শনিবার, ২২ জুন ২০১৯
Wednesday, 05 Jun, 2019 05:53:46 pm
No icon No icon No icon

ঈদ উপলক্ষে একে অপরকে মিষ্টি মুখ করিয়ে শান্তির বার্তা দুই দেশের সেনার

//

ঈদ উপলক্ষে একে অপরকে মিষ্টি মুখ করিয়ে শান্তির বার্তা দুই দেশের সেনার


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: এমনিতেই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দুই দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকেছে। কার্যত ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে যুদ্ধ যুদ্ধ রব। কিন্তু একটা উপলক্ষ্য দুই দেশকে কাছাকাছি আনল। আর তা হল ইদ। আজ গোটা দেশজুররে ইদ উৎসব পালিত হচ্ছে। সেখানে আটারি-ওয়াঘা সীমান্তে দুই দেশের জওয়ানরা একে অপরকে মিষ্টিমুখ করিয়ে শান্তির বার্তা দিলেন। আজ ভারতের পাশাপাশি পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, অস্ট্রেলিয়া এবং বাকি এশিয়ার দেশগুলিতেও ইদ উৎসব পালন করা হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, ভারত এবং পাকিস্তান এই দুই দেশের সেনা জওয়ানরা হাসি মুখে একে অপরকে মিষ্টিমুখ করাচ্ছেন। অন্যদিকে, ভারত এবং বাংলাদেশের সেনা জওয়ানরা বাংলার ফুলবাড়ি সীমান্তে একে অপরকে মিষ্টি বিতরণ করছেন। দেশজুড়ে পালিত হচ্ছে খুশির ইদ। সকাল থেকেই মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষেরা নতুন জামা-কাপড় পড়ে নামাজ পাঠ করছেন। দেশবাসীকে ইদের শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়ে টুইট করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী সহ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা।

রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ মঙ্গলবার রাতেই সকলকে ইদের শুভেচ্ছা বার্তা দিয়ে টুইট করেছেন। ইদ-উল-ফিতর-সম্প্রীতির উত্সব জানিয়ে টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘দেশে এবং বিদেশের প্রবাসী সমস্ত মুসলিম ভাই-বোনেদের জানাই ইদ মুবারক। এই উত্সব আমাদের দানশীলতা, সৌভ্রাতৃত্ব এবং সমবেদনার প্রতি আমাদের বিশ্বাসকে দৃঢ় করে তোলে। আশা করি এই উত্সব প্রত্যেকের জীবনে আনন্দ এবং সমৃদ্ধি নিয়ে আসবে।’ ইদ-উল-ফিতর-এর মধ্য দিয়ে দেশে শান্তি ও সম্প্রীতি ফিরে আসবে বলে আশাবাদী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দেশবাসীকে ইদের শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘আশা করি, এই বিশেষ দিনটি আমাদের সমাজে সম্প্রীতি, সমবেদনা ও শান্তির মনোভাবকে জাগিয়ে তুলবে। সকলেই সৌভাগ্যের অধিকারী হবে।’
সূত্র: মহানগর ২৪x৭

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK