শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯

লেখক: মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা) সমরে আমরা, শান্তিতে আমরা সর্বত্র মোরা দেশের তরে সেনাবাহিনীর, এই মূল মন্ত্র রয়েছে, হৃদয় জুড়ে।

দুর্গম গিরি, দুর্জয় পথ পাড়ি দিতে মোরা হইনা বিপথ পথে জানি আসবে বাধা জানে সেনানীরা, কি

লেখক: মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা) সুরে সুরে আজি সুরধ্বনিতে বাজে বাংলা মায়ের সুর সুর নয় এ এমনি মধুর কানে লেগে থাকে যেন এ স্নিগ্ধ সুমধুর।

বর্ণে বর্ণে বর্ণমালা হয় বর্ণমালা সাধনে সুর বাংলা সুরধ্বনির কি

নাসরীন জাহান কথা দিয়েছিলাম তোমায়, দেখবো তোমার সনে নতুন সকালের সুর্যোদয়। কিন্তু আজ যে  পুরোপুরিভাবে নীল হয়ে যাচ্ছি, বিষের রং যে নীল সে তো অনেক আগেই শুনেছি, আজ তার বাস্তবটা খুব খুব কাছ থেকে দেখতেছি।

......

লেখক : মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা) আমার হৃদয় বীণায় সুর উঠেছে সুর লহরীর তান হৃদয় বীণা ছিল বিষাদে বিধুর আজি জেগেছে পল্লবের বান।

দগ্ধ দহনে, মনের কিনারে শীতে, শৈত্যপ্রবাহের বয়ে গিয়েছিল বায়ু শরতের, মৃদুমন্দ বায়ুও

লেখক : মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা) সারা অঙ্গে আমার পুষ্পরেনু ওলী, মৌমাছির গুঞ্জন মনোরঞ্জনে, সদা ব্যতিব্যস্ত বারবনিতার, কিসের আবার ক্রন্দন।

দিন কেটে যায় সূর্য আঁধারে হারায় চাঁদ, জ্বল জ্বল করে যেন তারাদের, হাতছানির মায়ায়।

মধু, মাধরীতে, সুশোভিত

কাজী জুবেরী মোস্তাক  সারাদিনের কর্ম ব্যস্ততাটুকু ঝেড়ে ফেলে , চিলের ডানায় ভর করে উড়ে এলো ক্লান্ত সন্ধ্যা , নিত্যদিনের মতোই জ্বলে উঠেছে সন্ধ্যাবাতির ফোয়ারা ৷ কিছু আল্লাহ ওয়ালা ছুটেছে মসজিদ পানে , আর কিছু লোক

ন্যায়ের তরে লেখক : মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা) কাগজের পাতায় কত খবর সকাল হলেই পড়ি খারাপ খবরে  মনে হয় যেন প্রতিবাদ করি।

সমাজ সংসারে প্রতিনিয়ত কত অঘটন ঘটে মানবতার টানে  এ মন যেন, নির্যাতিতের পাশে থাকে সংকটে।

গৃহবধু,

 

কোহিনূর আক্তার জীবনের সুখ দুখ যা আছে জমা  তা কখনো অনুভবে করে না ক্ষমা । তা যেনো দূর-দেশ আমার পিছন পাঠ,  সব কথা সব দুঃখ জীবনের আর্ট ।

মনের গহীনে মনের কথা  কেনো পাও এতো ক্ষুন্নতে

কোহিনূর আক্তার  তুই কি আমার হবি ?  সারাক্ষণ আঁকি তোর ছবি  তোকে রচনা করে হবো বিশ্ব কবি । তুই কি আমার হবি ?

ভালোবাসার চাঁদর দেবো  বুকের মাঝে জড়িয়ে নেবো  সুখের উল্লাসে মাতিয়ে থোব  সব কষ্টে আমি বুক

কোহিনূর আক্তার আমি কুলহারা কলঙ্কিনী  আমি পথ হারা যোগিণী । আমায় আর ডেকো না সজনী , জীবন আমার অন্ধ রজনী ।

বেলা আজ ভরা দুপুর যৌবন আমার ভরপুর  কি করে যাবে একেলা কুল  তাকে ছাড়া জীবনের মূল ।

আমি

কোহিনূর আক্তার তুমি কার লাইগা বাঁচরে বান্ধব মনে আঙ্গিনায়  কোন আসরের অপেক্ষায় আজও অচিনায়। কেবা গুরু কেবা সুদ্ধ মহা সাধনায়,  সুবাস নিয়া ফুটলেরে ফুল পাপের আঙ্গিনায় ।

তুমি কার লাইগা গড়লে বাসর ভাঙা বিছানায়  কোন সাধনার

এমএবি সুজন মান‌বিক ও পাশ‌বিক উপল‌ব্দি  যথা‌বি‌চিত্র জীবন থে‌কে নেওয়া যৌবন থে‌মে যাওয়া মা‌নেই জীবন যাপন চ‌লে যাওয়া  তার আর পুরুদ্ধার পুনর্বাসন  হবার নহে হয়না কোনকা‌লে  তবুও স্বপ্ন দে‌খো মানুষজন জে‌গে ঘুমাও কোন অব‌হে‌লে সুজন এমএ‌বি খেয়া‌লে শু‌নি যৌবন যার






Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK