মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯
Saturday, 13 Apr, 2019 05:35:20 pm
No icon No icon No icon

ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর সমর্থনে ইরানব্যাপী মিছিল

//

ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর সমর্থনে ইরানব্যাপী মিছিল


টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বে-আইনি এবং শত্রুতামূলক পদক্ষেপের প্রতিবাদে ইরানের আপামর জনগণ গতকাল জুমার নামাজ শেষে দেশব্যাপী মিছিল করেছে। আইআরজিসি'র প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে মিছিলকারীরা একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে আমেরিকা বিশ্বব্যাপী রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস চালাচ্ছে। ইয়েমেন, নাইজেরিয়া, বাহরাইন, ফিলিস্তিন, আফগানিস্তান, সিরিয়া এবং ইরাকসহ বিশ্বের বহু দেশে তারাই নিরীহ জনগণের ওপর পাশবিক নির্যাতন চালাচ্ছে। বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে বিশ্বে যত মজলুম দেশ ও জনগোষ্ঠি ইসরাইল ও আমেরিকার আধিপত্যবাদী আগ্রাসনের শিকার তাদের পক্ষে ইরান সর্বশক্তি দিয়ে সাহায্য করে যাবে। কেননা এই সমর্থন ও সহযোগিতাকে ইরান ধর্মীয়, মানবিক এবং বিপ্লবী দায়িত্ব বলে মনে করে।


বিপ্লবী গার্ড বাহিনী
মার্কিন সরকার গত ৮ এপ্রিল আন্তর্জাতিক সকল রীতিনীতি ভঙ্গ করে ইরানের জাতীয় ও সামরিক বাহিনীর অংশ আইআরজিসিকে "সন্ত্রাসী" হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে। আমেরিকা এই প্রথমবারের মতো কোনো দেশের জাতীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে এ ধরনের পদক্ষেপ নিলো। আমেরিকার এই কাণ্ডজ্ঞানহীন সিদ্ধান্ত সমগ্র পশ্চিম এশিয়াসহ বিশ্বব্যাপী ভয়াবহ নিরাপত্তাহীন পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারে।

বিশেষজ্ঞগণ মনে করছেন মার্কিন এই সিদ্ধান্ত ইরানকে যতোটা চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দিয়েছে তারচেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে স্বয়ং আমেরিকা। মার্কিন ফরেন পলিসি ম্যাগাজিন আইআরজিসি'র শক্তি ও ক্ষমতার কথা স্বীকার করে লিখেছে, ইরান যখন তখন আমেরিকার বিরুদ্ধে সামরিক উত্তেজনা বৃদ্ধি করার মতো ক্ষমতা রাখে। ইরানের হাতে সেরকম বহু অপশন রয়েছে। মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন এই কাজ নাকি তারা বিদেশি কোম্পানিগুলোকে ইরানের সঙ্গে বাণিজ্যের ব্যাপারে ভয় দেখানোর জন্য করেছেন। যদিও সচেতন মহল ঠিকই বোঝেন যে এটা প্রচারগত সুবিধা নেয়ার একটা কৌশলমাত্র।


মিছিলের একাংশ
ইরানের সামরিক বাহিনীর গ্রাউন্ড ফোর্সেসের কমান্ডার কিউমার্স হায়দারি আমেরিকার এই আহাম্মকিপূর্ণ সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, একটি স্বাধীন দেশের সার্বভৌমত্ব বিরোধী এমনকি জাতিসংঘ সনদ বিরোধী এই পদক্ষেপের পরিণতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবার আশংকা রয়েছে।বিশ্বব্যাপী মার্কিন সেনাদের নিরাপত্তা এমনকি সেন্টকমের নিরাপত্তাও সার্বক্ষণিক হুমকির মুখে পড়তে পারে। তার দায়-দায়িত্ব আমেরিকা এবং তাদের মদদপুষ্ট সরকারগুলোকেই নিতে হবে বলে গতকাল এক চিঠিতে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাতিসংঘ মহাসচিবকে জানিয়েছেন।

সূত্র: পার্সটুডে।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK