মঙ্গলবার, ১৪ আগস্ট ২০১৮
Sunday, 10 Jun, 2018 12:52:47 pm
No icon No icon No icon

দোহাই তোমাদের-মধ্যপ্রাচ্যে নয় গৃহকর্মী


দোহাই তোমাদের-মধ্যপ্রাচ্যে নয় গৃহকর্মী


লেখক : মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা)
চিৎকার শুননা, চিৎকার
 হৃদয়বিদারী চিৎকার
মরু তপ্ত বালুকায় 
মধ্যপ্রাচ্যে, বাংলার মা-বোনদের, আর্তচিৎকার।

আদরের বোন, মা সহ, বাঙালি নারী
ভয়ানক বিপদে আছে ওরা
কিছু কিছু বেদুইন, কিছু আরব 
অসভ্য লালসার কারাগারে, নির্মমতার স্বীকারে যে, মা ও বোনেরা। 

ভাল-মন্দ যে বুঝেনা এ মা ও বোনেরা, মিষ্টি কথাই বুঝে
শুনেছিল, আশ্বাসের বাণী, হয়েছিল স্বপ্নের হাতছানির গ্রহীতা
অভাব, দারিদ্রতা, মূর্খতা, অসহায়ত্বতা ওদের গ্রাস করেছে
ভাগ্য অন্বেষনে, কিছু আরব বেনিয়া ও বাংলার কুচক্রীর আহ্বানে, এখন অনেকে নির্যাতিতা।

 স্বপ্নের মায়াজাল
অসহায়, নিপীড়িত, বাঙালি নারীরে যে
 আরবে, মানুষ নামের বাঘের খাঁচায় ফেলছে
গত ক’ বছরে নাকি, সাত লাখ নারী নাকি, সেখানে গেছে।

 প্রানপ্রিয় বোন ও স্বজনেরা
ভাল থাক, আরো ভাল, সেদেশে
নির্যাতন-নির্মমতা না পাক আর
নির্মমতা দেখে, এভাবে আর, ফিরে না আসুক, স্বদেশে।

মানুষ মানুষকে, প্রহার করবে
পর্যাপ্ত দিবেনা আহার
 এ কেমন বল, ধর্মীয় রাষ্ট্র
কিছু, কিছু জায়গায়, শান্তির ধর্মের, এতই অনাচার।

মধ্যপ্রাচ্যে, কিছু, কিছু দেশে, আইনের শাসন কেন, এত হবে দূর্বল
উন্মাদনা, উল্লাসের নির্লিপ্ত খেলার, পৈশাচিক বর্ণনা, কেউ শুনতে চায়না
বাংলার নারীরা, কলংকিত, নির্যাতিত, নিপীড়িত, আর হতে দেয়া যাবে না
এমন বর্বর আচরণ যাদের, তাদের সাথে মহিলা শ্রমের, আদান-প্রদান আর না।

কন্যা, জয়া, জননী সে যে, বিশ্ব বিধাতার অপার সৃষ্টি
সেই নারী জাতিকে, এত অত্যাচার , এত অপমান, এত যৌনহয়রানি
সইবনা আর মোরা, বাঙালি জাতি, প্রতিরোধ করব
অমন বৈদেশিক মুদ্রার প্রয়োজন নেই আমাদের, অতখানি।

ইন্দোনেশিয়া, ভারত ও ফিলিপাইন,  সংকুচিত করেছে, গৃহকর্মী প্রেরণে, মধ্যপ্রাচ্যে
নারী গৃহকর্মীদের আর নয়, গৃহকর্মে নিয়োগ, ও দেশগুলোতে এখন হতে
সারাবিশ্বকে বুঝতে হবে, বাংলাদেশ আগের মত নেই
উন্নয়নশীল দেশের কাতারে এসেছে, বর্তমানে সু-প্রভাতে।

বাংলার, ঘরে, ঘরেই যে, এখন প্রতিজন, শ্রমশক্তির আধার
বিদেশিরাও অনেকে এখন, বাংলাদেশে কর্ম করে চলছে
হাভাতে, মূর্খ, মিসকিনের দেশ বলে, আর নয়, টিপ্পনি
আলো যাদের আছে, ছড়িয়ে দাও চারিধারে, দেখবে, ফুলে, ফুলে দেশ হাসছে।

সতর্ক হও, কোন মা-বোন যেন আর, আঁধারে না হারায়, মধ্যপ্রাচ্যে
শক্ত প্রতিরোধ, বেষ্টনী তৈরী করতে হবে, শক্ত করে
অভাব, দারিদ্রতা, অনাহার ও বঞ্চনা
সব দেশে, সব খানেই আছে, তবুও বাঁচতে হবে আত্ম-সম্মান ভরে।

গৃহকর্মী হয়ে, মা-বোনদের, আর নয় বিদেশ যাত্রা
যৌন-নির্যাতন, লাঞ্ছনা, অপমানে, মা-বোনদের ছোট হতে আর দিবনা
বাংলার নারীরা যে, মোদের দেশের সম্মানের ধারক-বাহক
মা-মাটি, দেশকেতো কখনো, অপমানিত হতে, দেখতে পারবোনা।

চৌদ্দ কোটি মানুষ, বাংলার বুকে
একের জনের বুকটা, আকাশের সমান
হাজারো নির্যাতন (রোহিঙ্গা), নিপীড়নে উদারতার প্রমান দিয়েছে বাঙালি
কিছু আরবীদেরতো আর, করতে দিবনা, মোদের মা-বোনদের অপমান।

যে ভুলে, ভ্রান্তিতে, মা-বোনেরা, মধ্যপ্রাচ্যে, বিপদে
তাদের পাশে, দাঁড়ানোর সময়, এখনি হয়েছে
কর্মঘন্টার পরে (০৮/১০), আর কেউ, মনিবের বাড়ি থাকবেনা, এখন হতে
আলাদা বাসস্থানে, রাখলেই, ভাবব, তারা নিরাপদে রয়েছে।

গৃহকর্মী মা-বোনদের, চুক্তি ভিত্তিক
বেতন-ভাতা যেন, তারা, সঠিক সময়ে পায়
নিজদেশে যেন, পারিবার-পরিজনের সাথে, যোগাযোগ রাখতে পারে
সরকার যেন, সে ব্যাপারে, কঠোর ও আন্তরিক হয়।

বিদেশের মাটিতে সকল শ্রমবান্ধব বোন ও ভাইরে
কর্মযোগ্যে থাকুক, উৎফুল্ল ও নিরাপদ
মা বোনদের ইজ্জত আব্রু যে, দেশের তাজমহ
একে রক্ষা না করতে পারলে, দেশাত্মবোধের তরে যে, হয়ে যাবে বড় অপরাধ।

****************************

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK