সোমবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৯
Thursday, 13 Dec, 2018 10:32:46 am
No icon No icon No icon

ইসরাইলে নতুন করে সহিংসতা


ইসরাইলে নতুন করে সহিংসতা


টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দখলদার ইহুদিবাদী ইসরাইল নতুন করে ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে সহিংসতা ও উপশহর নির্মাণ কাজ শুরু করেছে। ফিলিস্তিনের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, রামাল্লায় ইসরাইলি সেনাদের সাম্প্রতিক হামলায় ২০ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছে। দখলদার সেনারা ভয়-ভীতি প্রদর্শনের মাধ্যমে ফিলিস্তিনিদেরকে আত্মসমর্পণে বাধ্য করার জন্য কোনো না কোনো অজুহাতে তাদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। ফিলিস্তিনিদের প্রতিরোধের মুখে নিজেদের দুর্বলতা ঢাকা এবং শক্তিমত্বা প্রদর্শনের জন্য ইসরাইল সহিংসতা ও হত্যাকাণ্ড চালাচ্ছে। এদিকে, ইসরাইলের একটি সূত্র জানিয়েছে, দখলীকৃত ভূখণ্ডে নতুন করে আরো উপশহর নির্মাণ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ইসরাইলের সাম্প্রতিক এসব পদক্ষেপ থেকে বোঝা যায় তারা এ অঞ্চলে সম্প্রসারণকামী লক্ষ্য এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে। অথচ উপশহর নির্মাণ সম্পূর্ণ বেআইনি এবং জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন। কিন্তু তারপরও পাশ্চাত্যের সহায়তায় ইসরাইল ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে সহিংসতা ও দখলদারিত্ব অব্যাহত রেখেছে। মধ্যপ্রাচ্যে ইসরাইলের অবস্থান শক্তিশালী করার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প 'শতাব্দির সেরা চুক্তি' নামে পরিকল্পনা তুলে ধরেছেন যেখানে এ অঞ্চলে ইসরাইলের দখলদারিত্ব ও সম্প্রসারণকামিতাকে বৈধতা দেয়া হয়েছে।


ইসরাইলি উপশহর
কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে ফিলিস্তিনিদের সচেতনতার কারণে এবং ইসরাইলের বিরুদ্ধে পাল্টা শক্ত প্রতিরোধ গড়ে তোলায় 'শতাব্দির সেরা চুক্তি' নামক মার্কিন-ইসরাইল পরিকল্পনা বাস্তবায়ন ব্যর্থ হতে চলেছে। এই ব্যর্থতা ইসরাইল ও তাদের সমর্থক পাশ্চাত্যের দেশগুলোর কর্মকর্তাদেরকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। ইসরাইলের সেনা কর্মকর্তাদের মধ্যেও উদ্বেগ ও হতাশা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে সম্প্রতি ওফরা উপশহরের কাছে ইসরাইলিদের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের দুঃসাহসিক অভিযান ইসরাইলি কর্মকর্তাদেরকে হতবাক করেছে।

এ ব্যাপারে লেবাননের সাংবাদিক হাসান হারদান দৈনিক আল বানায়েতে প্রকাশিত এক নিবন্ধে লিখেছেন, "ফিলিস্তিনি যোদ্ধারা অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে দুঃসাহসিক অভিযান চালিয়ে সাত ইসরাইলিকে আহত করতে করতে সক্ষম হয়। এরপর থেকে ইসরাইলি সেনারা গত দুই মাস ধরে জর্দান নদীর পশ্চিম তীরের উত্তরে ওই অভিযানের সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চালিয়ে আসছে।"

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ফিলিস্তিনিদের এ অভিযানে ইসরাইলি সেনারা চিন্তিত হয়ে পড়েছে। কারণ কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভেদ করে ওই হামলা চালানো হয়েছিল। এ ছাড়া, সম্প্রতি দু'দিনের গাজা যুদ্ধে ইসরাইলি সেনারা কোনো লক্ষ্য অর্জন করতে না পারায় এটা ইসরাইলি কর্মকর্তাদের জন্য আরেকটি দুশ্চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। দু'দিনের এ যুদ্ধে ইসরাইল কিছুই করতে তো পারেনি বরং ফিলিস্তিনিদের ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে তারা নাস্তানাবুদ হয়ে গেছে। এর আগে ২২ দিন ও ৫০ দিনের যুদ্ধেও ইসরাইল পরাজিত হয়েছিল এবং যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে সই করতে বাধ্য হয়।

কিন্তু সর্বশেষ দু'দিনের যুদ্ধে পরাজয় ইসরাইলের হিসাব নিকাশ আমূল পাল্টে দিয়েছে এবং পরিস্থিতি ফিলিস্তিনের অনুকূলে চলে গেছে। এসব ব্যর্থতা ঢাকতেই ইসরাইল নতুন করে সহিংসতা ও ইহুদি উপশহর নির্মাণ শুরু করতে যাচ্ছে বলে পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন।     

সূত্র: পার্সটুডে।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK