মঙ্গলবার, ১৪ আগস্ট ২০১৮
Sunday, 22 Jul, 2018 07:46:15 pm
No icon No icon No icon

৪২তম শহীদ কর্নেল আবু তাহের দিবসে বাংলাদেশ জাসদের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত


 ৪২তম শহীদ কর্নেল আবু তাহের দিবসে বাংলাদেশ জাসদের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত


টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: ২১ জুলাই ২০১৮ রবিবার ছিল শহীদ কর্নেল আবু তাহের বীরউত্তম-কে বিচারের নামে ঠান্ডা মাথায় হত্যার ৪২তম বার্ষিকী। মুক্তিযুদ্ধের ১১নং সেক্টর কমান্ডার ও ৭ নভেম্বর ‘৭৫এর ঐতিহাসিক সিপাহী জনতার অভ্যুত্থান’র স্থপতি শহীদ কর্নেল আবু তাহের বীরউত্তমকে জেনারেল জিয়ার সামরিক সরকার ১৯৭৬ সালের ২১ জুলাই ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে সামরিক আদালত বসিয়ে সাজানো মামলার প্রহসনমূলক গোপন বিচারে মৃত্যুদ›ড দিয়ে হত্যা করে।
বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-বাংলাদেশ জাসদ কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির পক্ষ থেকে ২২ জুলাই ২০১৮ রবিবার বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে বিকেল ৪টায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ জাসদের সভাপতি জনাব শরীফ নুরুল আম্বিয়া। অংশ নেন ঐক্য ন্যাপ সভাপতি জনাব পঙ্কজ ভট্রাচার্জ, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী কমরেড দীলিপ বড়ু–য়া, বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কমরেড আনিসুজ্জামান মল্লিক, গণতন্ত্রী পাটির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, বাংলাদেশ জাসদ স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মুশতাক হোসেন, কর্নেল তাহের হত্যা মামলার অন্যতম অভিযুক্ত সার্জেন্ট(অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীরপ্রতিক, জাতীয় কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুর ইসলাম বাবু, সংগঠনের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি আবদুস সালাম খোকন, ঢাকা মহানগর পশ্চিম সহসভাপতি টুটুল সরকার ও অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। সভা পরিচালনা করেন বাংলাদেশ জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব করিম সিকদার।
সভাপতির বক্তৃতায় জনাব শরীফ নুরুল আম্বিয়া বলেন, “জিয়াউর রহমান ক্ষমতা সংহত করার জন্য প্রহসনমূলক বিচার করে তাহের বীর উত্তম কে ফাঁসি দেয়। হত্যাকান্ড আইনসম্মত করার জন্য ফাঁসির ১০ দিন পর আইন সংশোধন করা হয়েছিল।” তিনি আরো বলেন, ”সাংবিধানিক ধারা সমতা গণতন্ত্র ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বাংলাদেশ জাসদ দৃঢ়তার সংগে রাজনীতি করবে। ১০ম সংসদ নির্বাচনের মত আর একটি নির্বাচনের স্বপড়ব যারা দেখছে, - তারা গণতান্ত্রিক রাজনীতির কুলাঙ্গার এবং তাদেরকে রাজনীতি থেকে পরিত্যাগ করতে হবে। ”বাংলাদেশ জাসদের নিবন্ধন নিয়ে যে ষড়যন্ত্র চলছে তা মোকাবেলা করা হবে।” ঐক্য ন্যাপ সভাপতি জনাব পঙ্কজ ভট্রাচার্জ দেশের বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে বলেন, “এখন যারা ক্ষমতায় আছেন তারা কেমন যেন অস্থির। অস্থিরতা গণতন্ত্রের দুশমন। অস্থিরতা থেকে স্বৈরতন্ত্রের জন্ম হয়।” সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী কমরেড দীলিপ বড়ুয়া বলেন,“স্বাধীনতার পরে বাংলাদেশ কার হাতে যাবে, কোন শ্রেণীর হাতে যাবে সে প্রশেড়বর জবাব খুঁজতে জাসদের জন্ম।” তিনি আরও বলেন,“শোষণ নির্যাতনের সাথে সাম্প্রদায়িকতা যুক্ত হয়ে দেশ দক্ষিণপন্থায় চলে গেছে।” বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কমরেড আনিসুর রহমান মল্লিক বলেন, “বাংলাদেশ জাসদকে বাঁচাতে হলে কর্নেল তাহেরকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। তার চিন্তা-চেতনাকে বাস্তবে প্রয়োগের জায়গায় নিয়ে যেতে হবে।” গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন,“মুক্তিযুদ্ধের আগেই যুব সমাজকে প্রশিক্ষিত করার জন্য কার্যμম চালিয়েছেন তাহের। তিনি ছিলেন আজন্ম বিপ্লবী।” বাংলাদেশ জাসদ স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মুশতাক হোসেন সরকারীভাবে শহীদ কর্ণেল তাহের দিবস পালনের দাবি জানান

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK