রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯
Sunday, 13 Jan, 2019 06:43:35 pm
No icon No icon No icon

এবার তুরস্কের সঙ্গে সিরিয়ার যুদ্ধ বাধার আশঙ্কা

//

এবার তুরস্কের সঙ্গে সিরিয়ার যুদ্ধ বাধার আশঙ্কা

টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের কাজ শুরু হলেও নতুন করে সামরিক উত্তেজনা দেখা দিয়েছে দেশটিতে। ইদলিব সীমান্তে তুর্কি সেনা মোতায়েনের জেরে মানবিজে সামরিক উপস্থিতি জোরদার শুরু করেছে সিরিয়ার আসাদ সরকার। ট্যাঙ্ক থেকে শুরু করে মোতায়েন করা হয়েছে ভারী অস্ত্র। এদিকে, সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়ার মধ্যেই দেইর আল জোর প্রদেশে মার্কিন জোটের বিমান হামলায় নিহত হয়েছে ১১ বেসামরিক নাগরিক। সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া শুরুর পর দেশটিতে দীর্ঘদিনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের সমাপ্তির আশা জাগলেও তা আবারো ফিকে হয়ে গেছে। শনিবার সিরিয়ার ইদলিব সীমান্তে নিজ ভূখণ্ডে সামরিক উপস্থিতি জোরদার করে তুরস্ক। দুই দিন ধরে অঞ্চলটিতে সামরিক উপস্থিতি বাড়ানোর পাশাপাশি মোতায়েন করা হচ্ছে ভারী অস্ত্র। আঙ্কারা বলছে, মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর সিরিয়ায় সন্ত্রাস-বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে এই সেনা মোতায়েন। তবে আসাদ সরকারের অভিযোগ, ইদলিবে আশ্রয় নেয়া বিদ্রোহীদের রক্ষা এবং কুর্দি নির্মূলের জন্যই সেনা পাঠাচ্ছে তুরস্ক। দেশটির এমন তৎপরতা রুখে দিতে মানবিজে এইমধ্যে সামরিক তৎপরতা জোরদার করেছে দামেস্ক। শনিবার মানবিজসহ আশপাশের এলাকায় সেনাবাহিনীর পাশাপাশি মোতায়েন করা হয় ভারী অস্ত্র।
কমান্ডার বলেন, ‘আমরা মানবিজের চারদিকে অবস্থান নিয়েছি। পুরো এলাকা আমাদের নিয়ন্ত্রণে। বিদেশি শক্তির যেকোনো হামলা যেকোনো মুহূর্তে প্রতিহত করতে আমরা পুরোপুরি প্রস্তুত।’
এদিকে, মার্কিন সেনা প্রত্যাহার হলেও কুর্দি বিদ্রোহীদের ভয়ের কোনো কারণ নেই উল্লেখ করে ওয়াশিংটন বলছে, তাদের নিরাপত্তায় সব ধরনের সহযোগিতা করে যাবে যুক্তরাষ্ট্র। মধ্যপ্রাচ্য সফররত মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, সেনা প্রত্যহারের পর কুর্দিদের রক্ষার বিষয়ে চুক্তিতে পৌঁছাতে সম্মত হয়েছে তুর্কি সরকার।
আবুধাবিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের যুবরাজের সঙ্গে বৈঠকের সময় পম্পেও বলেন, চুক্তির অগ্রগতির বিষয়ে তুর্কি সরকারের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধির সঙ্গে তার টেলিফোনে কথা হয়েছে। যদিও এর আগে, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন তুরস্ক সরকারকে কুর্দিদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের আহ্বান জানালে তা প্রত্যাখ্যান করেছিলেন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান।
মার্কিন সেনা সরিয়ে নেয়া হলেও নিজেদের নিরাপত্তায় সিরিয়ায় ইরানি সেনাবাহিনীর অবস্থানে হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছে ইসরাইল। নিউইয়র্ক টাইমসকে দেয়া সাক্ষাতকারে ইসরাইলি সেনাপ্রধান বলেন, ২০১৮ সালে সিরিয়ার সামরিক স্থাপনায় ২ হাজারের মতো বোমা হামলা চালানো হলেও নতুন বছরে তা আরো জোরদার করা হবে। শুক্রবার রাতে দামেস্কের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর লক্ষ্য করে দফায় দফায় হামলা চালানোর মধ্যেই এ ঘোষণা দিল তেল আবিব।

সূত্র: কালের কণ্ঠ।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK