বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯
Sunday, 07 Jul, 2019 05:33:06 pm
No icon No icon No icon

হরতাল শেষে সরকারকে ৭ দিনের আল্টিমেটাম বাম জোটের

//

হরতাল শেষে সরকারকে ৭ দিনের আল্টিমেটাম বাম জোটের


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে রবিবার (৭ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত দেশব্যাপী আধাবেলা হরতাল পালন করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। দুপুরে কর্মসূচীর শেষ সমাবেশে গ্যাসের দাম কমাতে সরকারকে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দিয়ে এই জোট।আজ রবিবার দুপুরে পল্টন মো‌ড়ে হরতাল পালনের সময় গ্যাসের দাম কমাতে সরকারকে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দিয়ে এক ঘোষণায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক মোশারফ হোসেন নান্নু বলেন, আজ ৭ জুলাই। আগামী ৭ দিনের মধ্যে গ্যাসের দাম কমানো না হলে ১৪ জুলাই সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ করা হবে।হরতাল পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণায় তিনি আরও বলেন, প্রেসক্লাবে সমাবেশ শেষে জ্বালানি মন্ত্রণালয় ঘেরাও ও সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ করবে বাম গণতান্ত্রিক জোট। তাতেও যদি গ্যাসের দাম কমানো না হয় তবে ১৯ জুলাই ঢাকায় প্রতীকী সমাবেশ করে পরবর্তী কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।
সকালে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সঙ্গে হরতালের সমর্থনে রাস্তায় নামেন হরতালে নৈতিক সমর্থন দেওয়া সোশ্যালিস্ট পার্টি অব বাংলাদেশ (এসপিবি), ক্ষমতাসীন জোটের শরিক দল বাংলাদেশ ন্যাপ ও ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনডিপি) নেতাকর্মী ও সমর্থকরা।
এদিকে শাহবাগে অবস্থান নিয়ে রাস্তায় বসে যায় প্রগতিশীল ছাত্রজোট। এতে টিএসসি, সায়েন্স ল্যাবরেটরি, কারওয়ান বাজার, মৎস্য ভবন রোডে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।
শাহবাগে অবস্থান নিয়ে নেতাকর্মীরা হরতালের সমর্থনে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। সাধারণ জনগণের হরতালের সমর্থন দেয়ার জন্য আহ্বানও জানান তারা।
পল্টনে একটি বীমা কোম্পানিতে চাকরি করেন জামাল উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, যাতায়াতের জন্য আমাদের সাময়িক হয়তো একটু অসুবিধা হচ্ছে। কিন্তু সার্বিক দিক বিবেচনা করলে এই হরতালে আমাদের সবাইকে সমর্থন দেয়া উচিত।
গুলিস্তান যাওয়ার জন্য রিকশায় বসে আছেন দুলাল শেখ। তিনি ব্রেকিংনিউজকে বলেন, শাহবাগ থেকে কেউ আমাকে যেতে দিচ্ছে না। সবাই বলছে হরতাল হরতাল, যাওয়া যাবে না। আমি আগে জানতাম না আজ হরতাল।
রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে সকাল থেকেই বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। প্রস্তুত রয়েছে কয়েকটি প্রিজন ভ্যান, রায়টকার ও জলকামান। সম্ভব্য পরিস্থিতি মোকাবেলায় আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী রয়েছে সতর্ক অবস্থানে।প্রগতিশীল ছাত্রজোটের সভাপতি ইমরান হাবিব বলেন, শুধু এটা আমাদের দাবি নয়, পুরো বাংলাদেশের নাগরিকের দাবি। ন্যায্য দাবি আদায়ে আমাদের আন্দোলন চলবে। বেলা ২টা পর্যন্ত আমরা শাহবাগ অবস্থান করব।বিইআরসির ঘোষণা অনুযায়ী ১ জুলাই থেকে রান্নাঘরে ব্যবহৃত এক বার্নারের চুলার জন্য গ্যাসের বিল দিতে হবে ৯২৫ টাকা, যা আগে দিতে হতো ৭৫০ টাকা। আর দুই বার্নারের চুলার জন্য গ্যাসের বিল দিতে হবে ৮০০ টাকার জায়গায় ৯৭৫ টাকা। এছাড়া, সিএনজি অটোরিকশায় ব্যবহৃত গ্যাসের দাম করা হয়েছে ৪৩ টাকা।গ্যাসের এই মূল বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোটের ডাকা হরতালে নৈতিক সমর্থন দেয় বিএনপি, খেলাফত মজলিস, নাগরিক ঐক্য, গণফোরাম, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, বাংলাদেশ ন্যাপ ও ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি)।
হরতাল চলাকালে বাম জোটের অন্যতম নেতা গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি সাংবাদিকদের বলেছেন, রাজনৈতিকভাবে সরকার ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। যার কারণে সাধারণ মানুষ রাস্তায় না এলেও যার যার অবস্থান থেকে তারা নৈতিকভাবে আমাদের সমর্থন জানাচ্ছে। আমরা আজকের এই হরতালের মধ্য দিয়ে সরকারের সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের দাবি জানাচ্ছি। আমাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে, প্রয়োজনে আমরা আরও বড় আন্দোলনে যাবো।সাকি বলেন, আমাদের এই হরতালে সরকার বাধা দিচ্ছে। চাঁদপুর, ময়মনসিংহসহ বিভিন্ন জেলায় আমাদের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার এবং পার্টি অফিসে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ। এর মধ্য দিয়ে সরকার আমাদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে বাধা দিচ্ছে। হরতালের সময় বাড়ার সঙ্গে আমরা আরও এ ধরনের খবর পাবো বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছি।’তিনি বলেন, ‘আমাদের আন্দোলন আদায় না হওয়া পর্যন্ত সভা-সমাবেশ, মিছিল করার পাশাপাশি প্রয়োজনে জ্বালানি মন্ত্রণালয় ঘেরাও করবো। আমরা সরকারের এই অনৈতিক সিদ্ধান্ত থেকে সড়ে আসতে বাধ্য করবো।’

 

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK