রবিবার, ১১ নভেম্বর ২০১৮
Tuesday, 10 Jul, 2018 11:42:19 am
No icon No icon No icon

প্রখ্যাত কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক সম্পর্কে কিছু মূল্যবান বার্তা


 প্রখ্যাত কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক সম্পর্কে কিছু মূল্যবান বার্তা

                                                                                                                                                                                                                                            
           [ এই সময়ের কবিতাপ্রাণ ও জনপ্রিয় কবি বিদ্যুৎ ভৌমিক ।
              তাঁর কবিতার প্রতি অনুরাগ আমাদের আপ্লুত করে । তাঁর 
              কাব্যগ্রন্থ > গাছবৃষ্টি চোখের পাতা ভিজিয়ে ছিলো " আমি 
              ভূমিকা লিখেছিলাম । ভীষণ মিষ্টি মানুষ হিসেবে এবং ***
             ব্যবহারটাও চমৎকার । ইদানিং কালের যেসব লেখা তিনি 
             লিখেছেন, তার মধ্যে জীবন, সময়, কালপ্রবাহ যেভাবে —
             ধরা পড়ে, তাও ভালোলাগার । তাঁর কবিতায় কোনো ছন্দ, 
            কখনো গদ্যের প্রবাহ দেখবার মতো বিষয় । শব্দ ব্যবহারে 
            সব - সময়ই যে সাবলীল তিনি তা কিন্তু নয় । বিষয় থেকে 
            বিষয়ান্তরে যাতায়াত রয়েছে কবি বিদ্যুৎ ভৌমিকের । কবি 
            বিদ্যুৎ - এর আগেও লিখেছেন, এর পরেও অনেক অনেক 
            দিন তিনি লিখবেন । তাঁর কবিতাগুলি সহজেই সংযুক্ত হয় 
            পাঠকের সঙ্গে আর শিল্পের শর্তও রক্ষিত হয় পূর্বাপর - ই ।
            কবি বিদ্যুৎ ভৌমিক জীবনকে দেখেছেন নানা কোণ থেকে,
            কোন একটি বিশেষ দৃষ্টিতে সীমাবদ্ধ নয় তাঁর মানসিকতা ।
            বৈচিত্রই, জীবনবিচিত্রতা - ই তাঁর বিষয় কবিতার ক্ষেত্রে ।
            কবি বিদ্যুৎ ভৌমিক আরো - আরো লিখবেন । বহুবর্ণ তাঁর 
            জীবন দুলে উঠবে তাঁর কবিতার ছত্রে - ছত্রে, এই আশায় 
            আমিও থাকবো আপনাদের মত *** সাংবাদিক আদিত্য বসু USA ]                                                                                                                                                                                                              
                                   ==================                                                                                                                                                                                                                                                     কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর দুটি কবিতা                                                                                                                                                                                                                                                   ========================                                                                                                                                                                                                                                                                     
           ¤¤ ~কথা  দর্পণ~ ¤¤                                                                                                                                                                                                                                                                      
    
                    পাঁচবার ডেকেছি প্রিয় নাম ধরে 
                    বারবার মহান হতে চেয়ে আকাশে উড়িয়ে দিয়েছি 
                    এক বুক ধোওয়া — ভেতর থেকে ছিঁড়েছি সব বয়সের 
                    শোক ; সেটা দেখেনি কাকপক্ষী 
                    এভাবে নিয়ম করে সুরক্ষিত হয় লবণ সমুদ্রের কান্নার 
                   চিহ্ন — ইচ্ছা হয় সর্বনাশ এবং অন্ধকার এই অস্তিত্বে 
                   প্রাণ পাক, বীজমন্ত্রে প্রহরী হয়েছে স্মৃতি ; সে     আমার যাবজ্জীবনের পাপ 
                   বহুতল ঊর্ধ্বে আকাশ পথ ; চোখে দেখা চকিতে 
                   হারিয়ে যাওয়া লুকানো অন্তরীক্ষ শেষে ! 
                  শেষবার এই রাস্তাতে গত জন্মের আয়না ভাঙার শব্দ 
                  পেতেই শিশুকালের বাতাস শরীরে লুকিয়েছিল ! 
                  কথার সূক্ষ্মতায় বিশেষ স্বপ্নগুলো ভাসমান এলোমেলো 
                  সেই থেকে অতলান্তিক আমিও অসহনীয় নির্ঘুমে চোখ 
                  বুজে আছি  ! সাদা পাতায় শব্দ ছড়িয়ে দিতেই অর্ধেক 
                  আকাশ ভ্রাম্যমাণ মেঘের কাছে অবিন্যস্ত ভুলগুলোকে 
                  বলেছে বিকেলে দেখা করতে  ! মন খারাপ নিয়ে ঘুম 
                  ভাঙলে সংখ্যাতীত প্রবাহে উড়ে যায় যাবতীয় অশরীর 
                  কথা **** শহরের সব রাস্তায় চিরকালের অসুখ, —
                  অর্থাৎ নিষ্পলক হয়ে থাকার কথা ব্যক্তিগত চোখে 
                  চেয়েছিলাম *** রোজ কেউ না কেউ ফিরে যায় দরজা 
                 ডিঙিয়ে !                                                                                                                                                                                                                                                                                     
                 রোজ ঘুমের পথে প্রিয় মুখগুলো নির্বোধ হয়ে ঘোরে 
                 নানান প্রবাহে, — বাকি একটু পথ ; ওখানে পৃথিবীর 
                 ছিন্ন ভিন্ন শ্মশান - আঁধার ****
                 এই একান্ত নির্ঘুম জীবন এর মধ্যে পকেট ভর্তি 
                 নিঃশ্বাস - প্রশ্বাস  ! এসব আমার কবিতার সঙ্গে অদোল 
                 বদোল হয়ে থাকে  !  শহরটা এখন চেনা যায়না *****
                 প্রতিদিনের ভাসমান চুপ কথা কপালের বলিরেখা থেকে
                উঠে এলে কাঙালের মত মধ্যরাতে চোখ বুজে ক্ষমা চাই 
                নিজের কাছে নিজেই  !! 
                            
      ¤¤ ~বিষ কুসুমের বনে~ ¤¤                                                                                                                                                                                                                                                                       
        
                এক ধবল বাঘিনী সময় খায় 
                তথাপি ছাঙ্গুলের দোষ কি আছে আসা, বুঝিয়ে পারিনি 
                বলতে *** বর্ণ বিপর্যয়ের নির্ঘুম চুড়ান্ত দশা 
                অভ্যাসে ফাজিল সেই নবনীতার বিষফনা *****
                কুলকলঙ্কিনী ; ওর দেহে আঁশফল আফিঙের ফুল, 
               সে শুধু শাসন করে ইস্পাতের মতো নির্বান্ধব 
               স্নানের নিশাজলে প্রত্যন্তে ডুবে  ! 
               মননে ছায়ার বিহ্বলতা, এভাবে তল থেকে অতল 
              হয়েছে ভ্যানিস — কি জানি, সেই থেকে অন্ধকারের 
              রামধনু মিশে ছিল কিনা **** হোলিোট্রোপের রূপ ঘাসের 
              কীটের মুখে ভয়ে ভয়ে থাকে 
              সে যেন গাছের শাখাতে বসে শিস্ দিয়ে ডাকে ! 
              অমৃত নদীটির পাশে কবিতার মতো শব্দ - শব্দ রেখা 
              সাপের খোলস ; ন্যালা খ্যাপা হাওয়ার নানানরকম 
              সত্য - মিথ্যা ***** গভীরে জ্যোৎস্নার খেয়ালি নাচন ****
              সিদ্ধির নেশায় দোলে তালপাতার পাখা 
              সেই বাঘিনী পড়েছিল ধরা বিষকুসুমের বনে, —
             সে বুঝি চোখের সাজঘরে পুষে রেখেছিল স্মৃতির 
             শোভনতা   !!                                                                                                                                                                                                                                                                                            
            ************************************************
             ( "গাছবৃষ্টি চোখের পাতা ভিজিয়ে ছিলো", কাব্যগ্রন্থ থেকে ) 
           *************************************************
        ¤¤ কবি বিদ্যুৎ ভৌমিক ¤¤
                ৬৫ /১৭, ফিরিঙ্গি ডাঙা রোড, শ্রীরামপুর, হুগলি, 
                সূচক ৭১২২০৩ পশ্চিমবঙ্গ, ভারতবর্ষ,                                                                                                                                                                                                                                              মোবাইল~৮৬৯৭৯৪১৪৪৯ 

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK