রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯
Tuesday, 15 Jan, 2019 04:19:25 pm
No icon No icon No icon

আবার পরমাণু অস্ত্রের পথে ইরান

//

আবার পরমাণু অস্ত্রের পথে ইরান

টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরান পরমাণু প্রযুক্তিতে নতুন অধ্যায়ের সূচনা করতে যাচ্ছে। পরমাণু বোমা তৈরির কাঁচামাল ইউরোনিয়াম আরও ২০ শতাংশ বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির আণবিক শক্তি সংস্থার প্রধান আলি আকবর সালেহি। পেন্টাগনকে ইরানে হামলা প্রস্তুতির নির্দেশ দিয়েছে হোয়াইট হাউস- বিশ্ব  গণমাধ্যমে এমন খবর প্রকাশের পর রোববার এ হুশিয়ারি দেন তিনি। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ইরানের এ পদক্ষেপ যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের জন্য সরাসরি হুমকি। 

রোববার  গণমাধ্যমে  ’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে সালেহি বলেন, ‘তারা পরমাণু বিজ্ঞান ও শিল্পে এমন অগ্রগতি অর্জন করেছেন যে নিজেরাই নতুন জ্বালানি তৈরির ব্যবস্থা নিতে সক্ষম। তারা এখন ২০ শতাংশ বিশুদ্ধ ইউরেনিয়াম আহরণের পদক্ষেপ নিচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘নতুন ২০ শতাংশ ইউরোনিয়াম উৎপাদন আগের জ্বালানি উৎপাদনের চেয়ে আলাদা। আমরা যেকোনো মুহূর্তেই একটি উন্নতমানের পারমাণবিক চুল্লির নকশা তৈরি করতে পারি।’


আন্তর্জাতিক রীতি এর চেয়ে অনেক কম বিশুদ্ধ ইউরেনিয়াম আহরণকে সমর্থন করে। ২০১৫ সালে বিশ্বের ছয় পরাশক্তি দেশের সঙ্গে তেহরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু চুক্তিতে ইরানের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের বিষয়টি বেঁধে দেয়া হয়।

চুক্তিতে বলা হয়, ইরান ৩ দশমিক ৫০ শতাংশ ইউরেনিয়াম আহরণ করতে পারবে, যা ৩০০ কেজি ইউরোনিয়ামের বেশি হবে না। চুক্তির আগে ইরানের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ ২০ শতাংশে পৌঁছে গিয়েছিল। পরমাণু বোমা তৈরির জন্য ইউরেনিয়াম ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ সমৃদ্ধ করা প্রয়োজন। তবে ২০ শতাংশ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণকে পারমাণবিক শক্তি উৎপাদনে প্রয়োজনের চেয়ে বেশি বলে বিবেচনা করা হয়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চুক্তিটিকে ‘দুর্বল’ অ্যাখ্যা দিয়ে গত বছর ইরান চুক্তি থেকে বেরিয়ে যান। চুক্তি থেকে বেরিয়ে ইরানের ওপর আরও কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র। ইরানও পাল্টা ইউরোনিয়াম সমৃদ্ধিকরণের হুমকি দিয়েছে।

এদিকে, ইমাম খোমেনি স্পেস সেন্টার থেকে মহাকাশের কক্ষপথে স্যাটেলাইট নিক্ষেপ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে ইরান। যুক্তরাষ্ট্রের ভয়, এই স্যাটেলাইট ব্যবহার করে আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করতে পারে দেশটি। যদিও ইরান এ ধরনের পদক্ষেপের ব্যাপারে কিছুই জানায়নি।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এমন হুশিয়ারি দিয়েছেন। ইরানের সিমর্গ রকেট থেকে এ স্যাটেলাইট ছোড়া হতে পারে। পম্পেও’র দাবি, ‘ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়তে প্রযুক্তিগত দিক থেকে সক্ষমতার পথে এগোচ্ছে ইরান।

আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা ঝুঁকিতে ফেলবে ইরানের এমন ধ্বংসাত্মক পদক্ষেপগুলো বসে বসে দেখবে না যুক্তরাষ্ট্র।’ পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষায় সক্ষম এমন স্যাটেলাইট নিক্ষেপ করা হবে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের রেজল্যুশনের লঙ্ঘন।

রোববার বর্তমান  মার্কিন কর্মকতা   জানায়, ইরানের সামরিক অভিযান চালানোর সব প্রস্তুতি ও পরিকল্পনার নির্দেশ দিয়েছিল হোয়াইট হাউস।

প্রতিরক্ষা বিভাগ পেন্টাগনকে হামলার সম্ভাব্য ‘সব অপশন’ খতিয়ে দেখতে গত বছরের সেপ্টেম্বরেই নির্দেশ দেন ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন।  দাবি করা হয়, সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে ইরাকের বাগদাদে মার্কিন দূতাবাস লক্ষ্য করে একটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার পর এই নির্দেশ দেয়া হয়।

জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের কর্মকর্তাদের দাবি, ইরান সমর্থিত একটি গোষ্ঠীই ওই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে বলে নিশ্চিত হয়েছে তারা। গত বছরের ৯ এপ্রিল বোল্টনকে নিরাপত্তা উপদেষ্টা হিসাবে নিয়োগ দেন ট্রাম্প। তার দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই গুঞ্জন শুরু হয়, ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানের প্রস্তুতি নিতে শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK