শুক্রবার, ১৮ মে ২০১৮
Thursday, 28 Dec, 2017 12:44:21 am
No icon No icon No icon

আগামী ২ জানুয়ারি ধর্মঘটের ঘোষণা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক সংগঠনের


আগামী ২ জানুয়ারি ধর্মঘটের ঘোষণা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক সংগঠনের


খন্দকার হানিফ রাজা, বিশেষ প্রতিনিধি, টাইমস টোয়েন্টিফোর ডটনেট : মানিকগঞ্জে বহিরাগত সন্ত্রাসী চাঁদাবাজরা সড়ক পরিবহনের জন্য বিষ ফোঁড়া হয়ে দাঁড়িয়েছে। তারা ক্ষমতাসীন দলের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর পরিচয় দিয়ে পরিস্থিতি জটিল করে তুলেছে। তারা স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর আত্মীয় পরিচয়ে দখলদারিত্ব বজায় রেখেছে। আগামী ১ জানুয়ারির মধ্যে ৫ দফা দাবি পূরণ না হলে ২ জানুয়ারি মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে ২৪ ঘন্টা সড়ক পরিবহন ধর্মঘট পালনের ঘোষণা দিয়েছে মানিকগঞ্জ জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ।

২৭ ডিসেম্বর বুধবার সকালে সেগুনবাগিচার স্বাধীনতা মিলনায়তনে আয়োজিত এক প্রেস কনফারেন্সে এই অভিযোগ করেছেন মানিকগঞ্জ জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। এতে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের আহŸায়ক কাজী এনায়েত হোসেন টিপু, সদস্য সচিব মো. বাবুল সরকার, মানিকগঞ্জ জেলা বাস-মিনিবাস-মাইক্রোবাস-অটো টেম্পু ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

লিখিত বক্তব্যে কাজী এনায়েত হোসেন টিপু বলেন, সংগঠনের কার্যালয় এবং মানিকগঞ্জ জেলা বাস টার্মিনাল স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপনের নাম ভাঙ্গিয়ে তার ফুপাতো ভাই মো. ই¯্রাফিল ও জাহিদুল ইসলাম জাহিদের লোকজন অবৈধভাবে দখল করে নেয়। তারা নির্বাচিত নেতৃবৃন্দকে ভয়ভীতি দেখিয়ে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে। দখলের প্রতিবাদে গত ১৫ অক্টোবর সড়ক পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা সকল প্রকার যানবাহন বন্ধ করে কর্মবিরতী পালন করেছে। জেলা প্রশাসক পরিস্থিতি মোকাবেলায় মালিক-শ্রমিকদের অফিস ও টার্মিনাল তাৎক্ষণিক দখলমুক্ত করার আশ্বাস পেয়ে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে। কিন্তু অদ্যবধি টার্মিনাল দখলমুক্ত না হওয়ায় গত ২৫ অক্টোবর পরিষদের পক্ষ থেকে অফিসসহ টার্মিনাল দখলমুক্ত করাসহ ৫ দফা দাবিতে জেলা প্রশাসক বরাবর দাবিনামা পেশ করা হয়। এ ব্যাপারে মানিকগঞ্জ-২ আসনের এমপি মমতাজ বেগম, স্থানীয় (মানিকগঞ্জ-১) এমপি নাঈমুর রহমান দুর্জয়, মানিকগঞ্জ পৌরসভার মেয়র গাজী কামরুল হুদা সেলিম এবং জেলা আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসমূহের নেতৃবৃন্দের কাছে সহযোগিতা চাওয়া হয়। এরই প্রেক্ষিতে তারা বাস টার্মিনাল ও মালিক-শ্রমিক সংগঠনের অফিস দখলমুক্ত করার জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে সুপারিশ করেন। ধর্মঘট আহŸান করা হলে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপির আশ্বাসে তা স্থগিত করা হয়। কর্মসূচী স্থগিত করা হলে দখলদারা নৌ-পরিবহন মন্ত্রী, স্থানীয় দুই এমপিসহ পৌরসভার মেয়র ও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বকে চ্যালেঞ্জ কওে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর নাম ভাঙ্গিয়ে ইসরাফিল ও জাহিদ গং তাদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড অব্যাহত রেখেছে।
তিনি আরো বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে মানিকগঞ্জ জেলা সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক প্রতিনিধি সভায় ধর্মঘটের মাধ্যমে চাপিয়ে দেয়া সমস্যা সমাধানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এরই ভিত্তিতে মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ অফিস ও টার্মিনাল দখলমুক্ত করতে ৫ দফা দাবি পেশ করে। দাবিসমূহ হলো, দখলদারদের অবিলম্বে উচ্ছেদ করা, সংগঠনসমূহের অফিস ও টার্মিনাল নেতৃবৃন্দের কাছে বুঝিয়ে দিতে, দখলদারদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ, মালিক শ্রমিক সংগঠন দলীয়করণ বন্ধ করা ও মালিক শ্রমিক নেতৃবৃন্দের নামে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। তানা হলে পরবর্তীতে আরো কঠোর কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে বলে জানান তিনি।

এই রকম আরও খবর




Editor: Habibur Rahman
Dhaka Office : 149/A Dit Extension Road, Dhaka-1000
Email: [email protected], Cell : 01733135505
[email protected] by BDTASK