শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯
Monday, 08 Aug, 2016 11:44:00 pm
No icon No icon No icon

যশোরের কেশবপুরে সেপটিক ট্যাঙ্কে ৫ জনের মৃত্যু

//

যশোরের কেশবপুরে সেপটিক ট্যাঙ্কে ৫ জনের মৃত্যু


টাইমস ২৪ ডটনেট, যশোর জেলা প্রতিনিধি : যশোরের কেশবপুরে একটি সেপটিক ট্যাঙ্কের বিষক্রিয়ায় তিন নির্মাণ শ্রমিকসহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে দুজন বাবা ও ছেলে। সোমবার বিকেল ৫টার দিকে উপজেলার সরসকাঠি গ্রামে নবনির্মিত ওই সেপটিক ট্যাঙ্কের সেন্টারিংয়ের বাঁশ-কাঠ অপসারণের সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।খবর পেয়ে মণিরামপুর স্টেশন থেকে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। 
নিহতরা হলেন- বরণডালি-সরসকাঠি গ্রামের আহাদ আলী গাজী (৪৫) ও তার ছেলে শফিকুল ইসলাম (২৩)। এছাড়া নির্মাণ শ্রমিক সাহাপুর গ্রামের আব্দুল হামিদ (২২), ইকবাল হোসেন (৩৫) ও আল-আমিন (২৮)।
গ্রামের বাসিন্দা আবদুস সালাম জানান, সরসকাঠি ডিগ্রি কলেজের পাশে একটি বাড়ির মালিক মাছ ব্যবসায়ী ওজিয়ার রহমান। তার বাড়িতে একটি নতুন সেপটিক ট্যাঙ্ক তৈরি করেন নির্মাণ শ্রমিকরা। বিকেল ৫টার দিকে সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করার জন্য শ্রমিকরা ভেতরে নামেন। একের পর এক শ্রমিক ট্যাঙ্কের ভেতর নামছিলেন। কিন্তু তারা গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাদের মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে। 
গৃহকর্তা ওজিয়ার মোড়ল জানান, তার বাড়িতে একটি নতুন সেপটিক ট্যাঙ্ক নির্মাণ করা হচ্ছে। ১৮ দিন আগে সেখানে ঢালাইয়ের কাজ সম্পন্ন করা হয়। সোমবার বিকেল ৫টার দিকে নির্মাণাধীন ওই সেপটিক ট্যাঙ্কের সেন্টারিংয়ের বাঁশ-কাঠ অপসারণের জন্য তিন শ্রমিক ট্যাঙ্কের ভেতরে নামেন। কিন্তু সেখানে গ্যাস আক্রান্ত হয়ে তাদের মৃত্যু হয়। এদের উদ্ধার করতে নেমে মারা যান প্রতিবেশী আহাদ আলী গাজী ও তার ছেলে শফিকুল ইসলামও।
কেশবপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম জানান, তিন শ্রমিক ট্যাঙ্কের ভেতরে নামার পর কোনো সাড়া না দেওয়ায় প্রতিবেশী বাবা-ছেলে ভেতরে নামেন। এরপর তাদেরও কোনো সাড়া না পেয়ে স্থানীয়রা ট্যাঙ্কের একপাশের দেওয়াল ভেঙে পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করে।
ওসি জানান, নিহতদের মরদেহ নিজ নিজ বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
 

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK