বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Wednesday, 11 Jul, 2018 12:20:43 pm
No icon No icon No icon

ফুলবাড়ীয়ার জন্মান্ধ সুজন পাল প্রতিভা বিকাশের সুযোগ চায়


ফুলবাড়ীয়ার জন্মান্ধ সুজন পাল প্রতিভা বিকাশের সুযোগ চায়


আঃ জব্বার, টাইমস ২৪ ডটনেট, ফুলবাড়ীয়া (ময়মনসিংহ) থেকে: ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার কেশরগঞ্জের প্রতিভাবান কণ্ঠশিল্পী জন্মান্ধ সুজন পাল তার বহুমুখী প্রতিভা বিকাশের জন্য উপজেলা প্রশাসন, বেসরকারী সংস্থা, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াসহ সকলের নিকট সুযোগ চেয়েছেন। কখনো রাস্তা-ঘাটে, কখনো হাট-বাজারের কোন চায়ের দোকানে কিংবা কারো বাড়ীর উঠানে সুজনকে দেখা যায় সুললিত কণ্ঠে গান গেয়ে সকল স্তরের মানুষের মন জয় করতে। জন্মান্ধ এই সুজন পাল গান গাওয়ার পাশাপাশি ডোল-খুল, তবলা, হারমোনিয়াম, ড্রাম-সেড্রামসহ বিভিন্ন ধরণের বাদ্যযন্ত্র বাজাতে পারে অনায়াসেই। দরিদ্র এই সুজন কোন সঙ্গীত বিদ্যালয়ে চর্চা করার কোন সুযোগ পায়নি, পায়নি কোন সঙ্গীত শিল্পী বা শিক্ষকের সহচর্চ তবুও বিভিন্ন জনপ্রিয় গান গেয়ে হাজারো দর্শকের স্থান করে নিয়েছেন। তার গান শুনে দর্শক ¯্রােতা মুগ্ধ হয়ে আর্থিকভাবে যে সহযোগিতা করেন তাতেই সুজনের মা-সহ তাদের সংসার চলছে ভগবানের কৃপায়। সুজন জন্মান্ধ হওয়ার পরও যেকোন স্থানে চলতে বা কোন মানুষের কণ্ঠ শুনে ব্যক্তিকে সনাক্ত করতে এমনকি তার মোবাইল ফোন ব্যবহার করতেও কোন অসুবিধা হয় না। 
১৯৮৫ সালের নভেম্বর মাসে টাংগাইলের কালিহাতি উপজেলার কালিহাতি উত্তরপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন সুজন চন্দ্র পাল। সুজনের ১০ বচর বয়সে তার বাবা ক্যান্সার রোগে মারা গেলে মা আতুশী রাণী পাল তার ভাইয়ের (সুজনের মামার বাড়ী) ফুলবাড়ীয়া উপজেলার নাওগাঁও বড় পাল বাড়ীতে আশ্রয় নেন। বর্তমানে সুজন উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় গান গেয়ে বেড়ান। জন্মান্ধ প্রতিভাবান সুজন তার প্রতিভা বিকাশের জন্য সাংস্কৃতিকমনা, সাংস্কৃতিপ্রেমী ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার লিরা তরফদারসহ সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK