার উত্তর সিটি কর্পোরেশনে (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচন ও ঢাকার দুই সিটির সম্প্রসারিত ৩৬টি ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে নির্বাচন অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের বৃহস্পতিবার ভোট। বিএনপিবিহীন এই নির্বাচনে অন্য যারা আছেন তারা নৌকার প্রার্থীর সঙ্গে খুব একটা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন না। তাই ভোট নিয়েও জনগণের মধ্যে আগ্রহ কম। এরই মধ্যে ভোটের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করে এনেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপনির্বাচন নিয়ে আগ্রহ কমছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা। অধিকাংশ নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল এ নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় এমনটা হচ্ছে বলে জানা গেছে। তবে নতুন ওয়ার্ডগুলোতে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস পাওয়া গেছে। রাজধানীর এই দুই সিটি নির্বাচনকে ঘিরে কোনো আগ্রহ নেই ভোটারদের মাঝে। পরশু ভোট অনুষ্ঠানের কথাও অনেক ভোটার জানেন না। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মো. আতিকুল ইসলাম ছাড়া অন্য কারো উল্লেখ করার মতো কোনো প্রচারণাও নেই।
নির্বাচন কমিশনার মহবুব তালুকদার বলেছেন, অধিকাংশ দল নির্বাচনে না আসায় এ নির্বাচন নিয়ে মানুষের উৎসাহ কমেছে। তবে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হতে পরে।
ইসি কর্মকর্তারা জানান, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপনির্বাচনে প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির সম্প্রসারিত ওয়ার্ডগুলোর সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদ প্রার্থীদের মধ্যে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ করা হয়েছে।
উত্তরের মেয়র পদে আতিকুল ইসলাম-নৌকা, শাফিন আহমেদ-লাঙ্গল, আব্দুর রহিম-টেবিল ঘড়ি (স্বতন্ত্র), আনিসুর রহমান-আম, শাহীন রহমান-বাঘ প্রতীকে লড়বেন।
২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনের আড়াই বছর পর ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মেয়র আনিসুল হক মারা গেলে আসনটি শূন্য হয়ে পড়ে। মেয়র পদে শূন্য আসনে উপনির্বাচন ও দুই সিটির ৩৬টি নতুন ওয়ার্ডে সাধারণ নির্বাচন করতে ২০১৮ সালের ৯ জানুয়ারি ইসি ডিএনসিসি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী গত বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোট গ্রহণের কথা ছিল। কিন্তু গত বছরের ১৭ জানুয়ারি এই নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিতের আদেশ দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি স্থগিতের আদেশ খারিজ করে দেন হাইকোর্ট। এরপর গত ২২ জানুয়ারি ইসি নতুন তফসিল ঘোষণা করে।
এদিকে ঢাকা উত্তর সিটির ২০টি সাধারণ ওয়ার্ডে ৪০ জন ও সংরক্ষিত ৬টি ওয়ার্ডে ১ জন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটির ১৮টি ওয়ার্ডে ২৬ জন ও সংরক্ষিত ৬টি ওয়ার্ডে ১ জন প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেছেন বলে ইসি সূত্রে জানা গেছে। ফলে, চূড়ান্তভাবে ডিএনসিসিতে ২০টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ১২০ জন এবং ৬টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ৪৪ জন। আর ডিএসসিসির ১৮টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ১২৩ জন এবং ৬টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ২৪ জন। সবমিলিয়ে ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি নির্বাচনে ৩৮টি সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে মোট প্রার্থীর সংখ্যা ২৪৩ জন। দুই সিটিতে ১২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিল পদে প্রার্থীর সংখ্যা ৬৮ জন।
ঢাকা উত্তর সিটির ৯ ও ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মারা যাওয়ায় এ ২টিতে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মুজিব সরোয়ার মাসুম বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হতে যাওয়ায় এ ওয়ার্ডে ভোট গ্রহণের প্রয়োজন হবে না। এ সিটির মেয়র, ২০ নম্বর ওয়ার্ড এবং সম্প্রসারিত সাধারণ ১৮টি ও সংরক্ষিত ৬টি ওয়ার্ডে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সংরক্ষিত ৬টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের একজন প্রার্থী তার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। ঐ ওয়ার্ডে আরও ৮ জন প্রার্থী মাঠে রয়েছেন।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, আসন্ন ঢাকা সিটি উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে উপ-নির্বাচন ও নতুন ১৮টি ওয়ার্ডে সাধারণ নির্বাচন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সঙ্গে যুক্ত হওয়া নতুন ১৮টি ওয়ার্ডে সাধারণ নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থীরা যাতে কোনো প্রকার গ-গোল করতে না পারে সে জন্য আগে থেকেই তাদের মুভমেন্ট ফলো (চলফেরা পর্যবেক্ষণ) করা হবে।

আসন্ন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) উপনির্বাচন উপলক্ষে মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টার মধ্যে বহিরাগতদের ভোটের এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আবুল কাসেম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ডিএনসিসিতে মেয়র পদে উপ-নির্বাচন হবে। নির্বাচনের পরিবেশ শান্তিপূর্ণ রাখতে বহিরাগতদের মঙ্গলবার রাত ১২টার মধ্যে ভোটের এলাকা ছাড়তে হবে।

ছাত্রছাত্রীদের ক্ষেত্রে করণীয় কী হবে এমন প্রশ্নের জবাবে রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাসেম বলেন, যাদের বাড়ি ঢাকার বাইরে কিন্তু পড়াশোনা করতে ডিএনসিসিতে থাকেন তাদের জন্য এই নির্দেশনা বলবৎ হবে না। তারা মেস বা হোস্টেলে থাকতে পারবেন। এ নির্দেশনা কেবল তাদের জন্য, যারা এখানে কোনো কাজ করছেন না অথবা যারা সন্ত্রাসী বা সন্ত্রাস করতে পারেন।

প্রতি সাধারণ কেন্দ্রে বিভিন্ন বাহিনীর ১৯ জন করে এবং ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ২৩ জন করে ফোর্স মোতায়েন থাকবে।

এছাড়া নির্বাচনে পুলিশ, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) ও আনসার সমন্বয়ে মোট ২৭টি মোবাইল টিম এবং ১৮টি স্ট্রাইকিং ফোর্সসহ র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ২৭টি টিম, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) ২৫ প্লাটুন মোতায়েন থাকবে।

এদিকে নির্বাচনের আচরণবিধি প্রতিপালন ও অনিয়মের শাস্তি প্রদানে ৫৪ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং আরও ২৪ জন বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত থাকবেন।

২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) নতুন ১৮টি ওয়ার্ডেও ভোটগ্রহণ হবে। এ নির্বাচনেও একইহারে বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন থাকবে।

ডিএনসিসি নির্বাচনে মোট ৫ জন প্রার্থী মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আর কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১২৪ জন প্রার্থী এবং ডিএসএসির কাউন্সিলর পদে ১২৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK