শুক্রবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৮
Thursday, 11 Jan, 2018 12:40:22 pm
No icon No icon No icon

টাইমস ২৪ ডটনেটের জনপ্রিয় কবি ও লেখক সাবেক সেনা কর্মকর্তা মো: জাহাঙ্গীর হোসেনের ৪টি কবিতা


টাইমস ২৪ ডটনেটের জনপ্রিয় কবি ও লেখক সাবেক সেনা কর্মকর্তা মো: জাহাঙ্গীর হোসেনের ৪টি কবিতা


শীতবস্ত্রে উষ্ণ থাকুক মানবতা
লেখক : মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা)

সূর্যটার উপর ভীষণ রাগ হয়
এভাবে কি সে ঘুমিয়ে থাকতে পারে
দেখেনা কেনো, গৃহহীন নিঃস্ব মানুষ
শীতবস্ত্রহীন, শীতার্ত রাতে, অসহায়ত্বের তরে।

উঠোনা সূর্য, একটু আগে, পরশ লাগাও না গায়ে
গরীব বলে, দেখা দিবে কি দেরিতে, ভোরে
উষ্ণ পরশের বস্ত্রে, ধনবানরা ঘুমিয়ে
অনেকেরই যে সময় নেই, মোদের দিকে, তাকিয়ে দেথার তরে।

মহান স্রষ্টার, একটাই তো সূর্য তুমি
জাত-ভেদ, উচু-নিচু, ধনী-গরীবের তরে, নেই ভেদাভেদ
মানুষ আমরা , কত দেয়াল, মানুষে, মানুষে
ভেঙে যাক দেয়াল, নিঃস্ব পীড়িত, শীতার্ত মানুষের চিৎকারে
চিৎকারের এই শব্দ ধ্বনি
কেনো পৌছাবে না সকলের কানে।

কানের শ্রবনে মানবতার চিৎকারে
মানবতা এগিয়ে আসে যেন নিঃস্ব শীতার্ত জনের সনে।

মানুষের দুঃখেতো, মোরা সবাই দুঃখিত হই
কেন তবে হাত বাড়াবো না, শীতার্ত নিঃস্ব গরীবের পানে।
কি পেলে কি পেলে না, ভেবো না এ কথা
জেনো, স্রষ্টা যে তোমার সনে।

পাওয়ার আশায় হাত বাড়িও না
হাত বাড়াও, মনো অন্তর থেকে
মানবতার হাসিইতো, প্রকৃত ফুলের প্রস্ফুটন
নিঃস্ব, শীতার্ত, মানুয়েরা, বাচুক না, উষ্ণ শীত বস্ত্রতে ঢেকে।

***************************

সুখের পরশই শুধু লাগুক
লেখক : মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা)

বিরহী এ মন টা আমার
বিরহ বিবাগে কাঁদে
পাবার আশায় বিশাল হৃদয় নিয়ে হাত বাড়াই
ভরে মন কেবলই বিহাগে।

বিহাদের সুরে হৃদয় আয়না ভাঙ্গে
ক্রিস্টাল কাচের ন্যায়ই, বুঝি ধর্ম
জোড়া লাগে না, জোড়া নেয় না
ভালই লাগে না, কোন কর্ম।

কর্ম ব্যস্ততায়, দিবা কেটে যায়
নিশি কুটুম্বের বড় আনাগোনা
কচু পাতার গায়ে শিশির থাকতে পারে না
তবুও দুঃখ ব্যথা মনে কত চেনা।

চেনা জানা দুঃখকে চায় না কেউ
তবুও সে সকলের বড় আপন
দুঃখের পাহাড় পেরিয়েই ভুবন
এটাই বুঝি যাপিত জীবন।

কলকাকলিতে ভরা চারিধার
চারিধারে আলো বাতাস, নহরের বন্যা
দুঃখ যে কেনো আসে জীবনে
সুখ স্বাচ্ছন্দের শুধুই বয়ে যাক না ঝরনা।

***********************

হরতাল
লেখক : মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা)

কুয়াশার ঘন শুভ্র অন্ধকারের মাঝে
হিংস্র হায়নার থাবা পরে যে সাঁঝে।

রাজনীতি, রাজার নীতি, না গনতন্ত্র
অতশত বুঝি না, দেখি কত ষড়যন্ত্র।

সকাল ছয়টা হতে সন্ধা ছয়টা পর্যন্ত
বিরোধী দলের চর্চার মাঝে, আজ গনতন্ত্র।

নীতিকথা, নীতিবাক্য, কি মূল্যবোধ
কাব্য জাগ্রত, বাস্তবে যে অবোধ।

হরতালের ভাষা বড়ই কঠিন, বড়ই নির্মম
নিরীহ মানুষ, ভাষাহীন, তারা বড়ই অক্ষম।

রাজনৈতিক বক্তব্যের অগ্নিঝরা ভাষনে
দিশেহারা মানুষ, কিছু দুর্জনের কারনে।

মনের ভাষা, মানুষের দাবী
সুস্থ হরতাল, দেখাতে পারে, সুস্থ্য গনতন্ত্রের ছবি।

কুটিল, অসুস্থ, অসুন্দর মানসিকতা
জ্বালাও পুড়াও করে, হরতালের গণতান্ত্রিক ভাষা, দেখে ব্যর্থতা।

জীবন সুন্দর, জীবন বহমান
সুস্থ গণতান্ত্রিক হরতাল করবে, জীবনকে আগুয়ান।

হরতালে-হিংস্রতা, পঙ্কিলতা আর দুর্ধর্ষ কর্ম
মানবতা ধিক্কার দিবে গণতন্ত্রের কাছে, হরতাল হবে দুস্কর্ম।

হরতাল হল, গনতন্ত্রের প্রতিবাদের সুস্থ্য ভাষা
প্রতিনিয়ত, মাঝে মাঝে অসুস্থ হরতালের নামে 
বাড়ানো হচ্ছে নিরাশা।

সুস্থ সুন্দরের মনন নিয়ে মানুষ আজ 
বড় প্রতিবাদ মুখি বড় সোচ্চার
অসুস্থ হরতাল কে তাড়িয়ে দিবে
দেশকে দিবে গণতন্ত্রের সুস্থ, সুন্দরের বাহার।

***********************

প্রবাসীর ব্যথা
লেখক : মো: জাহাঙ্গীর হোসেন (সাবেক সেনা কর্মকর্তা)

কেমনে আমি বুঝাই তোমাদের
দর্পনে দেখি যে মোর মুখ
বাস্তবতার দর্পন এসে বলে
দেখতে হবে তোমায় সকলের দুখ।

দুঃখের পাহাড় দেখে দেখে যখন
হয়েছিলাম ক্লান্ত পরিশ্রান্ত
ধানের জমি বিক্রি করে
বিদেশ বিভুই, এসে বুঝি হলেম আমি শান্ত।

দেশ মাতারে বড়ই মনে পড়ে
ফেলে এসেছি ছোট্ট বোন
নিজের কথা না হয়, নাই ভাবলাম
প্রদান করতে পারব কি ওদের সুখ।

ছোট্ট ভাইটি বড় হল
স্কুল পেরিয়ে যাচ্ছে কলেজে
সাইকেল তো আর মানায় না যে
মোটরসাইকেল, সেটা কি দেয়া যায় সহজে।

বোনটি এখন আমার সাবালিকা
বিয়ের বয়স হয়েছে
ভাল পাত্রে দান করিতে
আরো ঘাম ঝরাতে হবে, আমাকে।

চোখে আমার রঙিন চশমা
পিছনে ঝকমকে অট্টালিকার আলো
ছবিগুলো দেখে বাবা যে বলে
বেশতো, ছেলে তো আছে মোর ভালো।

মা যে আমার চরম দুঃখীনি
চোখে দেখে না খুব বেশি
ছবি দেখে বলে, শুকিয়ে যে খোকা আমার
ফিরে আয় খোকা, এতেই আমি খুশি।

ভাই বোনেরা ছেলে মানুষ 
বুঝে না অত কিছু
ওরা কেবল ছুটে শুধু 
আভিজাত্যের পিছু।

অশ্রু ফোঁটা ঝরে যখন
প্রবাসীর বুক ফেটে
ক’জন বল দেখে তেমন করে
ক’জনের সময় আছে।

সংবাদে কেবলই শুনে প্রবাসী
কারি কারি রেমিটেন্সের কথা
সত্যিকারের মানুষ আছে ক’জন
শুনবে প্রবাসীর ব্যথা।

*******************

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK