বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭
Monday, 06 Feb, 2017 03:21:53 pm
No icon No icon No icon

রিজার্ভের অর্থে বিশেষ তহবিল

রিজার্ভের অর্থে বিশেষ তহবিল


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের টাকা দিয়ে একটি বিশেষ তহবিল গঠন করতে যাচ্ছে সরকার, যা ব্যবহার হবে রাষ্ট্রীয় জরুরি কাজে। এই তহবিলের নাম বাংলাদেশ সার্বভৌম সম্পদ তহবিল। এই তহবিল গঠনের প্রস্তাব নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এর আকার হবে ১০ বিলিয়ন ডলার (প্রায় ৮০ হাজার কোটি টাকা)। সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে তহবিল গঠনের প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়। প্রাথমিকভাবে দুই বিলিয়ন ডলার (প্রায় ১৮ হাজার কোটি টাকা) দিয়ে এটা শুরু হবে। প্রতি বছর বাড়বে দুই বিলিয়ন করে। মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, সার্বভৌম সম্পদ তহবিলের অর্থ রাষ্ট্রের সকল জরুরি প্রয়োজন-অবকাঠামো নির্মাণ, প্রাকৃতিক দূর্যোগ মোকাবেলা, বৈদেশিক সহায়তায় বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পে সরকারি অংশীদারিত্বের অংশ হিসেবে ব্যবহার করা হবে। গত পাঁচ বছর ধরেই বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের পরিমাণে ক্রমেই বাড়ছে। এই অর্থের ব্যবহার নিয়ে নানা সময় নানা চিন্তা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো নীতিমালা কখনও ছিল না।

সচিব বলেন, ‘এর ফলে সরকারের বড় বড় বিনিয়োগ প্রকল্পে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের টাকা ব্যবহার হতে যাচ্ছে।’

 

অন্যান্য যে সিদ্ধান্ত

মন্ত্রিসভায় বৈঠকে বাণিজ্য সংগঠন আইন-২০১৬ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এটি সামরিক শাসনামলের অধ্যাদেশ দিয়ে চলতো। অধ্যাদেশটি ছিল ইংরেজিতে। এটিকে নতুনভাবে বাংলায় আইন আকারে করা হয়েছে।

এ ছাড়া বাংলাদেশ চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট আইন- ২০১৭ এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এটিও ইংরেজি থেকে বাংলায় করা হয়েছে। তবে জাল সনদ ও ভুয়া সনদের জন্য জরিমা এক হাজার থেকে বাড়িয়ে ১০ লাখ টাকা করা হয়েছে।

এই আইনে সাজাও বাড়ানো হয়েছে। আগে সর্বোচ্চ সাজা ছিল ছয় মাসের কারাদণ্ড। সেটিকে তিন বছর করা হয়েছে। কৃষি কাজে ভূ-গর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা আইন-২০১৭ এর সখড়াও নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়।

 

জাহাজে সমুদ্রের পানি ঢুকানোর ঘটনায় দূষণ রোধে নতুন বৈশ্বিক উদ্যোগে সমর্থনের সিদ্ধান্তও নিয়েছে মন্ত্রিসভা। সমুদ্রে জাহাজ চলার সময় মালামাল কম থাকলে জাহাজে ভারসাম্য থাকে না। সেজন্য জাহাজে পানি ঢুকানো হয়। অনেক সময় ওই পানির সঙ্গে সামুদ্রিক প্রাণীও জাহাজে ঢুকে পড়ে। এসব প্রাণী আটকে থেকে পানি দূষিত করে ফেলে। যখন এসব জাহাজ বন্দরে নোঙর ফেলে যখন ওই দূষিত পানি ফেলে দেয়। এসব দূষণ রোধে ৫৩ টি দেশ বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে। এসব দেশ বিশেষ উদ্যোগে অনুসমর্থনও দিয়েছে। সেই জোটভুক্ত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশও। এজন্য আইএমও কর্তৃক প্রবর্তিত ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন ফল দি কনট্রোল অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অব শিফস ব্যালেস্ট ওয়াটার অ্যান্ড সেডিমেন্ট (বিডব্লিউএম) -২০০৪ এর খসড়া অনুসমর্থনের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সমুদ্রে জাহাজ পরিচালনার সময় জাহাজের তলদেশে এক ধরনের রঙ ব্যবহার করা হয় যাতে সামুদ্রিক কোনো প্রাণী জাহাজের সঙ্গে কামড়ে না থাকতে পারে। কারণ কামড়ে থাকলে জাহাতের গতি কমে যায়। এ জন্য ওই বিশেষ রঙ ব্যবহার করা হয়। কিন্তু ওই রঙও পরিবেশের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক। এসব বন্ধে বিশ্বের ৭৭টি দেশ বিশেষ উদ্যোগে অনুসমর্থন করেছে। সেটিতেও যুক্ত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এজন্য আইএমও কর্তৃক প্রবর্তিত ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন ফল দি কনট্রোল অব হার্মফুল অ্যান্টি ফৌলিং সিস্টেমস অন শিফস (এএফএস)- ২০০১ এর খসড়া অনুসমর্থনের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা।


টাইমস ২৪ ডটনেট/দুনিয়া/৩৩৩০/১৭

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 11 Banga Bandhu Avenue (2nd Floor), Dhaka-1000
Email: times24.net@gmail.com, Cell : 01733135505
Copyright@2015.Developed by BDTASK