রবিবার, ১৭ মার্চ ২০১৯
Thursday, 14 Feb, 2019 12:57:01 am
No icon No icon No icon

দেশ স্বাধীন হয়েছিল ৯ মাসে আর বীনা মা ডাক শুনতে যুদ্ধ করেছে ৯ বছর


দেশ স্বাধীন হয়েছিল ৯ মাসে আর বীনা মা ডাক শুনতে যুদ্ধ করেছে ৯ বছর


মাসুদ রাজা, টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: একজন নারী তার নারী জীবনের সার্থকতা পান মাতৃত্বে। সেই নারী মা ডাক শোনার অপেক্ষার প্রহর গুনে দীর্ঘদিন। শুধু সন্তানের মুখে মা ডাক শোনার প্রতিক্ষায় কাটাতে হয় মাসের পর মাস। কারো কারো ক্ষেত্রে বছরের পর বছর। মা ডাকটি বড় মধুর আর প্রতিটা নারী দাম্পত্য জীবনে সন্তান সম্ভাবনার জন্য চেষ্টা করে থাকেন। তবে প্রতিটি দেশে কিছু নর নারী আছেন পেশাগত সমস্যার কারনে বিলম্বে সন্তান
নিয়ে থাকেন এই বিষয়টি সম্পূর্ণ তাদের দাম্পত্য পরিবারের ব্যাক্তিগত বিষয়। কিন্তু যারা বিবাহ বন্ধনের পর হতেই মা ডাকটি শুনতে সন্তান নিতে ব্যাকুল হয়ে পরেন তাদের মধ্যে একজন হোসনে আরা বেগম বীনা নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। বীনা একজন হাসি খুশি ও বিনোদন প্রেমী ব্যাক্তি সম্পন্ন মহিলা। পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি তিনি বিনোদন প্রেমীদের উৎসাহ যোগান এমনকি প্রতিভাবান শিল্পীদের এনকাইরেস করেন আরও ভাল কিছু করতে। গান শুনতে ভাল বাসেন, ভালবাসেন দেশের প্রকৃতিকে।
সূত্রে জানা যায়; উচ্চ শিক্ষিত পরিবারের সন্তান বীনা। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় হতে অনার্স মাষ্টার্স কমপ্লিট করে বিসিএস করেন। পরবর্তিতে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন সরকারী চাকরীতে যোগদান করেন নারায়ণগঞ্জে যোগদানের পূর্বে তিনি অন্য একটি জেলায় কর্মরত ছিলেন। কর্মময় দিনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সরকারের সকল কার্যক্রম নিষ্ঠার সাথে পালন করে তিনি ঘরে ফিরেন। অন্যায়কে পশ্রয় দেননা এবং কঠোরহস্তে দাপ্তরিক ও প্রশাসনিক কাজগুলো করে থাকেন যার প্রশংসাও তিনি কুড়িয়েছেন সরকারের উর্দ্ধতন মহল হতে। ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সহকারী রিটানিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন নিষ্ঠার সাথে তখন তিনি ৭ মাসের অন্তসত্ত্বা ছিলেন। তিনি ফেসবুকে যে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন তার ব্যাক্তিগত জীবন সম্পর্কে তা মানুষের বিবেককে ভাবিয়ে তুলে, তাহলেকী মা হওয়ার অধিকার একজন সরকারী কর্মকর্তার নেই? মাতৃকালীন ছুটি সরকারের নিয়ম-নীতির মধ্যে থাকা সত্ত্বেও একজন দক্ষ অফিসারকে যদি “ও এস ডি” করা হয়, তাহলে বাংলাদেশের প্রতিটি সেক্টরেই এমন ঘটনার প্রতিনিয়ত জন্ম নিবে এতে করে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরগুলোর কাজের গতি অনেকটাই কমে আসবে। একজন অফিসার সাধারণত ২ বছর মেয়াদী একটি জেলায় কর্মরত থাকার কথা কিন্তু তার বিরুদ্ধে কোন প্রকার অভিযোগ পাওয়া গেলে সেক্ষেত্রে সরকার তাৎক্ষনিকভাবে ঐ ব্যাক্তিকে প্রত্যাহার করতে পারেন। ৯ মাস যুদ্ধ করে বাংলাদেশ স্বাধীনতা এনেছিল ঠিক তেমনি একজন নারী তার মাতৃত্ব পেতে ৯ বছর চেষ্টা করেছে মা ডাক শুনতে সেই চেষ্টার অবসান আল্লাহর হুকুমেই হয়েছিল। তবে আল্লাহর হুকুম ছাড়া যেমন গাছের পাতা নড়ে না ঠিক তেমনি তার হুকুম ছারা কেউ দুনিয়ার মুখ দেখতে পারেনা। ডাক্তারী রিপোর্ট অনুযায়ী এই বাচ্চা জন্ম নেওয়ার কথা ছিল আগামী এপ্রিল মাসের ২০ তারিখে অর্থাৎ “প্রি ম্যাচিউর” একটি বেবীকে বাঁচাতে তাকে সিজারের মাধ্যমে বের করে ফেলা হয়। সুত্রে আর জানা যায় নিষ্ঠার সাথে কাজ করে হঠাৎ তিরস্কারের কথা কেউ যদি শুনেন তখন ঐ ব্যাক্তির মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন ঠিক তেমনি ঘটেছে হোসনে আরা বেগম বীনার বেলায়। মায়ের শ্বাস-প্রশ্বাসের সাথে যেহেতু বাচ্চার শ্বাসের সম্পর্ক রয়েছে সেখানে এই ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া ছাড়া ডাক্তারদের কোন
উপায় থাকেনা। বর্তমানে এই “প্রি ম্যাচিউর নিষ্পাপ শিশুকে” বাঁচাতে মা বীনা যুদ্ধ করে চলছেন ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তিরত এনআইসিওতে। হোসনে আরা বেগম বীনাকে ওএসডির ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
উল্লেখ্য, গণমাধ্যমে খবরটি প্রকাশ হলে সেটি প্রধানমন্ত্রীর নজরে আসে এবং সোমবার (১১.০২.২০১৯ইং) সকালে তিনি জনপ্রশাসন সচিব ফয়েজ আহম্মদকে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন। গত ৪ ফেব্রুয়ারি হোসনে আরা বেগম বীনাকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করা হয়। এরপর গত ৮ ফেব্রুয়ারি রাতে বীনা তার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। যা নিয়ে তোলপাড় চলছে প্রশাসনে।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK