শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯
Sunday, 14 Apr, 2019 10:10:39 pm
No icon No icon No icon

এই সময়ের জনপ্রিয় কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর "ছেলেবেলা"-প্রসঙ্গে কলম ধরেছেন ক্যানাডা থেকে বিশিষ্ট সাংবাদিক ডঃ উত্তরা মজুমদার

//

এই সময়ের জনপ্রিয় কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর

যাকে নিয়ে আমার কলম ধরা , তিনি এই মুহূর্তে বেঁচে থেকেও কিংবদন্তী আখ্যা পেয়ে গেছেন ! আজ্ঞে হ্যাঁ , আমি কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর সম্পর্কে কথা বলছি । ২০১৫ কলকাতা বইমেলা-য় এসে ছিলাম আমি ।     

ওখানে "কিশোর ভারতী"-র স্টলে কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর সাথে আমার প্রথম পরিচয় ও আলাপ বলা যায় । তখন "কিশোর ভারতী"-শীর্ষক প্রথম শ্রেণীর ম্যাগাজিনে কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক লিখতেন মজার মজার     

ছড়া ! "শুকতারা"-তেও তখন দাপিয়ে লিখছেন এই বরেণ্য কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক ! এই দুটি ম্যাগাজিন পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে আসে , সেই সুবাদে ক্যানাডার টরেন্টো-তে কবির ছড়া পড়ার সুযোগ আমি পেতাম । ***     

ওর সমস্ত ছড়াই আমার কণ্ঠস্থ ! প্রথম আলাপে যখন আমি ওনার ছড়া গুলো "কিশোর ভারতী"-র স্টলে বসে কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-কে শোনাচ্ছিলাম উনি তখন এক দৃষ্টে আমার দিকে অপলক তাকিয়ে ছিলেন !         

সেই দৃষ্টি-তে আমি শিশুর সারল্য দেখেছিলাম ! আমিতো অবাক হয়েছিলাম প্রথম দর্শনে ! এতো বড় মাপের একজন কবি আমার মুখোমুখি আমার সাথে কথা বলছেন ! নানান কথা প্রসঙ্গে কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক         

তাঁর বাল্যকাল অর্থার ছোটবেলার কথাকে নিয়ে আসছিলেন । আমি-যে ওর লেখাগুলো আবৃত্তি করে শোনাচ্ছিলাম , উনি সে-সব শুনে আমাকে সাবাশি দিয়েছিলেন ! ছোটবেলা নিয়ে তাঁকে নানান প্রশ্ন করেছিলাম , সে     

কিন্তু নির্দ্বিধায় অকপটে আমাকে মন খুলে তাঁর শৈশব-এর দিন গুলোর কথা বলেছিলেন !                                                                                                                                                                            কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর জন্ম ১৬-ই জুন ১৯৬৪ , ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হুগলী জেলার ঐতিহাসিক শহর শ্রীরামপুরে । কবি~বিদ্যুৎ -এর ৩ ভাই , এবং ১ বোন । মধ্যম সন্তান কবি । পিতা ঈশ্বর পীযূষ কান্তি       

ভৌমিক , মাতা শ্রীমতী ছায়ারাণী ভৌমিক ( সম্প্রতি মাতৃ বিয়োগ ২১-শে ফেব্রুয়ারি ২০১৮ হয়েছে কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর ) । যে বাড়িতে কবির ছোটবেলার দিনগুলো কেটেছে , সেই বাড়ির নাম "কুসুমকুঞ্জ" !           

পিতার হাত ধরে চার বছর বয়েসে পূর্ণচন্দ্র বিদ্যালয়ে ভর্তি হন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক । বিদ্যালয়ে তাঁর মন টিকতো না , স্লেট-পেন্সিলে অ আ ক খ কিম্বা A B C D-র পরিবর্তে     

তিনি নানান আঁকিবুকি কাটতেন ! সেই দেখে স্কুল শিক্ষক কমল বাবু বেত্রাঘাত করতেন সেদিনের ছোট্ট কবিকে ! সেই শিক্ষক মহাশয় কি জানতেন ওই বিদ্যুৎ ভবিষ্যতে বাংলা কবিতা সাহিত্য-কে তাঁর কলমের       

খোঁচায় শাসন করবেন ! ২০১৫ কলকাতা  বইমেলা'-র টেবিলে যখন কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিকের সাথে কথা হচ্ছিল , তখন তিনি তাঁর ছোটবেলার স্কুল শিক্ষক কমল বাবু-র কথা বলতে-বলতে গলা জড়িয়ে আসছিল । কবি     

বিদ্যুৎ ভৌমিকের চোখ ভিজে আসছিল বিন্দু-বিন্দু অশ্রু ডানায় ! তাঁর কাছ থেকে জানতে পেরেছিলাম , বহু বছর আগে কমল বাবু মারা গেছেন !                                                                                                      ভীষণ দুরন্ত এবং খাম খেয়ালী স্বভাব নিয়ে জন্মে ছিলেন এই সময়কার শ্রেষ্ঠ কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক ! স্কুলের বাঁধনে বাঁধা পড়তে তিনি চান-নি ! সারাক্ষণ শুধু রঙিন কল্পনা তাঁর মাথায় ঘুরপাক খেত ! এর জন্য       

কবি-কে তাঁর পিতা ঈশ্বর পীযূষ কান্তি ভৌমিক মহাশয়ের কাছে উত্তম-মধ্যম খেতে হতো ! কবি~বিদ্যুৎ -এর বাল্যকাল কেটেছে শ্রীরামপুরের ঝিলবাগান অঞ্চলের তাঁর ঠাকুমার বাড়ি "কুসুমকুঞ্জে" ! ওই বাড়ি-       

তে তাঁর প্রচুর স্মৃতি ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে ! একান্নবর্তী পরিবারের স্মৃতি বলতে যা বোঝায় ! বিশাল একটা বাড়িতে তাঁর একটু-একটু করে বেড়ে ওঠা ! এত বড়ো বাড়িতে ছোট্ট একটা ঘরে কবি~বিদ্যুৎ -এর পিতা       

পীযূষ বাবুর দুই ছেলে রাজা ও রাণা এবং  স্ত্রী ছায়াদেবী-কে নিয়ে কষ্টে শিষ্টে সংসার চালাতেন । রাজা অর্থাৎ বড়ো ছেলে বিপ্লব । রাণা হলেন কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক । পরবর্তী সময় ছোট ছেলে পল্লব এবং           

একমাত্র কন্যা মন্দিরা জন্ম হয় । পীযূষ কান্তি ভৌমিক অর্থাৎ কবি~বিদ্যুৎ-এর পিতা  সেই সময় একটা বেসরকারি অফিসের  বেতনভুক কর্মচারী ছিলেন । খুব সামান্য উপার্জনে দুই ছেলে ও স্ত্রী-কে নিয়ে       

তাঁর সংসার চলছিলো কোন রকমে ! কি-যে কঠিন অবস্থার মধ্যে দিয়ে পীযূষ বাবু তাঁর সংসার-কে চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন , সেটা একমাত্র ঈশ্বরী জানেন ! এই ভাবে বহতা সময়ের ভেতর দিয়ে চলছিলো পীযূষ বাবুর     

সংসার !                                                                                                                                                                                                                                                                                          একটু-একটু করে বড়ো হতে লাগলেন সেদিনের সেই ছোট্ট বিদ্যুৎ ! ঝিলবাগানের বাড়িতে কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর সময় কেটেছে মাত্র ৮ বছর ! পরবর্তী সময়ে পারিবারিক মতোদৈনতার কারণে পীযূষ কান্তি বাবু     

ঝিল বাগানের মাতৃ ভিটে ছেড়ে নিজের তৈরি বাড়ি "ছায়ানীড়"-এ পরিবার নিয়ে চলে আসেন ! এর বছর চারেক আগে পীযূষ বাবুর ছোট ছেলে পল্লব-এর জন্ম হয় ! "ছায়ানীড়"-শ্রীরামপুরের ফিরিঙ্গী ডাঙা মল্লিকপাড়া     

  অঞ্চলের মধ্যে । ঝিল বাগান ছেড়ে ফিরিঙ্গী ডাঙা লেনের নিজের বাড়ি "ছায়ানীড়ে" চোলে  আসার পর  বছর চারেক পর পীযূষ বাবুর কন্যা মন্দিরার জন্ম হয় । মন্দিরা-র জন্মের পর পীযূষ বাবুর সংসার-টা একটু        সচ্ছল হয় ! তিন পুত্র এবং এক কন্যা-কে নিয়ে পীযূষ কান্তি ভৌমিক ও ছায়াদেবীর সংসারটা বেশ চলে যাচ্ছিলো ! এদিকে একটু-একটু বেড়ে উঠছিলেন আমাদের প্রিয় কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক । পিতার হাত ধরে তিনি     

পঞ্চম শ্রেণীতে ভর্তি হলেন রাজ্যধরপুর নেতাজী উচ্চ বিদ্যালয়ে । বিদ্যালয়ে পড়া-শোনা-র বদলে শেষের বেঞ্চে গোপনে চলছিল তাঁর ছড়া লেখা ! এই গোপনতা কি বেশিদিন গোপন থাকে ? শ্রেণী শিক্ষকের চোখে      ধরা পড়ে গেলেন সেদিনের সেই বিদ্যুৎ ! বাড়িতে চোলে গেলো তাঁর ছড়া লেখার খবর ! পিতার হাতে ওই দিন রাতে প্রচণ্ড মার ধোর খেয়েছিলেন কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক ! এতো সবের মধ্যেও কিন্তু থেমে থাকেনি তাঁর      ছড়া লেখার অভ্যাস ! ওই অল্প  বয়েসে সুকুমার সমগ্র , অন্নদা শঙ্কর , রবীন্দ্র শিশু পাঠ্য এবং নজরুল তিনি শেষ করে ফেলেছিলেন ! বিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে সকলকে অবাক করে দিতেন তাঁর কণ্ঠে  কবিতা         

  আবৃত্তি !                                                                                                                                                                                                                                                                                        এই সময়কার জনপ্রিয় কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক তাঁর কাব্য জীবন-কে অনেক সংগ্রাম , অনেক অবহেলা , প্রচুর উপেক্ষা-র মধ্যে দিয়ে সেই অল্প বয়স এগিয়ে নিয়ে গেছেন ! তাঁর মনটাকে কবিতার উপযুক্ত করে           

তুলে ছিলেন ! এখন এই মুহূর্তে তিনি বেশ কয়েকটি দেশের পাঠকের মন জয় করেছেন ! একমাত্র কবিতাকেই উপজীব্য করেই তিনি বিশ্বের পাঠকদের  মননে পৌঁছেছেন , এটা খুবই গর্বের বিষয় ! দুই বাংলা-য় তিনি      ভালোবাসার সেতু বন্ধন করেছেন তাঁর কবিতা দিয়ে-ই । আন্তর্জাতিক ক্ষেতে এই বিখ্যাত কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর সুনাম বহতা বাতাসে ছড়িয়ে আছে ! কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর প্রতি ক্যানাডার টরেন্টো থেকে      আমার শ্রদ্ধা ও প্রণাম জানাই । তাঁর দীর্ঘায়ু কামনা করছি !!     

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK