সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭
Thursday, 16 Feb, 2017 11:44:57 am
No icon No icon No icon

পৃথক ফিলিস্তিন-ইসরায়েল দ্বি-রাষ্ট্র নীতির বিপক্ষে ট্রাম্প


পৃথক ফিলিস্তিন-ইসরায়েল দ্বি-রাষ্ট্র নীতির বিপক্ষে ট্রাম্প


টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ফিলিস্তিন-ইসরায়েলের মধ্যে সংঘাত নিরসনে আলাদা দু’টি রাষ্ট্র তৈরি করার বিপক্ষে মত দিলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু’র সঙ্গে সাক্ষাৎকালে এ মতামত দেন তিনি। যদিও গেলো কয়েক বছর ধরে দ্বি-রাষ্ট্র তৈরির ভিত্তিতে ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সঙ্কট সমাধানের নীতি সমর্থন করে আসছিল যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার হোয়াইট হাউজে সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, দ্বি-রাষ্ট্র নীতির মাধ্যমে দু’দেশের মধ্যকার সংঘাত কমানো সম্ভব না। দু’পক্ষকেই এ সংঘাত সমাধানের উপায় নির্ধারণ করতে হবে। এজন্য ছাড় দেবার মানসিকতা তৈরি করতে হবে দু’পক্ষকেই। দ্বি-রাষ্ট্র নীতির ব্যাপারে আমেরিকা কোন চাপ প্রয়োগ করবে না উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেন, দু'দেশের মধ্যে সঙ্কট নিরসনে দ্বি-রাষ্ট্রের ভিত্তিতে সমাধানের জন্য আমেরিকা আর কোন চাপ প্রয়োগ করবে না। এক্ষেত্রে দু’পক্ষ যা পছন্দ করবে, সেটাই আমরা সমর্থন করবো। এছাড়া ইসরায়েলে মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে সরানোর ব্যাপারেও কথা বলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, দূতাবাস জেরুজালেমে সরানো হয়েছে সেটাই আমি দেখতে চাই। এ বিষয়টি আমরা খুব যত্নের সঙ্গে দেখছি। এছাড়া ফিলিস্তিনের দখলকৃত পূর্ব জেরুজালেমে অবৈধ বসতি স্থাপনের কাজকে কিছুদিনের জন্য ‘আটকে রাখা’র পরামর্শ দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতা নেয়ার পর থেকে পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমে হাজার-হাজার বসতি নির্মাণের অনুমোদন দিয়েছে ইসরায়েল। সংবাদ সম্মেলনে নেতানিয়াহু বলেন, শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য দু’টি পূর্বশর্ত রয়েছে। ফিলিস্তিনিদের অবশ্যই ইহুদি রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিতে হবে এবং যেকোনো শান্তিচুক্তির ক্ষেত্রে ইসরায়েলকে জর্ডান নদীর পশ্চিমাঞ্চলে নিরাপত্তার পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ ফিরিয়ে দিতে হবে।

তবে হোয়াইট হাউজের সংবাদ সম্মেলনে দু’নেতার কেউই স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেননি। এ সংবাদ সম্মেলনের পরে ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট কার্যালয় থেকে দ্বি-রাষ্ট্রের ভিত্তিতে সমস্যা সমাধানের পক্ষে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরা হয়েছে।

ফিলিস্তিনিদের জন্য ইসরায়েলের পাশাপাশি একটি পৃথক রাষ্ট্র গঠনের কথা বলা হয় দুই রাষ্ট্র ভিত্তিক সমাধানে। ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের আগেকার সীমানা অনুযায়ী সব ফিলিস্তিনি এলাকাকে নিয়ে জেরুসালেমকে রাজধানী করে এই রাষ্ট্র গঠিত হওয়ার কথা। এতদিন পর্যন্ত সব মার্কিন প্রেসিডেন্ট এই নীতি সমর্থন করে এসেছেন।

কিন্তু এই প্রথম কোন মার্কিন প্রেসিডেন্ট এই নীতি থেকে সরে দাঁড়াতে যাচ্ছেন।

হোয়াইট হাউসের একজন মুখপাত্র বলেছেন, দুটি পৃথক রাষ্ট্র গঠনের মাধ্যমে ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠা নাও হতে পারে।

তিনি আরও বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইসরায়েলি এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় আগ্রহী। কিন্তু এই লক্ষ্য অর্জনের আরও অনেক পথ আছে।

বিবিসির মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক সম্পাদক বলছেন, ইসরায়েলের কট্টরপন্থীরা চায়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দুটি পৃথক রাষ্ট্র গঠনের ধারণা থেকে সরে আসুন। কারণ তারা মনে করে যে ভূখন্ড নিয়ে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠিত হবে, সেসব জায়গা ইসরায়েলের দরকার।

হোয়াইট হাউস মধ্যপ্রাচ্য সংকট নিয়ে তাদের এই নতুন অবস্থানের ইঙ্গিত দিয়েছে ওয়াশিংটনে ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর মধ্যে আনুষ্ঠানিক আলোচনার আগে।

নতুন মার্কিন প্রশাসনের এই বক্তব্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ফিলিস্তিনিরা।

প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গেনাইজেশনের (পিএলও) হানান আশরাবি বলেছেন, এটা কোন দায়িত্বশীল নীতি হতে পারে না এবং এতে শান্তির লক্ষ্যে কোন ফল হবে না। 
সূত্র: বিবিসি।

 

টাইমস ২৪ ডটনেট/দুনিয়া/৩৫৬৬/১৭

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK