বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯
Friday, 28 Dec, 2018 11:12:24 pm
No icon No icon No icon
শনিবার মধ্যরাত থেকে যান চলাচল বন্ধ

রাজধানী ফাঁকা, ভোটের টানে গ্রামে গেছে মানুষ

//

রাজধানী ফাঁকা, ভোটের টানে গ্রামে গেছে মানুষ


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: রোববার সকাল থেকে শুরু হবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট। এ উপলক্ষে শনিবার মধ্যরাত থেকে বন্ধ হচ্ছে যান চলাচল। এদিকে ভোটের টানে ঘরমুখো হয়েছেন রাজধানীতে বসবাসরত সারাদেশের মানুষ। এলাকায় ভোটার হওয়ার কারণে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে অনেকেই আগেভাগে বাড়ি ফিরেছেন।

তবে সবচেয়ে বেশি মানুষ গ্রামে গেছেন শুক্রবার। বাস, ট্রেন ও লঞ্চ স্টেশনগুলোতে শুক্রবার ছিল উপচেপড়া ভিড়। এ কারণে রাজধানীও অনেকটা ফাঁকা হয়ে গেছে।

শুক্রবার রাজধানীর শ্যামলী, কল্যাণপুর, গাবতলী ও মহাখালী বাস টার্মিনাল ঘুরে দেখা যায়, ঢাকা থেকে বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী উল্লেখযোগ্য পরিবহনের বাস কাউন্টারগুলোতে কোনো টিকিট নেই। তাই অনেকে বাড়ি ফিরছেন বিভিন্ন রুটের লোকাল সার্ভিসে। অবশ্য অগ্রিম টিকিট কাটা যাত্রীদের নিয়ে বাস নির্ধারিত সময়েই টার্মিনাল ছেড়েছে। ট্রেন আর লঞ্চেও ছিল মানুষের ভিড়।

এ বিষয়ে সোহাগ পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার শরীফ আহমদ বলেন, ঈদের চার থেকে পাঁচ দিন আগে টিকিটের যেমন চাপ থাকে, নির্বাচন উপলক্ষে ঠিক তেমন চাপ যাচ্ছে। বৃহস্পতি ও শুক্রবারের সব টিকিট কয়েকদিন আগেই বিক্রি হয়ে গেছে। গাবতলী বাসস্ট্যান্ডে অপেক্ষমাণ যাত্রী আমিরুল ইসলাম বলেন, তিনি গত মঙ্গলবার এসে বৃহস্পতিবার রাতের টিকিট কাটার চেষ্টা করেন। না পেয়ে শুক্রবারের টিকিট কাটেন।

হানিফ পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার সুমন ইসলাম বলেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) পক্ষ থেকে ঈদের মতো করে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী বাস চলাচল করছে।

এবারের ভোটের দিন পড়েছে সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে। ফলে ভোটের আগের দু'দিনের সাপ্তাহিক ছুটিসহ একটানা তিন দিন ছুটি মিলেছে। এর সঙ্গে কেউ কেউ আগের দু'দিন বুধ ও বৃহস্পতিবার ছুটি নিয়েছেন। তারা বড়দিনের ছুটিসহ ছয় দিন এলাকায় থাকার সুযোগ পাচ্ছেন। আবার অনেকে তিন দিনের সঙ্গে ভোটের পর আরও কয়েকদিন ছুটি নিয়ে দীর্ঘসময় বাড়ি থাকার ব্যবস্থা করে গেছেন।

এদিকে নির্বাচন উপলক্ষে ২৯ ডিসেম্বর মধ্যরাত থেকে ৩০ ডিসেম্বর মধ্যরাত পর্যন্ত সারাদেশে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তবে নির্বাচনের কাজে জড়িতদের ক্ষেত্রে এ নির্দেশ প্রযোজ্য হবে না।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, নির্বাচনের দিন কোনো প্রাইভেট গাড়ি ব্যবহার করা যাবে না। নির্বাচন কমিশন অনুমোদিত স্টিকার ব্যবহার করে গণমাধ্যমসহ সংশ্নিষ্টদের যান চলাচল করতে পারবে। স্টিকার ব্যবহার না করলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আটকাতে পারবে। তবে জরুরি সেবা যেমন- অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, পত্রিকার বাহন গাড়ি, শিশু খাদ্য, আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ব্যবহারকারীদের জন্য যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হয়েছে। যান্ত্রিক যান না চললেও রিকশা-ভ্যান ব্যবহার করা যাবে।

জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড আরবানাইজেশন প্রসপেক্টের তথ্য অনুযায়ী, ঢাকা শহরের জনসংখ্যা বর্তমানে এক কোটি ৭০ লাখ। অন্যদিকে ঢাকা মহানগরসহ ঢাকা জেলায় এবার মোট ভোটার ৭৭ লাখ ৩০ হাজার। মহানগরীর বাইরে আরও পাঁচটি আসন রয়েছে। সেই হিসাবে ঢাকা মহানগরের ১৫টি আসনে যদি ৬০ লাখ ভোটারও থাকেন, তা হলে রাজধানীর এক কোটি ২০ লাখ মানুষ ভোটার নন। ভোটকে কেন্দ্র করে গ্রামমুখো মানুষের সংখ্যাও তাই অনেক।

সূত্র: সমকাল।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK