শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯
Friday, 12 Apr, 2019 09:37:53 am
No icon No icon No icon

মাত্র ৩৭ বছর বয়সে ৩৮ টি সন্তানের মা হয়ে বিশ্ব রেকর্ড


মাত্র ৩৭ বছর বয়সে ৩৮ টি সন্তানের মা হয়ে বিশ্ব রেকর্ড


টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: উগান্ডার কামিবিরি গ্রামের মধ্যম বয়সী এক নারীর নাম মরিয়ম নাবাতানজি। সাদামাটা গ্রামীণ এই নারী মাত্র ৩৭ বছর বয়সে ৩৮টি সন্তানের গর্ভধারিনী মা হয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন। পাঁচটি কক্ষ নিয়ে মহিলার বিশাল এক উঠান। অপরিচিত কেউ দূর থেকে মনে করবে- এটা একটা স্কুল, যেখানে শিশুরা আপন মনে খেলাধুলা করছে। সামনে গেলেই ভুল সংশোধন হবে- এটা কোনো স্কুল নয়; এটি মারিয়াম নাবাতানজির বসত ঘর। শিশুগুলোও সব ওই নারীর গর্ভের সন্তান। উগান্ডায় ৩৭ বছর বয়সী এই নারী ৩৮ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। বিশ্ব মিডিয়া এই নারীর খবর প্রচার করে রীতিমতো হইচই ফেলে দিয়েছে। সৌভাগ্যবান এই নারীর বাড়ি উগান্ডার মুকোনো জেলার কাবিমবিরি গ্রামে।
আলোড়ন সৃষ্টিকারী এই নারীকে নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ডেইলি মনিটর, ইয়াহু নিউজ, আফ্রিকান নিউজসহ বিশ্বের নামকরা সব নিউজ এজেন্সি। প্রতিবেদনে বলা হয়, সন্তানদের মধ্যে ছেলেই বেশি। তিনি ২৬ ছেলে ও ১২ মেয়ে সন্তানের জন্ম দেন। সবার বড় সন্তানের বয়স এখন ২৩ বছর চলছে। আর সবার ছোটটির বয়স মাত্র ১০ মাস।
মজার কিছু তথ্য জানিয়েছে ডেইলি মনিটর। তারা জানায়, মারিয়াম নাবাতানজি ছয় বার যমজ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। এর মধ্যে একসঙ্গে তিনটি করে সন্তান জন্ম দিয়েছেন চারবার। একসঙ্গে চারটি করে সন্তান জন্ম দিয়েছেন তিনবার। বাকি দুটি সন্তান এককভাবে পৃথিবীর মুখ দেখেছে।
স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানায়, ওই নারীর ফার্টিলিটি (সন্তান উৎপাদন ক্ষমতা) এত বেশি যে, তার শরীরে কোনো জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি কাজ করতে পারে না। যতবার সে জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি গ্রহণ করেছে ততবার তাকে বিরূপ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সন্মুখীন হতে হয়েছে।

যেভাবে দিন কাটে মারিয়ামের
মরিয়ামের দিনের শুরু হয় কাপড় ধোয়া দিয়ে। খুব সকালে ঘুম থেকে উঠে এতগুলো সন্তানের ময়লা হওয়া কাপড়গুলো ধুতে যান। কাপড়গুলো ধুতে ধুতেই সকালের নাস্তার সময় হয়ে যায় তার। এর মধ্যে গৃহস্থালীর অন্য কাজগুলোও সারেন। নাস্তার সময় সব ছেলেমেয়েদের গোল করে বসান। একবারে কিনে আনা রুটি দিয়ে তাদের হয় না। একাধিকবার দোকানে যেতে হয়।
তারপর বাচ্চাদের স্কুলে পাঠান। চলে দুপুরের খাবারের আয়োজন। এসব কিছুতেই সময় চলে যায় মরিয়মের। একটুও বিশ্রামের ফুসরত নেই তার। তার বড় ছেলে চার্লস মুসিসি (২৩) বলেন, ‘আমরা আমাদের বড় হওয়ার ক্ষেত্রে বাবার কোনো আদর পাইনি। সব পেয়েছি মায়ের কাছে। আমি নির্দ্বিধায় বলতে পারি, আমার ভাইবোন জানে না বাবা কী জিনিস। আমি তাকে সর্বশেষ ১৩ বছর বয়সে দেখেছিলাম। তিনি শুধু রাতে আসেন।’

প্রথম গর্ভবতী হওয়ার গল্প
তিনি ১৯৯৪ সালে প্রথম অন্তঃস্বত্ত্বা হন। মাত্র ১৩ বছর বয়সে তিনি প্রথম সন্তান জন্ম দেন। গ্রামের নিজস্ব নিয়ম মতই তিনি সন্তান জন্ম দেন। ওই প্রসবের ধাত্রী ছিলেন তার আপন দাদি। এরমধ্যে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা থাকাকালীন ৫টি শিশু তার পেটে নষ্টও হয়েছে। যখন তার ১৮টি সন্তান হয়েছিল তখন তিনি গর্ভবতী হওয়া বন্ধ করতে চেয়েছিলেন।

সূত্র: এএনএম নিউজ।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK