সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭
Friday, 03 Feb, 2017 01:01:54 pm
No icon No icon No icon

বিকাশকে সতর্ক করল কেন্দ্রীয় ব্যাংক


  বিকাশকে সতর্ক করল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বিকাশকে লেনদেনে আরও সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সোমবার বিকাশ ও ব্যাংকের উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এক বৈঠকে এই নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

সূত্রে জানা যায়, মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বিকাশের বিরুদ্ধে বেপোরোয়া লেনদেন অভিযোগ ছিলো। প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইন্ট্রিগ্রিটি ও কাস্টমার সার্ভিস বিভাগে শতাধিক অভিযোগ জমা পড়ে। এছাড়া বিকাশের নাম করে বিদেশ থেকে অবৈধ উপায়ে হুন্ডি কার্যক্রম চালিয়ে আসছে এক শ্রেণির ব্যবসায়ী। যা নিয়ে উদ্ধিগ্ন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষ।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ব্র্যাক ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী সেলিম আর. এফ. হোসেন, ব্যাংকটির সাবসিডিয়ারী প্রতিষ্ঠান বিকাশের প্রধান নির্বাহী কামাল কাদির আর বাংলাদেশ ব্যাংকের মানিলন্ডারিং ডিপার্টমেন্ট ও পেমেন্ট সিস্টেম ডিপার্টমেন্টের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বৈঠকের বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট ডিপার্টমেন্টের নির্বাহী পরিচালক শুভঙ্কর সাহা বলেন, গ্রাহক যাতে প্রতারিত না হয় সে বিষয়ে আমরা বিকাশকে আরও সচেতন হতে বলেছি। এছাড়া কেউ যাতে বিকাশের নাম ব্যবহার করে হুন্ডি না করতে পারে সে বিষয়ে সতর্ক হওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসের বিষয়ে একটি সার্কুলার জারি করা হয়। এই সার্কুলার অনুযায়ী একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে একজন গ্রাহক কোনো মোবাইল ফাইন্যান্সসিয়াল সার্ভিসে একটির বেশি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবে না।

বৈঠকে বিকাশের পক্ষ থেকে বলা হয় , তাদের প্রতিষ্ঠানে অনেকেরই একাধিক অ্যাকাউন্ট রয়েছে। এগুলো হঠাৎ করে সংশোধন করা যাবে না। এর জন্য সময় প্রয়োজন। বাংলাদেশ ব্যাংক সম্ভাব্য স্বল্পতম সময়ের মধ্যে সার্কুলারের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করার নির্দেশ দিয়েছে।

বর্তমানে দেশে ৫৬টি তফসিলি ব্যাংক রয়েছে। এর মধ্যে ২৫টি ব্যাংককে মোবাইল ফ্যাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ১৮টি ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রম চালাচ্ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ প্রতিবেদন অনুযায়ী, সদ্য সমাপ্ত বছর শেষে মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসের (এমএফএস) মাধ্যমে ২৩ হাজার কোটি টাকা লেনদেন হয়েছে। যা এর আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩৭ শতাংশ বেশি। ২০১৫ সালে লেনদেন হয়েছে ১৭ হাজার কোটি টাকা।

 টাইমস ২৪ ডটনেট/শা/৭৯১০

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK