সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯
Friday, 22 Mar, 2019 08:19:00 pm
No icon No icon No icon

ইতালি প্রবাসীর শিশুপুত্র সুজয়ের মৃত দেহ উদ্ধার, পাঁচজন আটক

//

ইতালি প্রবাসীর শিশুপুত্র সুজয়ের মৃত দেহ উদ্ধার, পাঁচজন আটক


বিশেষ প্রতিনিধি, টাইমস২৪ ডটনেট, ঢাকা: ১৮ মার্চ  মানিকগঞ্জে নিখোঁজ হওয়া পাঁচ বয়সের শিশু সুজয়ের লাশ ২১ মার্চ বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির পাশে পুকুরে পাওয়া গেছে। ধারনা করা হচ্ছে সম্পত্তির লোভে সুজয়কে তার চাচা চাচি আটকিয়ে রেখে নির্যাতন করে হত্যা করেছে। ঘটনার সাথে জরিত থাকার সন্দেহে পাঁচজনকে বিক্ষিপ্ত জনতার হাত থেকে উদ্ধার করে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে গেছে। অটক কৃতরা হলেন, ১. রনজিত দেবনাথ (৪৫), ২. তার মা মায়া দেবনাথ ( ৬৮), স্ত্রী ৩. নিপা দেবনাথ (৩৮), ৪. মেয়ে রিতু দেব নাথ, ও  ৫.ছেলে নিলয় দেবনাথ (১২)।নিহত সুজয় মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার ভারাড়িয়া ইউনিয়নের কাকুরিয়া গ্রামের ইতালী প্রবাসী সঞ্জয় দেবনাথের ছেলে। 
নিহত সুজয়ের বড়বোন সুস্মিতা দেবী এই প্রতিনিধিকে জানায়,  পুর্ব শত্রুতার জের ধরেই আমার ভাই সুজয়কে ওরা মেরে ফেলেছে। সে জানায় গত ৫ বছর আগে আমার এক বোন সংগীতা দেবীকে ধাক্কা দিয়ে পুকুরে ফলে দিয়ে হত্যা করে। 
সে আরও বলেন, ‘সেই থেকে আমাদের সাথে প্রতি নিয়তই ঝগড়া লেঘেই থাকতো। বাবা  ইাতালী থেকে দেশে এসে মানিকগঞ্জ শহরে ৭০লাখ টাকা দিয়ে একটি জায়গা কিনে। ১৫দিন আগে সঞ্জয় দেবনাথ  আবার ইতালি চলে যায়। এর পর থেকেই কাকা কাকী ও কাকাতো ভাই বোনেরা আমাদের সাথে খারাপ  ব্যাবহার করতো’।
সঞ্জয় দেবনাথ ইতালী থেকে তার ভাই রঞ্জিত দেবনাথের কাছেই টাকা পাঠাতো এবং সেই সংসারের দেখ ভাল করতো। সন্ঞ্জয় দেবনাথের বড় ভাই রঞ্জিত দেব নাথকে খুব বিশ্বাস করতো। কিন্তু ৭০লাখ টাকার সম্পত্তি একার নামে দলিল করার পরই প্রতি হিংসার বস বতি হয়ে সুজয়কে  অপহরন করে মেরে গুম করে লুকিয়ে রাখে। দুর্গন্ধ বের হওয়ার ভয়ে রাতের আধারে বারির পাশে পুকুরে ফেলে দেয়। 
নিহত সুজয়ের বড়বোন সুস্মিতা দেবী আরো জানায়,  মা বাসন্তী দেবনাথ ১৮ মার্চ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে পুকুরে গোসল করতে যায়। সেখান থেকে ফিরে সুজয়কে বাড়িতে নাপেয়ে খোজা খুজি করতে থাকে। গ্রামসহ আশেপাশের এলাকায় খোঁজাখুজি করে নাপেয়ে এলাকায় মাইকিং করাহয় ও চাচা রনজিত দেব নাথ মানিকগঞ্জ সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করে।পুলিশ এসে এলাকায় প্রতিটা বাড়িতে ঘর তল্লাসিও চালায়। 
এলাকা বাসী জানায় ২১ মার্চ বৃহস্পতিবার সকালে রাস্তার পাশে পুকুরে একটি লাশ ভাসতে দেখে চিল্লাচিল্লি করতে থাকে । এক এক করে হাজার হাজর মানুষ জরো হয়ে যায়। ঘটনার সাথে জরিত থাকার সন্দেহে ঐ বাড়িটি ঘেরাও  করে  দরজা জানালা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে মার ধর করে আটকে রাখে।  
বিক্ষিপ্ত জনতার হাত থেকে পাঁচজনকে উদ্ধার করে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে যায়। 
স্থানীয় জনতা পুলিশের দেরি দেখে পুলিশের গাড়িতে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে ও ভাংচুর চালায় । পুলিশ দুই রাউন্ড ফাকা গুলি করে পরিস্থিতি শান্ত করে। সুজয়ের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মানিকগঞ্জ থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

 

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK